1. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক :
  2. [email protected] : rahad :
যৌন সম্পর্কে অতিষ্ঠ হয়ে ডায়নাকে খুন করেন লাদেন | JoyBD24
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ১২:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজবাড়ীতে গ্রেপ্তার স্মৃতিকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস বিএনপির আমরা ইভিএমে হলেও নির্বাচন করব : রওশন এরশাদ নারায়ণগঞ্জে মহানগর বিএনপির বিশাল শোক র‌্যালি সিদ্ধিরগঞ্জে কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনে দুই গ্রুপের কয়েক দফা সংঘর্ষ আহত-১৫ মানবাধিকার লঙ্ঘনকারীদের পুরস্কৃত করছে বাংলাদেশ সরকার : হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ‘জঙ্গি সম্পৃক্ততা’: বাড়িছাড়া চারজনসহ গ্রেপ্তার ৭ ছাত্রী‌ উ‌ত্য‌ক্তোকারী জা‌মি‌নে বের হ‌য়ে ঐ ছাত্রী‌কেই অপহরণ প্রেমিকের বাসা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনার সার্বিক ব্যর্থতা : বিএনপি মহাসচিব আগামীকাল সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী

যৌন সম্পর্কে অতিষ্ঠ হয়ে ডায়নাকে খুন করেন লাদেন

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত: বুধবার, ৩১ আগস্ট, ২০২২

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর গোলাপবাগ এলাকায় বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক তৃতীয় লিঙ্গের মাকসুদুর রহমান ডায়না (৪৮) হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ।

জবানবন্দির বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, শারীরিক সম্পর্কে অতিষ্ঠ হয়ে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন শোয়েব আক্তার লাদেন নামের এক যুবক। ডায়নার বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতে লাদেন।

বুধবার (৩১ আগস্ট) ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ওয়ারী বিভাগের উপকমিশনার জিয়াউল আহসান তালুকদার সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান।

জিয়াউল আহসান বলেন, “গত ১৬ আগস্ট মাকসুদুর রহমান খুন হন। হত্যাকাণ্ডের প্রায় ১০ দিন পর ২৭ আগস্ট যাত্রাবাড়ীর গোলাপবাগের একতলা বাড়ির ভেতরে কক্ষ থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।”

মাকসুদুর সমকামী ছিলেন জানিয়ে তিনি বলেন, “শোয়েব কয়েক বছর ধরে মাকসুদুরের বাসায় কাজ করত। যখনই প্রয়োজন হতো, তখনই শোয়েবকে ডাকতেন মাকসুদুর। এভাবেই তাদের মধ্যে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মাকসুদুর ওই বাসায় একাই বসবাস করতেন। তার পরিবারের অন্য সদস্যরা দেশের বাইরে থাকেন।”

জিয়াউল আহসান বলেন, “হত্যাকাণ্ডের কিছুদিন আগে শোয়েব বিয়ে করে। বিয়ের পরও শোয়েবকে বাসায় ডেকে সমকামিতায় বাধ্য করতেন মাকসুদুর। বিয়ের বিষয়েও আপত্তি জানিয়েছিলেন। টাকাপয়সা দিয়ে শোয়েবকে ম্যানেজ করতেন। ১৬ আগস্ট বাসার টেবিলে থাকা হাতুড়ি দিয়ে মাকসুদুরের মাথায় আঘাত করে পালিয়ে যায় শোয়েব। পরে সেখানেই মাকসুদুরের মৃত্যু হয়।

তিনি আরও বলেন, ‘ওই বাসায় প্রতিবেশী কারও যাতায়াত ছিল না। ফলে বিষয়টি কেউ টের পায়নি। ঘটনার ১০ দিন পর লাশ উদ্ধার করা হয়।’

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, মাকছুদুর রহমান ওরফে ডায়না আমেরিকা প্রবাসী। ২ বছর আগে তিনি দেশে এসেছেন। গোলাপবাগে তার নিজস্ব একতলা বাড়িতে একা থাকতেন। তাকে টাকার জন্য লাদেন নামের এক লোক প্রায় সময় ভয়ভীতি দেখাত। ১৬ আগস্ট লাদেনের বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরিও করা হয়।

মাকছুদুর রহমানের ফুপাত ভাই জামাল হোসেন জানান, শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় গোলাপবাগ এলাকার লোকজন ফোনে জানায় ৭/৮ দিন ধরে মাকছুদুর রহমানকে দেখা যায়নি। মাকছুদুর রহমানের বাসা থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। আমরা এ খবর পেয়ে তার বাসায় এসে দেখি ভেতর থেকে দরজা বন্ধ। পরে যাত্রাবাড়ি থানা পুলিশকে জানাই। পুলিশ এসে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

এর আগে, সোমবার (২৯ আগস্ট) শেরপুরের নালিতাবাড়ী থেকে শোয়েবকে গ্রেপ্তার করা হয়। মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) সে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়। জবানবন্দিতে সে হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2012 joybd24
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Joybd24