০৫:২৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

১৯ জুলাই থেকে সব বিধিনিষেধ উঠে যাবে বলে ঘোষণায় সমা‌লোচনার মু‌খে ব্রিটেন প্রধানমন্ত্রী।

  • Reporter Name
  • Update Time : ১০:৩৫:৫৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই ২০২১
  • 19

যুক্তরাজ্যে আগামী ১৯ জুলাই থেকে সব বিধিনিষেধ উঠে যাবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন ব্রিটেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। গত সোমবারের ওই ঘোষণার পর থেকে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, ব্রিটেনে করোনার প্রথম ঢেউ সামলে ওঠার পরে জানুয়ারি নাগাদ অল্প অল্প করে স্বাভাবিক হচ্ছিল। তবে দ্বিতীয় ঢেউয়ের আঁচ পাওয়া মাত্র ফের লকডাউন শুরু হয়ে যায়। এরপর জুনে জনজীবন স্বাভাবিক করার দাবিতে দেশটির নানা প্রান্তে লকডাউন-বিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়।

এরপর আগামী ১৯ জুলাই করোনা বিধিনিষেধ পুরোপুরি তুলে দেওয়ার প্রসঙ্গে বরিস জনসন বলেন, ‘হয় এখন নয়তো কখনওই নয়। ১৯ জুলাইয়ের পর থেকে ব্রিটেনে বাজার-দোকান, অফিস, বিনোদন কেন্দ্র, থিয়েটার সব কিছু খুলে যাবে।’

এমনকি মাস্কও বাধ্যতামূলক নয়। কেউ চাইলে পরতেই পারেন। তবে মাস্ক পরা নিয়ে সরকারি নিষেধ থাকবে না বলেও তিনি উল্লেখ করেন। তবে বরিসের এই মন্তব্যের সমালোচনা শুরু হয়েছে।

অনেকে মনে করছেন, এই বিধিনিষেধ আরও কিছু দিন বাড়ানো দরকার ছিল। নয়তো পরিস্থিতি আবার ভয়ংকর হয়ে উঠতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিধিনিষেধ তুলে দৈনিক কয়ক হাজার লোক কোভিড দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

১৯ জুলাই থেকে সব বিধিনিষেধ উঠে যাবে বলে ঘোষণায় সমা‌লোচনার মু‌খে ব্রিটেন প্রধানমন্ত্রী।

Update Time : ১০:৩৫:৫৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই ২০২১

যুক্তরাজ্যে আগামী ১৯ জুলাই থেকে সব বিধিনিষেধ উঠে যাবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন ব্রিটেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। গত সোমবারের ওই ঘোষণার পর থেকে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, ব্রিটেনে করোনার প্রথম ঢেউ সামলে ওঠার পরে জানুয়ারি নাগাদ অল্প অল্প করে স্বাভাবিক হচ্ছিল। তবে দ্বিতীয় ঢেউয়ের আঁচ পাওয়া মাত্র ফের লকডাউন শুরু হয়ে যায়। এরপর জুনে জনজীবন স্বাভাবিক করার দাবিতে দেশটির নানা প্রান্তে লকডাউন-বিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়।

এরপর আগামী ১৯ জুলাই করোনা বিধিনিষেধ পুরোপুরি তুলে দেওয়ার প্রসঙ্গে বরিস জনসন বলেন, ‘হয় এখন নয়তো কখনওই নয়। ১৯ জুলাইয়ের পর থেকে ব্রিটেনে বাজার-দোকান, অফিস, বিনোদন কেন্দ্র, থিয়েটার সব কিছু খুলে যাবে।’

এমনকি মাস্কও বাধ্যতামূলক নয়। কেউ চাইলে পরতেই পারেন। তবে মাস্ক পরা নিয়ে সরকারি নিষেধ থাকবে না বলেও তিনি উল্লেখ করেন। তবে বরিসের এই মন্তব্যের সমালোচনা শুরু হয়েছে।

অনেকে মনে করছেন, এই বিধিনিষেধ আরও কিছু দিন বাড়ানো দরকার ছিল। নয়তো পরিস্থিতি আবার ভয়ংকর হয়ে উঠতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিধিনিষেধ তুলে দৈনিক কয়ক হাজার লোক কোভিড দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।