০৫:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ পেরুতে ৮০০ বছরের পুরনো মমির সন্ধান।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৫:৪২:০১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১
  • 34

৮০০ বছরের পুরনো মমির সন্ধান পাওয়া গেল দক্ষিণ আমেরিকার দেশ পেরুতে। দেশটির রাজধানী লিমার কাছে একটি উপকূলবর্তী প্রাচীন সমাধিস্থল খুঁড়ে এই পুরনো মমির সন্ধান পায় দেশটির একদল প্রত্নতাত্ত্বিক।

শনিবার (২৭ নভেম্বর) বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

শুক্রবার লিমার প্রায় ধ্বংসপ্রাপ্ত ও পরিত্যক্ত মন্দিরের ভূগর্ভস্থ সমাধিস্থলে সন্ধান মেলে মমিটির। তবে সেটি পুরুষের, নাকি নারীর মমি তা এখনও সুনির্দিষ্টভাবে জানা যায়নি।

প্রত্নতাত্ত্বিক ওই দলের মুখপাত্র পিটার ভ্যান ডালেন লুনা বলেন, ‘আমরা যখন প্রথম মমিটি আবিষ্কার করি, তখন দেখতে পাই সেটির হাত-পা ছিল গোটানো, পুরো শরীর দড়ি দিয়ে বাঁধা ও হাতের তালু দিয়ে মুখঢাকা। এটি কোনো পুরুষ না নারীর মমি সে বিষয়ে আমরা এখনও নিশ্চিত হতে পারিনি। তবে মমিটি যেভাবে যে অবস্থায় আমরা প্রথম আবিষ্কার করি, তাতে মনে হচ্ছে ওই সময় এই এলাকায় এভাবেই মৃতদেহের সৎকার করা হতো।’

মুখপাত্র পিটার মমিটিকে আন্দিজ পার্বত্য অঞ্চলের অধিবাসী বলে ধারণা করছেন। তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এখনও এটির রেডিও-কার্বন ডেটিং পরীক্ষা করিনি। এই পরীক্ষা করা হলে এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।’

বর্তমান পেরু ছিল তৎকালীন ইনকা সভ্যতার মূল কেন্দ্র। সেখানে প্রায় সময় বহু বছরের পুরনো মমির সন্ধান পেয়ে আসছেন বিশেষজ্ঞরা।

Tag :
About Author Information

ভারতে ৩শ’ রুপির গয়না ৬ কোটিতে বিক্রি করে মার্কিন নারীর সঙ্গে প্রতারণা।

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ পেরুতে ৮০০ বছরের পুরনো মমির সন্ধান।

Update Time : ০৫:৪২:০১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১

৮০০ বছরের পুরনো মমির সন্ধান পাওয়া গেল দক্ষিণ আমেরিকার দেশ পেরুতে। দেশটির রাজধানী লিমার কাছে একটি উপকূলবর্তী প্রাচীন সমাধিস্থল খুঁড়ে এই পুরনো মমির সন্ধান পায় দেশটির একদল প্রত্নতাত্ত্বিক।

শনিবার (২৭ নভেম্বর) বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

শুক্রবার লিমার প্রায় ধ্বংসপ্রাপ্ত ও পরিত্যক্ত মন্দিরের ভূগর্ভস্থ সমাধিস্থলে সন্ধান মেলে মমিটির। তবে সেটি পুরুষের, নাকি নারীর মমি তা এখনও সুনির্দিষ্টভাবে জানা যায়নি।

প্রত্নতাত্ত্বিক ওই দলের মুখপাত্র পিটার ভ্যান ডালেন লুনা বলেন, ‘আমরা যখন প্রথম মমিটি আবিষ্কার করি, তখন দেখতে পাই সেটির হাত-পা ছিল গোটানো, পুরো শরীর দড়ি দিয়ে বাঁধা ও হাতের তালু দিয়ে মুখঢাকা। এটি কোনো পুরুষ না নারীর মমি সে বিষয়ে আমরা এখনও নিশ্চিত হতে পারিনি। তবে মমিটি যেভাবে যে অবস্থায় আমরা প্রথম আবিষ্কার করি, তাতে মনে হচ্ছে ওই সময় এই এলাকায় এভাবেই মৃতদেহের সৎকার করা হতো।’

মুখপাত্র পিটার মমিটিকে আন্দিজ পার্বত্য অঞ্চলের অধিবাসী বলে ধারণা করছেন। তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এখনও এটির রেডিও-কার্বন ডেটিং পরীক্ষা করিনি। এই পরীক্ষা করা হলে এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।’

বর্তমান পেরু ছিল তৎকালীন ইনকা সভ্যতার মূল কেন্দ্র। সেখানে প্রায় সময় বহু বছরের পুরনো মমির সন্ধান পেয়ে আসছেন বিশেষজ্ঞরা।