হালিশহর বি-ব্ল‌কে দুই কি‌শোর গ্যাং‌য়ের সংঘর্ষ, ছু‌রিকাঘা‌তে ১ জ‌নের অবস্থা আশংকাজনক।

জয়‌বি‌ডিজয়‌বি‌ডি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  01:37 AM, 02 May 2021

চট্টগ্রাম নগরীর উত্তর হা‌লিশহর ২৬ নং ওয়া‌র্ডের অন্তর্গত বি-ব্ল‌কে দুই কি‌শোর গ্যাং‌য়ের ম‌ধ্যে ঘ‌টে গে‌ছে এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ।

জানা গে‌ছে, শ‌নিবার (১লা মার্চ) রা‌তে বি-ব্লক ট্রেড স্কুল স্থা‌নে বেলাল না‌মের একজন কি‌শোর গ্যাং সন্ত্রাসী তার ৪ জন সহচর নি‌য়ে র‌কি না‌মের একজন কি‌শোর‌কে মারাত্মকভা‌বে ছু‌ড়িকাঘাত ক‌রে আহত ক‌রে। আশংকাজনক অবস্থায় আহত কি‌শোর‌কে হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি করা হয়।

এ ঘটনা‌কে কেন্দ্র ক‌রে বি-ব্লক এইচ ক্লাব মোড় থে‌কে বাইতুল ক‌রিম মাদ্রাসা কম‌প্লেক্ষ এলাকা পর্যন্ত দুই কি‌শোর গ্যাং‌য়ের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় এলাকা রণ‌ক্ষে‌ত্রে প‌রিনত হয়। প‌রে হা‌লিশহর থানা পু‌লিশ এসে প‌রি‌স্থি‌তি নিয়ন্ত্র‌নে আনেন। এঘটনায় পু‌লিশ ১ জন‌কে আটক ক‌রে‌ছেন ব‌লে জানা গে‌ছে।

এলাকাবাসীর তথ্য ম‌তে জানা যায়, কি‌শোর গ্যাং সন্ত্রাসী বেলাল এলাকার ক‌থিত ছাত্রলীগ নেতা জিতু অনুসারী এবং আহত কি‌শোর র‌কি মোঃ মাহবুব প্রকাশ কালা মাহবুব অনুসারী কি‌শোর গ্যাং‌য়ের সদস্য।

নাম প্রকাশ না করার শ‌র্তে একজন এলাকাবাসী জানান, এইচ ক্লাব মো‌ড়ের বর্তমান ক্লাব ঘর‌টি থে‌কে সকল সন্ত্রাসী কার্যকলাপ ঘট‌ছে। ক্লাব ঘর‌টি নিয়ন্ত্রন কর‌ছে এই এলাকারই একজন যুবলীগ নামধারী নেতা।‌ তার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হ‌চ্ছে একা‌ধিক কি‌শোর গ্যাং গ্রুপ। আজ‌কের ঘটনা‌টি তা‌দের নিয়‌ন্ত্রিত কি‌শোর গ্যাংয়ের।

ঘটনার প্রেক্ষাপট থে‌কে জানা যায়, এইচ ক্লাব মো‌ড়ের ক্লাব ঘর‌টির নিয়ন্ত্রক যুবলীগ নেতার নেতৃ‌ত্বে অ‌নেক দিন ধ‌রেই ক্লাব ঘর‌টির নির্মান কা‌জের জন্য এলাকার ব্যবসা প্র‌তিষ্ঠান থে‌কে শুরু ক‌রে বি‌ভিন্ন মাধ্যম থে‌কে প্রকা‌শ্যে চাঁদাবা‌জি চল‌ছে। মাঠ পর্যা‌য়ে এ চাঁদা উত্তলন ক‌রে কি‌শোর গ্যাং‌য়ের এ সদস্যরা। আজ‌কের এ ঘটনা চাঁদার টাকা নি‌য়ে ঘ‌টে‌ছে ব‌লে এলাকাবাসী‌দের অ‌নে‌কে জানান।

ঘটনার পরপরই আমা‌দের চট্টগ্রাম প্র‌তি‌নি‌ধির সরজ‌মিন তদন্ত থে‌কে প্রাপ্ত তথ্য থে‌কে জানা যায়, গত কিছু‌দিন আগে বি-ব্ল‌কের ২০ নং লেইনে এক ইতা‌লি প্রবা‌সী‌কে জোড়পূর্বক বিবস্ত্র ক‌রে এক নারী সহ স্ব‌চিত্র ‌মোবাই‌লে ধারণ ক‌রে ৪ লাখ টাকা দাবী করা সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সা‌থে আজ‌কের ঘটনার জো‌টের সা‌থে সখ্যতা আছে ব‌লে এলাকাবাসী‌রা অভি‌যোগ ক‌রছেন। ইতা‌লি প্রবাসী‌কে জি‌ম্মি ক‌রে অর্থ আদা‌য়ের চেষ্টার পু‌রো কার্যক্রম‌টিও এই ক্লাব ঘর থে‌কেই সংগ‌ঠিত হ‌য়ে‌ছে ব‌লে জানা যায়। কারন এ ঘটনায় যে মামলা হ‌য়ে‌ছে তার বেশীর ভাগ আসামী‌কেই এই এইচ ক্লাব মো‌ড়ের ক্লাব ঘর‌টি‌তেই ক‌থিত সেই যুবলীগ নেতার সা‌থে প্র‌তি‌নিয়ত আড্ডা মার‌তে দেখা যায়।

‌নাম প্রকা‌শে অ‌নিচ্ছুক অ‌নেক এলাকাবাসীরা জানান, থানায় ঘটনা‌টির মামলা হ‌লেও পু‌লিশের স‌ন্তোষজনক কোন অগ্রগ‌তি প‌রিল‌ক্ষিত হ‌চ্ছে না। বরং মামলার আসামীরা প্রকা‌শ্যে এলাকায় ঘুরাঘু‌রি কর‌ছে।

অন্য‌দি‌কে ভুক্ত‌ভোগী মোঃ ইউসূফ মামলা ক‌রে নি‌জেই আছেন বিপ‌দে। মামলা‌টির বর্তমান অবস্থা জানা‌তে গি‌য়ে নাম প্রকাশ না করার শ‌র্তে বাদীর এক নিকটাত্মীয় প্র‌তি‌বেদ‌কে জানান, “মামলার কোন উল্লেখ‌যোগ্য অগ্রগ‌তি নেই। প্র‌তি‌নিয়ত আসামী প‌ক্ষের লোকজন বাদী‌কে ফো‌নে এমন‌কি স্বশরী‌রে হুম‌কি দি‌চ্ছে মামলা উঠি‌য়ে নি‌তে।”
‌তি‌নি আরও জানান, মামলা করার পর এক যুবলীগ নেতা, নি‌জে‌কে বেসরকারী থানা প‌রিদর্শক ব‌লে প‌রিচয় দেয়া আরিফ না‌মে একজন ব্যক্তি, মামলার দুই নম্বর আসামী মিল্ট‌নের বাবা সরাস‌রি আমা‌দের বাদী‌কে মামলা ত‌ু‌লে নেবার জন্য স্বশরী‌রে হুম‌কি দি‌য়ে গে‌ছে। মিল্ট‌নের বাবা আমা‌দের বাদী‌কে এ ব‌লে শা‌সি‌য়ে গে‌ছে যে, মামলায় তার ছে‌লে আটক হ‌লেও তিনমাস পর জা‌মি‌নে বের হ‌য়ে এসে সবাই‌কে মে‌রে ফেলবে। এঅবস্থায় বাদী তার প‌রিবার প‌রিজন নি‌য়ে মারাত্মক আতং‌কে দিন অ‌তিবা‌হিত কর‌ছেন।”

এ‌দি‌কে এ মামলা নি‌য়ে পু‌লি‌শের ভূ‌মিকায় এলাকায় চাপা অস‌ন্তোষ বিরাজ কর‌ছে। এলাকাবাসীদের ম‌তে মামলার আসামী‌দের কেউ কেউ পু‌লি‌শের সোর্স হি‌সে‌বে কাজ করার কার‌নে থানার সা‌থে র‌য়ে‌ছে তা‌দের আন্ত‌রিক সম্পর্ক। যার কার‌নে নিরপরাধ ব্য‌ক্তি‌দের ধ‌রে নি‌য়ে গি‌য়ে আসল আসামীদের আড়াল করার চেষ্টা করা হ‌চ্ছে। তার প্রমানস্বরুপ এ মামলায় অজ্ঞাত আসামী ব‌লে যা‌দের গ্রেফতার করা করা হ‌চ্ছে দেখা গে‌ছে তা‌দের এ ঘটনার সা‌থে কোন সং‌শ্লিষ্টতাই নাই। তেম‌নি একজন‌কে পু‌লিশ বাসা থে‌কে ধ‌রে নি‌য়ে গে‌লে এর পর‌দিন ঐ ব্য‌ক্তি জা‌মি‌নে বের হ‌য়ে আসে। এখন মূল আসামী‌দের সা‌থে এলাকায় যা‌দের বি‌রোধীতা আছে তারা নিরপরাধী হ‌য়ে‌ও আতং‌কে আছেন, কেননা তার কে কখন আটক হন।

এ‌দি‌কে আজ‌কের এ ঘটনায় সংঘর্ষ সংগ‌ঠিত হওয়া দুই কি‌শোর গ্যাং‌য়ের দুই নিয়ন্ত্রক জিতু ও মাহবুব প্রকাশ কালা মাহবুবকে নিয়ন্ত্রন কর‌ছে এলাকার সেই ক‌থিত যুবলীগ নেতা। এলাকাবাসীরা ক্ষো‌ভের সা‌থে ব‌লেন, এলাকায় এসব বখা‌টে কি‌শোর গ্যাং‌য়ের সদস্য‌দের কার‌নে সাধারন এলাবাসী‌রা অ‌তিষ্ট। এলাকার ভেতর আবা‌সিক লেইন গু‌লি‌তে এরা ২০~২৫ জন একসা‌থে জ‌ড়ো হ‌য়ে সারা দিন রাত হৈ হু‌ল্লোর ক‌রে আস‌ছে, এদের কার‌নে ক্রমান্ব‌য়ে পু‌রো এলাকা‌টি সন্ত্রাসী‌দের আড্ডা খানায় প‌রিনত হচ্ছে।
এলাকাবাসী দাবী প্রশাসন অ‌তিস্বত্বর এসব অপরাধী‌দের আটক ক‌রে আইনের আওতায় আন‌তে।

আপনার মতামত লিখুন :