সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে ভ্যাকসিন নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

জয়‌বি‌ডিজয়‌বি‌ডি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:29 PM, 15 February 2021

সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে ভ্যাকসিন নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, ‘ভ্যাকসিন নিয়ে শারীরিক কোন সমস্যা অনুভব করছি না। আমি ভ্যাকসিন নিয়েছি, আপনারাও নিন।’

আজ সোমবার রাজধানীর রাজারবাগে কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন গ্রহণ করে একথা জানান তিনি ।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন ও পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদও সোমবার একই হাসপাতালে ভ্যাকসিন নেন। এছাড়াও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ভ্যাকসিন গ্রহণ করেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভ্যাকসিন নিতে জনগণের মধ্যে আগ্রহ বেড়েছে। ভ্যাকসিন নেয়ার জন্য দেশের বিভিন্ন বুথগুলোতে ক্রমশই ভিড় বাড়ছে।

তিনি বলেন, ভ্যাকসিন নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে কোনো কাজ হয়নি বরং সময়মতো ভ্যাকসিন বাংলাদেশে এসেছে এবং জনগণকে বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে। গুজব উপেক্ষা করে মানুষ করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন নিচ্ছে।

আসাদুজ্জমান খান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শিতায় এবং তার সময়োপযোগী সিদ্ধান্তে আমরা সফলভাবে করোনা মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি।

তিনি বলেন, করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা কমে এসেছে। অনেক দেশ এখন পর্যন্ত করোনা ভ্যাকসিন পায়নি। করোনা মোকাবেলায় সারাবিশ্বে বাংলাদেশকে নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। পুলিশের ভূমিকার প্রশংসা করে মন্ত্রী বলেন, করোনা নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল এক অনবদ্য ও উজ্জল ভূমিকা রেখেছে। বিশেষ করে করোনা মোকাবেলায় পুলিশ হাসপাতালের ভূমিকা অত্যন্ত প্রশংসার দাবিদার।

তিনি বলেন, আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদের সুযোগ্য নেতৃত্বে করোনা নিয়ন্ত্রণে পুলিশ হাসপাতালের সেবার মান এমন এক পর্যায়ে পৌঁছেছে যা অবিশ্বাস্য। যার ফলশ্রুতিতে কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল এক অত্যাধুনিক হাসপাতাল হিসেবে পরিণত হয়েছে।

রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে প্রতিদিন ১৮টি বুথে পুলিশ সদস্য ছাড়াও সাধারণ মানুষ নিবন্ধনের মাধ্যমে টিকা নিতে পারছেন। করোনাভাইরাস মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে গত ৭ ফেব্রুয়ারি গণটিকাদান শুরু করেছে সরকার।

আপনার মতামত লিখুন :