হালিশহরে চাঁদার দাবিতে মিল্টন বাহিনীর সন্ত্রাসী তান্ডব, দোকান ভাঙচুর, আহত ৪।

জয়‌বি‌ডিজয়‌বি‌ডি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  03:28 AM, 25 February 2021

নগরীর হালিশহর থানাধীন বিডিয়ার মাঠ এলাকায় ভ্রাম্যমান দোকান থেকে চাঁদার তোলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় বেশ কয়েকটি দোকান ভাঙচুর করা হয়েছে।

২৪ ফেব্রুয়ারি রাত ১০ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, রাত দশটার দিকে একাধিক মামলার আসামি নুরু উদ্দিন মিল্টনের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ হালিশহর বিডিয়ার মাঠ এলাকার দোকান গুলো থেকে চাঁদা সংগ্রহ করতে আসে এবং চাঁদা না দেওয়ায় দোকানদারদের মারধর করে। এসময় মিল্টন ও সন্ত্রাসী র‌বি‌নের নেতৃ‌ত্বে বেশ কয়েকটি দোকানে ভাঙচুর চালায়। এ সময় সেখানে উপস্থিত হালিশহর থানা ছাত্রলীগ নেতারা বাধা দিলে তাদের সাথেও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে মিল্টন ও তার অনুসারীরা। ছাত্রলীগ নেতা সাব্বির আহমেদ শামীম, ইসমাইল হোসেন সম্রাটকে কুপিয়ে জখম করা হয়।

আহত ছাত্রলীগ নেতারা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে সাংবাদিকদের জানায়, হঠাৎ করেই অতর্কিত ভাবে রামদা হকিস্টিক ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আমাদের উপর হামলা করে মিল্টন ও তার অনুসারীরা। তাদের হামলায় দোকানদার এবং পথচারীসহ আরো বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। এ সময় কয়েকটি ফাঁকা গুলিও ছোঁড়া হয়েছে বলে অভিযোগ করে আহত ছাত্রলীগ নেতারা।
প্রত্যক্ষদর্শীদের বিবরণে জানা যায়, নুর উদ্দিন মিল্টন প্রকাশ পিস্তল মিল্টনের নেতৃত্বে চাঁদাবাজি ও হামলার ঘটনায় অংশগ্রহণ করে ইকবাল হোসেন মামুন প্রকাশ সোর্স মামুন, ডাইল পারভেজ, মাইকেল সুমন, সাইফুল ইসলাম রবিন প্রকাশ সোর্স রবিন, কিশোর গ্যাং লীডার তুষার, মিশু, রুবেল (ইয়াবা ব্যবসায়ী) রাকিব প্রকাশ পিচ্চি রাকিব।

অভিযোগ রয়েছে এই চাঁদাবাজ গ্রুপ বিভিন্ন সময় হালিশহর এলাকার বিভিন্ন কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ে অনুষ্টানে গিয়ে মহিলাদের উক্তত করতো, মোবাইল টাকা ছিনিয়ে নি‌তো। গতকাল হালিশহর ফইল্ল্যাতলী বাজারস্থ কুটুম্ববাড়ী কমিউনিটি সেন্টারে গিয়ে এক নারীকে উক্তত করে মোবাইল ছিনিয়ে নেয়ার সময় মিল্টন গ্রু‌পের এক সদস্য বখা‌টে রু‌বেল‌কে জনগন হাতেনাতে ধরে গনধোলাই দেন।

অন্যদিকে হালিশহর এ ব্লক এলাকার দোকানদারেরা এদের কাছে একপ্রকার জিম্মি হয়ে পড়েছেন,এরা প্রতিনিয়ত অস্ত্র নিয়ে দোকানদারদের ভয়ভী‌তি দেখিয়ে চাঁদা আদায় করার অভিযোগ রয়েছে।

অভিযুক্ত মিল্টনের বিরুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ, একাধিক কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ, দখলবাজি চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অভিযোগে হালিশহর থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

‌মিল্টন, সোর্স র‌বিন সহ এ সন্ত্রাসী‌ গ্রুপের একা‌ধিক সদস্য‌দের না‌মে একা‌ধিক মামলা থাক‌লেও কোন এক রহস্যজনক কার‌নে স্থানীয় প্রশাস‌নের কর্মকর্তারা নিরব। হা‌লিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার মিল্টন এবং তার গ্রু‌পের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ ও মামলার বিষয়‌গু‌লো জানা থাক‌লেও অদ্যব‌ধি তি‌নি কোন প্রশাস‌নিক ব্যবস্থা গ্রহন ক‌রেন নি বা কর‌ছেন না। গত রা‌তের ঘটনার সার্বিক ভি‌ডিও চিত্র জয়‌বি‌ডি ২৪.কমের কা‌ছে এসে পৌঁছে‌ছে।

এছাড়া বি‌ডিআর মাঠ সংলগ্ন ঢাকা ব্যাং‌ক ও আর.এফ.এল এর প্র‌তিষ্ঠা‌নের সি‌সি‌টি‌ভি ফু‌টেজ চেক কর‌লে প্রশাসন পু‌রো ঘটনার সা‌র্বিক চিত্র প্রমান সহ পা‌বেন ব‌লে স্থানীয় জনগন জয়‌বি‌ডি২৪.কম‌কে জানান। তারা ব‌লেন প্রশাসন‌কে অ‌তি দ্রুত এসব সিসি‌টি‌ভি ফু‌টেজ সংগ্রহ ক‌রে দায়ী ব্যা‌ক্তি‌দের আইনের আওতায় আনা উচিৎ। এখন পর্যন্ত স্থানীয় থানা প্রশাসন এসব সন্ত্রাসী‌দের কেন গ্রেফতার কর‌ছেন না তার জন্য বিষ্ময় প্রকাশ ক‌রেন।

আপনার মতামত লিখুন :