০২:০২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সাধারণ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তনে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৮:৪০:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুন ২০২২
  • 16

গণভবনে কারামুক্তি দিবসে ফুলেল শুভেচ্ছা

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগকে সবসময় উজানে নাও ঠেলেই চলতে হয়েছে। কিছু মানুষ দেশের অর্জনকে কেন অর্জন হিসেবে মেনে নিতে পারছে না? শনিবার গণভবনে কারামুক্তি দিবসে ফুলেল শুভেচ্ছা গ্রহণ করে এই দৈন্যতার কারণ জিজ্ঞাসা করেন প্রধানমন্ত্রী।

ওয়ান-ইলেভেনের সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৭ সালের ১৬ জুলাই গ্রেপ্তার করা হয় শেখ হাসিনাকে। ১১ মাস কারাভোগের পর এক এগারো’র শৃঙ্খলমুক্ত হয়ে ২০০৮ সালের ১১ জুন জেল থেকে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে ফেরেন তিনি। এ উপলক্ষে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা।
এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধুসহ পরিবারের সবার কাছ থেকেই অন্যায়ের কাছে মাথা নত না করার শিক্ষা পেয়েছেন তিনি। আন্তর্জাতিক নানা বাধার পরও তাই নিজস্ব অর্থায়নে আজ নির্মাণ হয়েছে পদ্মা সেতু।দেশে ফেরার পর ১৯৮৩ সালেও তাকে গ্রেপ্তার করা হয় উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেই সময় তাকে ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ফোর্সেস ইন্টেলিজেন্স (ডিজিএফআই) অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। তখন জেলে থেকেই নেতাকর্মীদের উদ্দেশে শেখ হাসিনা চিঠি দিয়ে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন বলেও উল্লেখ করেন।

সেসব দিনের স্মৃতিচারণ করে প্রধানমন্ত্রী তুলে ধরেন, অগণতান্ত্রিক সেই দুঃসহ সময় আর গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে আওয়ামী লীগের ভূমিকার কথা।মানুষ উন্নয়নের অগ্রযাত্রার সুফল পেতে শুরু করেছে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, এ অর্জন মেনে নিতে বাধা কোথায়।কণ্ঠে দৃঢ়তা নিয়ে তিনি বলেন, যে যাই বলুক, বাংলাদেশ এগিয়ে চলবে। জনগণই আওয়ামী লীগের শক্তি, তাই জনগণের স্বার্থেই আওয়ামী লীগ সরকার কাজ করছে বলেও জানান সরকার প্রধান। এ সময় সাধারণ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তনে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

সাধারণ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তনে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Update Time : ০৮:৪০:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুন ২০২২

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগকে সবসময় উজানে নাও ঠেলেই চলতে হয়েছে। কিছু মানুষ দেশের অর্জনকে কেন অর্জন হিসেবে মেনে নিতে পারছে না? শনিবার গণভবনে কারামুক্তি দিবসে ফুলেল শুভেচ্ছা গ্রহণ করে এই দৈন্যতার কারণ জিজ্ঞাসা করেন প্রধানমন্ত্রী।

ওয়ান-ইলেভেনের সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৭ সালের ১৬ জুলাই গ্রেপ্তার করা হয় শেখ হাসিনাকে। ১১ মাস কারাভোগের পর এক এগারো’র শৃঙ্খলমুক্ত হয়ে ২০০৮ সালের ১১ জুন জেল থেকে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে ফেরেন তিনি। এ উপলক্ষে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা।
এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধুসহ পরিবারের সবার কাছ থেকেই অন্যায়ের কাছে মাথা নত না করার শিক্ষা পেয়েছেন তিনি। আন্তর্জাতিক নানা বাধার পরও তাই নিজস্ব অর্থায়নে আজ নির্মাণ হয়েছে পদ্মা সেতু।দেশে ফেরার পর ১৯৮৩ সালেও তাকে গ্রেপ্তার করা হয় উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেই সময় তাকে ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ফোর্সেস ইন্টেলিজেন্স (ডিজিএফআই) অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। তখন জেলে থেকেই নেতাকর্মীদের উদ্দেশে শেখ হাসিনা চিঠি দিয়ে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন বলেও উল্লেখ করেন।

সেসব দিনের স্মৃতিচারণ করে প্রধানমন্ত্রী তুলে ধরেন, অগণতান্ত্রিক সেই দুঃসহ সময় আর গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে আওয়ামী লীগের ভূমিকার কথা।মানুষ উন্নয়নের অগ্রযাত্রার সুফল পেতে শুরু করেছে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, এ অর্জন মেনে নিতে বাধা কোথায়।কণ্ঠে দৃঢ়তা নিয়ে তিনি বলেন, যে যাই বলুক, বাংলাদেশ এগিয়ে চলবে। জনগণই আওয়ামী লীগের শক্তি, তাই জনগণের স্বার্থেই আওয়ামী লীগ সরকার কাজ করছে বলেও জানান সরকার প্রধান। এ সময় সাধারণ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তনে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।