সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনের তিনটি বগি আগুনে ভস্মিভূত হয়েছে।

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:17 PM, 11 June 2022
সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনের তিনটি বগি আগুনে ভস্মিভূত হয়েছে।

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের শমশেরনগর ও মনু রেল স্টেশনের মধ্যবর্তী চককবিরাজ পাহাড়ি এলাকায় সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনের তিনটি বগি আগুনে ভস্মিভূত হয়েছে। এ ঘটনার চার ঘণ্টা পর সিলেটের সঙ্গে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে। তবে, কেউ হতাহত হয়নি, জানা যায়নি আগুন লাগার কারণ।ঢাকা থেকে সিলেটগামী আন্তঃনগর পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনের তিনটি বগিতে আগুন লাগার ঘটনায় ঢাকা-সিলেট রুটে বন্ধ রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে। ঘটনার চার ঘণ্টা পর রেল চলাচল শুরু হয়। এর আগে আজ বেলা ২টার পর ফায়ার সার্ভিসের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এ ঘটনায় মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসন সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

জানা গেছে, আজ বেলা পৌনে ১টার দিকে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের শমসেরনগরের বিমানঘাঁটির পাশে পৌঁছালে পারাবত এক্সপ্রেসের এসি বগিতে আগুন লেগে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সাতটি ইউনিট সেখানে কাজ শুরু করে। প্রায় ২ ঘণ্টার চেষ্টায় পৌনে ৩টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

স্থানীয় ও যাত্রীসূত্রে জানা যায়, সিলেটের উদ্দেশে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেন দুপুর পৌনে ১টায় শমশেরনগর রেল স্টেশন অতিক্রম করে। কিছুক্ষণ পর থেকেই ট্রেনের পাওয়ার কার বগিতে আগুন জ্বলতে দেখা যায়। পরে তেলের ট্যাংকি থেকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এরপর প্রায় চার কিলোমিটার অতিক্রমের পর চককবিরাজ এলাকায় ট্রেনটি থামানো হয়। তখন যাত্রীরা দ্রুত ট্রেন থেকে নেমে নিরাপদে আশ্রয় গ্রহণ করেন।

স্থানীয় লোকজন ও যাত্রীদের সহযোগিতায় ট্রেনের কর্তৃপক্ষ আগুন লাগা তিনটি বগি বিচ্ছিন্ন করে দেয়। পরে ট্রেনের জেনারেটর বগি ও পাশের যাত্রীবাহী দুটি বগিতে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখা যায়।

কমলগঞ্জের ফায়ার সার্ভিস স্টেশন ও পরে মৌলভীবাজার, শ্রীমঙ্গল থেকে ফায়ার সার্ভিস স্টেশন থেকে মোট সাতটি ইউনিট দুই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। পাশাপাশি বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ফায়ার ফাইটার ইউনিট আগুন নেভাতে কাজ করে।

মৌলভীবাজার ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ হারুন পাশা বলেন, ‘ফায়ার সার্ভিসের সাতটি ইউনিট কাজ করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে, কী কারণে আগুন লেগেছে, তা এখনো জানা যায়নি।’

খবর পেয়ে মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। জেলা প্রশাসক স্থানীয় লোকদের সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘এ ঘটনায় মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল হককে আহ্বায়ক করে সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়।’

আন্তঃনগর পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনের পরিচালক মো. ইসমাইল বলেন, ‘ট্রেনের পাওয়ার কার থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। ট্রেন থামানোর পর দেখা যায়—চাকার মধ্যে আগুন ও পরে পাওয়ার কারের ভেতর তেলের ট্যাংকিতে আগুন ছড়িয়ে পড়ছে। তবে, কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।’