মুজিববর্ষের উপহার ঘর পাবে ঠাকুরগাঁওয়ে ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবার।

জয়‌বি‌ডিজয়‌বি‌ডি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  05:36 PM, 22 December 2020

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ কেউ থাকেন অন্যের জমিতে, কেউ সরকারি পতিত জমি দখল করে। খড় বা বেড়া দিয়ে যবুথবু করে জরাজীর্ণ অবস্থায় নিদারুন কষ্টে তাদের বসবাস। পরিবার পরিজন নিয়ে দুর্বীসহ জীবনযান তাদের। তার উপর সরকারী জমি উচ্ছেদ অভিযানে ঘরবাড়ি ভেঙ্গে দিলে নিদারুন কষ্টের যেন শেষ নেই ভুমিহীন বা গৃহহীন এসব পরিবারের মানুষগুলোর। আর তাদের কষ্ট লাঘবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষনা দেন-মুজিব বর্ষে কেউ গৃহহীন থাকবে না।

এ ঘোষনার পর সারাদেশেই শুরু হয় গৃহহীনদের ঘর নির্মান কার্যক্রম। তারই আওতায় ঠাকুরগাঁও জেলায় এবার তিন শ্রেণির ভুমিহীন ও গৃহহীনদের ৭ হাজার ৮শ ঘর জেলা প্রশাসনের তত্বাবধানে নির্মান করা হচ্ছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এসব ঘর দেওয়া হবে গৃহহীনদের।আগামী জানুয়ারী মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা দেশে একযোগে এসব ঘর হস্তান্তর কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। এজন্য কর্মযজ্ঞে মুখরিত গুচ্ছ গ্রাম গুলোতে। শেষ পর্যায়ে চলছে ঘর নির্মান কাজ। এসব গুচ্ছ গ্রামে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা পর্যাপ্ত না থাকায় কিছুটা দুর্ভোগের কথা বললেন বাসিন্দারা।
তবে এ সমস্যা পর্যায় ক্রমে সমাধানের আশ্বাস দেন জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম। একটি পরিবারের জন্য দুই রুম বিশিষ্ট ঘরে থাকবে রান্না ঘর, বাথরুম ও স্টোর রুম। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা। প্রথম দফায় দেওয়া হবে সাড়ে ৫শত টি ঘর।

সুবিধাভোগীরা জানান, প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া এই ঘর উপহার পেলে তাদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পুরণ হবে এবং স্থায়ী বন্দোবস্ত হওয়ায় নিজের ঠিকানা পেল তারা। পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করবে সুখ-শান্তিতে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা জানালেন গৃহহীন এসব পরিবার।

আপনার মতামত লিখুন :