০৯:৩৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মালয়েশিয়াকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিলো বাংলাদেশের নারীরা

  • Reporter Name
  • Update Time : ১০:২৮:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০২২
  • 27

ফিফা আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে মালয়েশিয়াকে বড় ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সফরকারীদের ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ শুরু করেছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। জোড়া গোল করেছেন আঁখি খাতুন।

ম্যাচে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিল বাংলাদেশ। ম্যাচের প্রথম মিনিটেই বাংলাদেশের দারুণ আক্রমণ করে টাইগ্রেসরা। তৃতীয় মিনিটে সাবিনা খাতুন জালে বল রাখতে না পারলেও ৯ মিনিটে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। মারিয়া মান্ডার কর্নার থেকে আলতো ছোঁয়ায় বাংলাদেশকে এগিয়ে নেন ডিফেন্ডার আঁখি খাতুন।

১৮ মিনিটে আবারও গোলের ভালো সুযোগ পায় বাংলাদেশ। স্বপ্নার ক্রস থেকে বার দুয়েক শট করেও মালয়েশিয়া গোলরক্ষককে পরাস্ত করতে পারেননি সানজিদা।

দারুণ বোঝাপোড়ায় ২৬ মিনিটে লিড দ্বিগুণ করে বাংলাদেশ। স্বপ্নার বাড়ানো বল নিয়ে উঠে গোলরক্ষককে কাটিয়ে জালে বল জড়ান সাবিনা। ৩০ মিনিটে সাবিনার ক্রস থেকে তৃতীয় গোল পায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় গোল করেন আঁখি খাতুন।

প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে আবারও দেখা যায় বাংলাদেশের ফুটবলশৈলী। আবারও মালয়েশিয়ার জালে বল। গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে সাবিনার বাড়ানো বল হালকা টোকায় জালে জড়ান সিরাত জাহান স্বপ্না। ৬৫ মিনিটে জটলার মধ্য থেকে পঞ্চম গোল করেন মনিকা চাকমা। ৭৪ মিনিটে ঋতুপর্নার ক্রস থেকে হেডে গোল করেন কৃষ্ণরাণী সরকার। শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হলে ৬-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

৬১ ধাপ এগিয়ে থাকা মালয়েশিয়ার বিপক্ষে দেখা গেলো ভিন্ন এক বাংলাদেশকেই। যেনো লাল-সবুজের মেয়েরাই যোজন যোজন এগিয়ে র্যাঙ্কিংয়ে। বাংলাদেশের কাছে পাত্তাই পায়নি মালয়েশিয়ার মেয়েরা। এ যেনো হেরে আসা ছেলেদের প্রতিশোধ নিয়ে নিলো মেয়েরা।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

মালয়েশিয়াকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিলো বাংলাদেশের নারীরা

Update Time : ১০:২৮:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০২২

ফিফা আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে মালয়েশিয়াকে বড় ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সফরকারীদের ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ শুরু করেছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। জোড়া গোল করেছেন আঁখি খাতুন।

ম্যাচে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিল বাংলাদেশ। ম্যাচের প্রথম মিনিটেই বাংলাদেশের দারুণ আক্রমণ করে টাইগ্রেসরা। তৃতীয় মিনিটে সাবিনা খাতুন জালে বল রাখতে না পারলেও ৯ মিনিটে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। মারিয়া মান্ডার কর্নার থেকে আলতো ছোঁয়ায় বাংলাদেশকে এগিয়ে নেন ডিফেন্ডার আঁখি খাতুন।

১৮ মিনিটে আবারও গোলের ভালো সুযোগ পায় বাংলাদেশ। স্বপ্নার ক্রস থেকে বার দুয়েক শট করেও মালয়েশিয়া গোলরক্ষককে পরাস্ত করতে পারেননি সানজিদা।

দারুণ বোঝাপোড়ায় ২৬ মিনিটে লিড দ্বিগুণ করে বাংলাদেশ। স্বপ্নার বাড়ানো বল নিয়ে উঠে গোলরক্ষককে কাটিয়ে জালে বল জড়ান সাবিনা। ৩০ মিনিটে সাবিনার ক্রস থেকে তৃতীয় গোল পায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় গোল করেন আঁখি খাতুন।

প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে আবারও দেখা যায় বাংলাদেশের ফুটবলশৈলী। আবারও মালয়েশিয়ার জালে বল। গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে সাবিনার বাড়ানো বল হালকা টোকায় জালে জড়ান সিরাত জাহান স্বপ্না। ৬৫ মিনিটে জটলার মধ্য থেকে পঞ্চম গোল করেন মনিকা চাকমা। ৭৪ মিনিটে ঋতুপর্নার ক্রস থেকে হেডে গোল করেন কৃষ্ণরাণী সরকার। শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হলে ৬-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

৬১ ধাপ এগিয়ে থাকা মালয়েশিয়ার বিপক্ষে দেখা গেলো ভিন্ন এক বাংলাদেশকেই। যেনো লাল-সবুজের মেয়েরাই যোজন যোজন এগিয়ে র্যাঙ্কিংয়ে। বাংলাদেশের কাছে পাত্তাই পায়নি মালয়েশিয়ার মেয়েরা। এ যেনো হেরে আসা ছেলেদের প্রতিশোধ নিয়ে নিলো মেয়েরা।