০৯:৩৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্রীলঙ্কার সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের হুমকি দেশটির প্রধান বিরোধীদলের।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৩:৪৬:০৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ৯ এপ্রিল ২০২২
  • 32

শ্রীলঙ্কার সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের হুমকি দিয়েছে দেশটির প্রধান বিরোধীদল। চলমান অর্থনৈতিক সংকট মোকাবেলায় যথাযথ পদক্ষেপ না নিলে এ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির বিরোধী দলীয় নেতা সাজিথ প্রেমাদাসা।

প্রেসিডেন্ট গোটাবেয়া রাজাপাকসে হাতে গোণা কয়েকজন মন্ত্রী নিয়ে বর্তমান সরকার চালাচ্ছেন। কারণ এর আগে মন্ত্রিসভার সব সদস্য একযোগে পদত্যাগ করেন। সংকট মোকাবিলায় জাতীয় ঐক্যের সরকারে যোগ দিতেও অস্বীকার করেছে বিরোধীরা।

শ্রীলঙ্কার জোট সরকার থেকে ৪১ জন আইনপ্রণেতা বেরিয়ে গেছেন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করছেন। তবে, সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে সংসদে এখনো তাদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। ঋণে জর্জরিত দ্বীপ রাষ্ট্রটি বৈদেশিক মুদ্রার সংকটে ভুগছে।

শ্রীলঙ্কার ডেইলি মিরর জানিয়েছে, রাজাপাকসা সরকারের বিরুদ্ধে পার্লামেন্টে অনাস্থা প্রস্তাব আনতে সংসদ সদস্যকের কাছ থেকে সই সংগ্রহ শুরু করেছে বিরোধী দল- এসজেবি। দলের একাধিক সদস্যের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

এসজেবি নেতা সাজিথ শুক্রবার পার্লামেন্টে বলেছেন, নির্বাহী প্রেসিডেন্ট ব্যবস্থা রদ করতে হবে। নির্বাহী, আইন ও বিচার বিভাগের মধ্যে ক্ষমতা ভাগ করতে হবে। রাজাপাকসাদের ক্ষমতা ছাড়ার যে দাবি তুলেছে জনগণ, সরকারকে তা মানতে হবে। না হলে অনাস্থা প্রস্তাব আনবো।

প্রেসিডেন্ট গোটাবায়ে সব দলকে নিয়ে সরকার গঠনের যে প্রস্তাব দিয়েছেন তা নাকচ করে তিনি আরও বলেন, গোটাবায়েকে প্রেসিডেন্ট পদে রেখে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠনের প্রস্তাবে রাজি হওয়া সম্ভব নয়। প্রয়োজনে অভিসংশনের মাধ্যমে তাকে ক্ষমতা থেকে হটাতে হবে।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

শ্রীলঙ্কার সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের হুমকি দেশটির প্রধান বিরোধীদলের।

Update Time : ০৩:৪৬:০৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ৯ এপ্রিল ২০২২

শ্রীলঙ্কার সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের হুমকি দিয়েছে দেশটির প্রধান বিরোধীদল। চলমান অর্থনৈতিক সংকট মোকাবেলায় যথাযথ পদক্ষেপ না নিলে এ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির বিরোধী দলীয় নেতা সাজিথ প্রেমাদাসা।

প্রেসিডেন্ট গোটাবেয়া রাজাপাকসে হাতে গোণা কয়েকজন মন্ত্রী নিয়ে বর্তমান সরকার চালাচ্ছেন। কারণ এর আগে মন্ত্রিসভার সব সদস্য একযোগে পদত্যাগ করেন। সংকট মোকাবিলায় জাতীয় ঐক্যের সরকারে যোগ দিতেও অস্বীকার করেছে বিরোধীরা।

শ্রীলঙ্কার জোট সরকার থেকে ৪১ জন আইনপ্রণেতা বেরিয়ে গেছেন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করছেন। তবে, সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে সংসদে এখনো তাদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। ঋণে জর্জরিত দ্বীপ রাষ্ট্রটি বৈদেশিক মুদ্রার সংকটে ভুগছে।

শ্রীলঙ্কার ডেইলি মিরর জানিয়েছে, রাজাপাকসা সরকারের বিরুদ্ধে পার্লামেন্টে অনাস্থা প্রস্তাব আনতে সংসদ সদস্যকের কাছ থেকে সই সংগ্রহ শুরু করেছে বিরোধী দল- এসজেবি। দলের একাধিক সদস্যের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

এসজেবি নেতা সাজিথ শুক্রবার পার্লামেন্টে বলেছেন, নির্বাহী প্রেসিডেন্ট ব্যবস্থা রদ করতে হবে। নির্বাহী, আইন ও বিচার বিভাগের মধ্যে ক্ষমতা ভাগ করতে হবে। রাজাপাকসাদের ক্ষমতা ছাড়ার যে দাবি তুলেছে জনগণ, সরকারকে তা মানতে হবে। না হলে অনাস্থা প্রস্তাব আনবো।

প্রেসিডেন্ট গোটাবায়ে সব দলকে নিয়ে সরকার গঠনের যে প্রস্তাব দিয়েছেন তা নাকচ করে তিনি আরও বলেন, গোটাবায়েকে প্রেসিডেন্ট পদে রেখে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠনের প্রস্তাবে রাজি হওয়া সম্ভব নয়। প্রয়োজনে অভিসংশনের মাধ্যমে তাকে ক্ষমতা থেকে হটাতে হবে।