রা‌শিয়ান হ্যাকাররা যুক্তরাষ্ট্রে চালা‌লো ইতিহা‌সের সব‌চে‌য়ে বড় সাইবার হামলা।

জয়‌বি‌ডিজয়‌বি‌ডি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  11:44 PM, 19 December 2020

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সরকারি ও গুরুত্বপূর্ণ বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সাইবার হামলা চালানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার মার্কিন জ্বালানি দফতরও হামলার কথা নিশ্চিত করেছে।

এই হামলাকে ‘যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় হামলা’ বলেও উল্লেখ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এই হামলার জন্য রাশিয়াকে দায়ী করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।

তিনি বলেন, আমরা এটা পরিষ্কারভাবে বলতে পারি, এ ঘটনায় রাশিয়ার হাত রয়েছে। তবে মস্কো কিভাবে এ হামলা চালিয়েছে বা কেন তাদের বিরুদ্ধেই অভিযোগ তোলা হল এ বিষয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানাননি তিনি। খবর বিবিসির।

যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানি দফতর দেশটির পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে। ফলে এ রকম সাইবার হামলা পরমাণু অস্ত্রের নিরাপত্তার জন্য চরম হুমকির।

অবশ্য দেশটির জ্বালানি দফতর বলেছে, পারমাণবিক অস্ত্রের নিরাপত্তার বিষয়ে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। সাইবার হামলায় পরমাণু অস্ত্র নিরাপদ থাকলেও হ্যাকের শিকারের তালিকা বড় হচ্ছে।

এ বছরের মার্চ মাস থেকে লাগাতার সাইবার হামলা চলছে। হ্যাকের মাত্রা ব্যাপক। তবে এখনও সার্বিকভাবে কত ক্ষতি হয়েছে তা নির্ধারিত হয়নি।

মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, এখন পর্যন্ত তাদের ধারণা এটি আর দশটি গুপ্তচরবৃত্তিরই একটি অংশ।

সাইবার হামলায় মার্কিন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি দেশটির কিছু প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানও হামলার শিকার হয়েছে।
হামলার পেছনে রাশিয়ার সরকারের হাত রয়েছে বলে পম্পেও দাবি করলেও দেশটি তা অস্বীকার করেছে। এমন অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলেছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

হামলার পেছনে কে দায়ী, অনুসন্ধান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই।

আপনার মতামত লিখুন :