1. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক :
  2. [email protected] : rahad :
মক্কায় হজযাত্রীদের পরিবহন সক্রিয়ভাবে নারীরা অংশ নিচ্ছেন। | JoyBD24
মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:০৬ অপরাহ্ন

মক্কায় হজযাত্রীদের পরিবহন সক্রিয়ভাবে নারীরা অংশ নিচ্ছেন।

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত: সোমবার, ৪ জুলাই, ২০২২

মক্কায় প্রথমবারের মতো হজযাত্রীদের পরিবহন সেবা জেনারেল কার সিন্ডিকেটে যুক্ত হলেন নারীরা। সিন্ডিকেট হলো একটি নির্বাহী সংস্থা, যা অনুমোদিত কোম্পানির মাধ্যমে হজযাত্রীদের পরিবহনের ব্যবস্থা করে। নয় দশক আগে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

খাদিজা ফিদা একজন সাংবাদিক এবং সিন্ডিকেটের কন্টেন্ট ক্রিয়েটর। তিনি বলেন, ‘বছরের পর বছর অসংখ্য নারী এখানে হজ কার্যক্রমের সাথে যুক্ত আছেন। আমি বাবাকে এই সেক্টরে কাজ করতে দেখেছি। আমার ভাই এবং স্বামীও করছেন। এখন থেকে আমিও করব।’ তিনি বলেন, সৌদি ভিশন ২০৩০ এ সক্রিয়ভাবে নারীরা অংশ নিচ্ছেন। নারীরা এখন কাজ করছে, বিশেষ করে সরকারি সব সেক্টরে।

খাদিজা ফিদা বলেন, ‘আজ আমি মিডিয়াতে জেনারেল কারস সিন্ডিকেটের প্রতিনিধিত্ব করছি, জনসংযোগ করছি, মানসম্পন্ন জিনিস তৈরি করছি এবং হজের সময় পরিবহন তথ্য কেন্দ্রের সাফল্য পর্যবেক্ষণ করছি। আমি মক্কার একজন নারী হিসেবে হজযাত্রীদের পরিবহন সিন্ডিকেটে কাজ করে গর্ব এবং সম্মানিত বোধ করছি। এই সিন্ডিকেট হজ সফলভাবে সম্পন্ন করতে এবং হজযাত্রীদের নিরাপদ পরিবহনে ব্যাপক এবং সক্রিয়ভাবে অবদান রাখে।’ সিন্ডিকেটের তথ্য কেন্দ্রের গ্রাহক পরিষেবা বিশেষজ্ঞ মারবাত হাবহাব বলেন, দিন দিন নারীদের ভূমিকা আরো লক্ষণীয় এবং তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

তিনি বলেন, ‘আমার লক্ষ্য হলো প্রত্যেক সুবিধাভোগীর প্রয়োজনের ওপর ভিত্তি করে যোগাযোগ করা এবং তাদের পরিস্থিতি মোকাবেলা করা।’ তিনি আরো বলেন, ‘হজযাত্রীদের সেবা দেয়া একটি সম্মানজনক এবং চমৎকার মিশন। এক সময় এই পরিষেবাগুলো শুধু পুরুষের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। এই সমৃদ্ধ যুগে এবং এই আশীর্বাদপূর্ণ দিনগুলোতে, আমি মক্কার একজন নারী হিসাবে গুরুত্বপূর্ণ এবং সক্রিয় ভূমিকা পালন করার সুযোগ পেয়েছি।’

মারবাত হাবহাবের সাথেই সিন্ডিকেটের তথ্য কেন্দ্রে কাজ করছেন বিনান বাসনান। তিনি বলেন, ‘আমি জেনারেল কারস সিন্ডিকেটের মতো একটি বড় প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে পেরে গর্বিত এবং সম্মানিত বোধ করছি। যেটি হজযাত্রীদের বিভিন্ন বিষয়ে জিজ্ঞাসা এবং অভিযোগ পাওয়ার মাধ্যমে হজ যাত্রায় সেবা দেয়।’

তিনি বলেন, ‘আমার খুব ভালো লাগছে যে এখন হজের সময় নারীরা পেশাগত অনেক কাজের সুযোগ পাচ্ছেন এবং তাতে অংশ নিচ্ছেন।’বিনান বাসনান বলেন, আশা করছি, এর জন্য আল্লাহ আমাকে পুরস্কৃত করবেন। আর ধন্যবাদ আমাদের সরকারকে, যিনি আমাদের এতো বড় সুযোগ দিয়েছেন।

সূত্র : আরব নিউজ

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2012 joybd24
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Joybd24