হারটা এখন বাংলা‌দে‌শের জন্য সম‌য়ের ব্যাপার মাত্র!

জয়‌বি‌ডিজয়‌বি‌ডি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  11:36 AM, 03 May 2021

দুইশোর বেশি রান তাড়া করে মাত্র একটি ম্যাচে জয় আছে বাংলাদেশের। সেখানে শ্রীলঙ্কার ছুড়ে দেয়া ৪৩৭ রানের লক্ষ্যটা তো ধরাছোঁয়ারই বাইরে। ছয় সেশন বা ১৫০ ওভার ব্যাট করে ম্যাচ ড্র করাটাও চ্যালেঞ্জিং বটে। তাই বাংলাদেশের লক্ষ্য ছিল ম্যাচটা পঞ্চম দিনে নিয়ে গিয়ে অন্তত লড়াইটা করা এবং ব্যবধান কমানো।

আলোর স্বল্পতায় চতুর্থ দিনের খেলা ১২ ওভার বাকি থাকতেই বন্ধ হয়ে যাওয়াতে ম্যাচের ভাগ্য পঞ্চম দিনে পৌঁছালেও পরাজয় চোখ রাঙাচ্ছে বাংলাদেশকে। আজ পঞ্চম দিনে জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ২৬০ রান এবং শ্রীলঙ্কার প্রয়োজন ছিল পাঁচ উইকেট। বড়সড় কোনও জুটি না গড়লে বাংলাদেশের পরজায় এখন কেবলই সময়ের ব্যাপার।

কেননা, সকালে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৩ রান যোগ করেই সাজঘরে ফিরেছেন লিটন দাস (১৭)। যাতে ১৮৩ রানেই ষষ্ঠ উইকেট খুইয়েছে বাংলাদেশ। পরে মিরাজকে সঙ্গ দিয়ে দলের স্কোরে ২৩ রান যোগ করে ফিরেছেন ৩০ বল খেলে ২ রান করা তাইজুল। মিরাজ ২৬ রান নিয়ে অপরাজিত থাকলেও ২০৬ রানেই সপ্তম উইকেট হারিয়ে পরাজয়ের প্রহর গুণছে বাংলাদেশ।

এর আগে ৪৩৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশ চতুর্থ দিন শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করেছে ১৭৭ রান। লিটন দাস ১৪ রান করে ও মেহেদি হাসান মিরাজ ৪ রান করে অপরাজিত ছিলেন।

তবে বাংলাদেশের ইনিংসের শুরুটা ভালোই হয়েছিল। আগের তিন ইনিংসের মত আজও শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন তামিম ইকবাল। তবে আজ আর ইনিংস বড় করতে পারেননি এই ওপেনার। রমেশ মেন্ডিসের বলে ২৬ বলে ২৪ রান করে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান তামিম। এরপর ভালো শুরু করেও সেটা ধরে রাখতে পারেননি আরেক ওপেনার সাইফ হাসান।

তামিমের মতই আক্রমণাত্মক খেলতে গিয়ে ৪৬ বলে ৩৪ রান করে জয়াবিক্রমার প্রথম শিকারে পরিণত হন সাইফ হাসান। দুই ওপেনার ফিরে যাওয়ার পর নাজমুল হোসেন শান্ত ও মুমিনুল হকও হাটেন একই পথে। ভালো শুরু পেয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি কেউই। নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাট থেকে আসে ২৬ রান এবং মুমিনুল হক ফিরে যান ৩২ রান করে।

১৩৪ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস পঞ্চম উইকেটে ৩৭ রান যোগ করার পর আগের ব্যাটসম্যানদের মতই উইকেটে থিতু হয়েও ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান মুশফিকুর রহিম। ৪০ রান আসে মুশফিকের ব্যাট থেকে।

আপনার মতামত লিখুন :