০৭:০৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১৫ই আগষ্টের বিচার হয়েছে এখনো রায় কার্যকরের বাকী আছে।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৯:২২:৩৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ অগাস্ট ২০২২
  • 55
২১শে আগষ্টের বিচার হয়েছে, রায় কার্যকরের দ্বিতীয় ধাপ অতিক্রম হয়নি, তৃতীয় ধাপ ও রায় কার্যকর কবে সম্ভব হবে ঠিক জানি না।
যাইহোক, ১৫ই আগষ্ট ২১শে আগষ্ট নিয়ে আমার আচরন এগ্রেসিভ। সম্পুর্ন জিরো টলারেন্স। আমার এই অবস্থান মোটেও কাউকে খুশি করার বিষয় নয়।
বাংলাদেশের গতিপথ পাল্টে দেওয়ার জন্য হয়েছিলো ১৫ই আগষ্ট…..
বাংলাদেশের রাজনীতির গতিপথ চিরদিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়ার জন্য হয়েছিলো ২১ শে আগষ্ট…..
বাংলাদেশে একটা রাজনৈতিক মহল আছে
বাংলাদেশে একটা সুশীল মহল আছে
বাংলাদেশে একটা পাইকারী মিডিয়া মহল আছে
যাদের মুল চাওয়া হচ্ছে ধর্ষক আর ধর্ষিতাকে একই রাস্তায় কাধে কাধ মিলিয়ে চলার পথ তৈরি করে দেওয়ার আপ্রান চেষ্টা।
আপনি যদি বাংলাদেশের জন্ম, অস্তিত্ত্বে বিশ্বাস করেন তাহলে ১৫ই আগষ্টের খুনী হত্যার ষড়যন্ত্রকারী কাউকে ক্ষমা করার কোন সুযোগ আপনার মাথায় আসতে পারবে না। এমনকি রাজনীতিতে তাদের সুযোগ আপনি প্রত্যাশাও করতে পারেন না।
অপরদিকে আপনি যদি বাংলাদেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা আশা করেন তাহলে ২১ আগষ্টের হত্যাকারী কুশিলবদের সাথে সমন্নয় করে ভুলে গিয়ে এগিয়ে চলার সুযোগ বিষয়ে আপনি ভাবতেও পারবেন না।
আওয়ামীলীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি করে না, অমুক তমুক মাখানো সন্দেশ মার্কা কথার দোহাই দিয়ে বলা যেকোন ধরনের আওয়ামী বচন একজন আওয়ামী সমর্থক হিসেবে আমি মেনে নিতে পারিনা যে ১৫ই আগষ্টের খুনী ষড়যন্ত্রকারী ও ২১ শে আগষ্টের খুনী কুশিলবদের এই দেশে রাজনীতি করার অধিকার যেমন তেমন বেচে থেকে হাওয়া বাতাস খাওয়ার অধিকার থাকতে পারে, আমি বিশ্বাস করি ওদের সহ ওদের চৌদ্দ গুষ্টি সমর্থক ফ্যান ফলোয়ার সমুলে ধ্বংস করাটা ছিলো আওয়ামীলীগের জন্য অন্যতম প্রধান এবং একমাত্র প্রায়োরিটি কাজ।
বিশ্বাস করি আওয়ামীলীগ এই পর্যায়ে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থেকেও কার্যত ব্যর্থ, ঠিকাসে ১৫ই আগষ্টের বিচার হয়েছে, আসামী যা পাওয়া গেছে তাদের রায় কার্যকর হয়েছে, পলাতক আসামী ধরে আনার চেষ্টা অব্যাহত আছে।
কিন্তু ২১শে আগষ্টের বিচার বিচারের রায় কার্যকর বিষয়ে সর্বশেষ অগ্রগতি কি? ধারনা আছে? বলতে পারবেন?
এখনো এই দেশে ১৫ই আগষ্টের নির্মম হত্যাকান্ড নিয়ে অপপ্রচার, হত্যাকারীর পক্ষে ক্যাম্পেইন চলমান আছে।
২১ শে আগষ্টের বিচার কে রাজনৈতিক প্রহসন বলে প্রচার অব্যাহত আছে, অপরাধী সংগঠন বীরদর্পে রাজনীতি করছে।
তাই একজন সাধারন নাগরিক হিসেবে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের কাছে আমার প্রত্যাশা ছিলো ১৫ই আগষ্ট ও ২১ শে আগষ্টের সাথে জড়িত ব্যাক্তি তাদের পরিবার পরিজন রাজনৈতিক দল সর্বোচ্চ থেকে মিনিমাম অগ্রাধিকার দিয়ে সমুলে ধ্বংস করে তাদের রাজনীতি করার অধিকার এই দেশে একেবারে নিষিদ্ধ করে দিয়ে খুনী বিশ্বাস দর্শনের বিরুদ্ধে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন হবে।
কিন্তু না, এইখানে একদল আছে যারা ধর্ষক ও ধর্ষিতাকে এক টেবিলে বসিয়ে খাওয়াতে চায়, আরেকদল আছে যারা বিশ্বাস করে ধর্ষন করাটা তাদের অধিকার। আর যাদের হাতে ক্ষমতা তারা প্রতিহিংসায় বিশ্বাস কম করে আর কি।
মনে রাখতে হবে প্রতি ১৫ই আগষ্ট ও ২১ আগষ্ট এলে ইতিহাসের স্তুতি লিখেই খুনী খুনীদের ফ্যান ফলোয়ার নির্মুল সম্ভব নয়।
২১ শে আগষ্ট বিএনপি জামাতের গ্রেনেড হামলায় নিহত সকল শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলী জ্ঞাপন করছি।
Tag :
About Author Information

ভারতে ৩শ’ রুপির গয়না ৬ কোটিতে বিক্রি করে মার্কিন নারীর সঙ্গে প্রতারণা।

© 2023 All rights reserved © Joybd24
কারিগরি সহযোগিতায়: Joybd24

১৫ই আগষ্টের বিচার হয়েছে এখনো রায় কার্যকরের বাকী আছে।

Update Time : ০৯:২২:৩৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ অগাস্ট ২০২২
২১শে আগষ্টের বিচার হয়েছে, রায় কার্যকরের দ্বিতীয় ধাপ অতিক্রম হয়নি, তৃতীয় ধাপ ও রায় কার্যকর কবে সম্ভব হবে ঠিক জানি না।
যাইহোক, ১৫ই আগষ্ট ২১শে আগষ্ট নিয়ে আমার আচরন এগ্রেসিভ। সম্পুর্ন জিরো টলারেন্স। আমার এই অবস্থান মোটেও কাউকে খুশি করার বিষয় নয়।
বাংলাদেশের গতিপথ পাল্টে দেওয়ার জন্য হয়েছিলো ১৫ই আগষ্ট…..
বাংলাদেশের রাজনীতির গতিপথ চিরদিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়ার জন্য হয়েছিলো ২১ শে আগষ্ট…..
বাংলাদেশে একটা রাজনৈতিক মহল আছে
বাংলাদেশে একটা সুশীল মহল আছে
বাংলাদেশে একটা পাইকারী মিডিয়া মহল আছে
যাদের মুল চাওয়া হচ্ছে ধর্ষক আর ধর্ষিতাকে একই রাস্তায় কাধে কাধ মিলিয়ে চলার পথ তৈরি করে দেওয়ার আপ্রান চেষ্টা।
আপনি যদি বাংলাদেশের জন্ম, অস্তিত্ত্বে বিশ্বাস করেন তাহলে ১৫ই আগষ্টের খুনী হত্যার ষড়যন্ত্রকারী কাউকে ক্ষমা করার কোন সুযোগ আপনার মাথায় আসতে পারবে না। এমনকি রাজনীতিতে তাদের সুযোগ আপনি প্রত্যাশাও করতে পারেন না।
অপরদিকে আপনি যদি বাংলাদেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা আশা করেন তাহলে ২১ আগষ্টের হত্যাকারী কুশিলবদের সাথে সমন্নয় করে ভুলে গিয়ে এগিয়ে চলার সুযোগ বিষয়ে আপনি ভাবতেও পারবেন না।
আওয়ামীলীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি করে না, অমুক তমুক মাখানো সন্দেশ মার্কা কথার দোহাই দিয়ে বলা যেকোন ধরনের আওয়ামী বচন একজন আওয়ামী সমর্থক হিসেবে আমি মেনে নিতে পারিনা যে ১৫ই আগষ্টের খুনী ষড়যন্ত্রকারী ও ২১ শে আগষ্টের খুনী কুশিলবদের এই দেশে রাজনীতি করার অধিকার যেমন তেমন বেচে থেকে হাওয়া বাতাস খাওয়ার অধিকার থাকতে পারে, আমি বিশ্বাস করি ওদের সহ ওদের চৌদ্দ গুষ্টি সমর্থক ফ্যান ফলোয়ার সমুলে ধ্বংস করাটা ছিলো আওয়ামীলীগের জন্য অন্যতম প্রধান এবং একমাত্র প্রায়োরিটি কাজ।
বিশ্বাস করি আওয়ামীলীগ এই পর্যায়ে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থেকেও কার্যত ব্যর্থ, ঠিকাসে ১৫ই আগষ্টের বিচার হয়েছে, আসামী যা পাওয়া গেছে তাদের রায় কার্যকর হয়েছে, পলাতক আসামী ধরে আনার চেষ্টা অব্যাহত আছে।
কিন্তু ২১শে আগষ্টের বিচার বিচারের রায় কার্যকর বিষয়ে সর্বশেষ অগ্রগতি কি? ধারনা আছে? বলতে পারবেন?
এখনো এই দেশে ১৫ই আগষ্টের নির্মম হত্যাকান্ড নিয়ে অপপ্রচার, হত্যাকারীর পক্ষে ক্যাম্পেইন চলমান আছে।
২১ শে আগষ্টের বিচার কে রাজনৈতিক প্রহসন বলে প্রচার অব্যাহত আছে, অপরাধী সংগঠন বীরদর্পে রাজনীতি করছে।
তাই একজন সাধারন নাগরিক হিসেবে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের কাছে আমার প্রত্যাশা ছিলো ১৫ই আগষ্ট ও ২১ শে আগষ্টের সাথে জড়িত ব্যাক্তি তাদের পরিবার পরিজন রাজনৈতিক দল সর্বোচ্চ থেকে মিনিমাম অগ্রাধিকার দিয়ে সমুলে ধ্বংস করে তাদের রাজনীতি করার অধিকার এই দেশে একেবারে নিষিদ্ধ করে দিয়ে খুনী বিশ্বাস দর্শনের বিরুদ্ধে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন হবে।
কিন্তু না, এইখানে একদল আছে যারা ধর্ষক ও ধর্ষিতাকে এক টেবিলে বসিয়ে খাওয়াতে চায়, আরেকদল আছে যারা বিশ্বাস করে ধর্ষন করাটা তাদের অধিকার। আর যাদের হাতে ক্ষমতা তারা প্রতিহিংসায় বিশ্বাস কম করে আর কি।
মনে রাখতে হবে প্রতি ১৫ই আগষ্ট ও ২১ আগষ্ট এলে ইতিহাসের স্তুতি লিখেই খুনী খুনীদের ফ্যান ফলোয়ার নির্মুল সম্ভব নয়।
২১ শে আগষ্ট বিএনপি জামাতের গ্রেনেড হামলায় নিহত সকল শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলী জ্ঞাপন করছি।