০৯:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখতে ভারতকে অনুরাধ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:৫৭:৪৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২
  • 13

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, শেখ হাসিনার সরকারকে টিকিয়ে রাখতে যা যা করা দরকার, তা করতে ভারত সরকারকে অনুরোধ করেছি।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরের জেএম সেন হলে জন্মাষ্টমী উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আমি ভারতে গিয়ে বলেছি, শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখতে হবে। শেখ হাসিনা আমাদের আদর্শ। তাকে টিকিয়ে রাখতে পারলে আমাদের দেশ উন্নয়নের দিকে যাবে এবং সত্যিকারের সাম্প্রদায়িকতামুক্ত, অসাম্প্রদায়িক একটা দেশ হবে।

ভারত সফরের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘আমি বলেছি, আমার দেশে কিছু দুষ্ট লোক আছে, কিছু উগ্রবাদী আছে। আমার দেশ সারা পৃথিবী থেকে বিচ্ছিন্ন না, আপনার দেশেও যেমন দুষ্ট লোক আছে, আমাদের দেশেও আছে। কিছুদিন আগে আপনাদের দেশেও এক ভদ্রমহিলা কিছু কথা বলেছিলেন, আমরা সরকারের পক্ষ থেকে একটি কথাও বলিনি। বিভিন্ন দেশ কথা বলেছে, আমরা বলিনি। এ ধরনের প্রটেকশন আমরা আপনাদের দিয়ে যাচ্ছি। সেটা আপনাদের মঙ্গলের জন্য, আমাদের মঙ্গলের জন্য। আমরা যদি একটু বলি, তখন উগ্রবাদীরা আরও সোচ্চার হয়ে আরও বেশি বেশি কথা বলবে। তাতে আমাদের দেশের আইনশৃঙ্খলা বিঘ্ন হবে। আমাদের স্থিতিশীলতা বিঘ্ন হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘অনেকে আমাকে ভারতের দালাল বলে। কারণ অনেক কিছু হয়, আমি স্ট্রং স্টেটমেন্ট দিই না। কিন্তু আমারও একটা সাংবিধানিক এলাকা আছে। আমি তো সেটি অস্বীকার করতে পারি না। কেউ যখন আমার এলাকার লোককে বলে কীটপতঙ্গ, তখন আমি সহ্য করতে পারি না। এটাতো সত্যি কথা না, মিথ্যে কথা। সে জন্য আমি বলেছি, উনাদের জ্ঞানের পরিধি বাড়ানো দরকার। আমি কি কোনো ভুল করেছি? কিন্তু এটা ফুলায়ে ফালায়ে বিভিন্নভাবে বিকৃত করে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করা হয়েছে।’

Tag :
About Author Information

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখতে ভারতকে অনুরাধ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

Update Time : ১২:৫৭:৪৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, শেখ হাসিনার সরকারকে টিকিয়ে রাখতে যা যা করা দরকার, তা করতে ভারত সরকারকে অনুরোধ করেছি।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরের জেএম সেন হলে জন্মাষ্টমী উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আমি ভারতে গিয়ে বলেছি, শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখতে হবে। শেখ হাসিনা আমাদের আদর্শ। তাকে টিকিয়ে রাখতে পারলে আমাদের দেশ উন্নয়নের দিকে যাবে এবং সত্যিকারের সাম্প্রদায়িকতামুক্ত, অসাম্প্রদায়িক একটা দেশ হবে।

ভারত সফরের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘আমি বলেছি, আমার দেশে কিছু দুষ্ট লোক আছে, কিছু উগ্রবাদী আছে। আমার দেশ সারা পৃথিবী থেকে বিচ্ছিন্ন না, আপনার দেশেও যেমন দুষ্ট লোক আছে, আমাদের দেশেও আছে। কিছুদিন আগে আপনাদের দেশেও এক ভদ্রমহিলা কিছু কথা বলেছিলেন, আমরা সরকারের পক্ষ থেকে একটি কথাও বলিনি। বিভিন্ন দেশ কথা বলেছে, আমরা বলিনি। এ ধরনের প্রটেকশন আমরা আপনাদের দিয়ে যাচ্ছি। সেটা আপনাদের মঙ্গলের জন্য, আমাদের মঙ্গলের জন্য। আমরা যদি একটু বলি, তখন উগ্রবাদীরা আরও সোচ্চার হয়ে আরও বেশি বেশি কথা বলবে। তাতে আমাদের দেশের আইনশৃঙ্খলা বিঘ্ন হবে। আমাদের স্থিতিশীলতা বিঘ্ন হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘অনেকে আমাকে ভারতের দালাল বলে। কারণ অনেক কিছু হয়, আমি স্ট্রং স্টেটমেন্ট দিই না। কিন্তু আমারও একটা সাংবিধানিক এলাকা আছে। আমি তো সেটি অস্বীকার করতে পারি না। কেউ যখন আমার এলাকার লোককে বলে কীটপতঙ্গ, তখন আমি সহ্য করতে পারি না। এটাতো সত্যি কথা না, মিথ্যে কথা। সে জন্য আমি বলেছি, উনাদের জ্ঞানের পরিধি বাড়ানো দরকার। আমি কি কোনো ভুল করেছি? কিন্তু এটা ফুলায়ে ফালায়ে বিভিন্নভাবে বিকৃত করে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করা হয়েছে।’