1. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক :
  2. [email protected] : rahad :
বেসরকারী হাসপাতালগু‌লো‌তে লাগামহীন আইসিইউ বা‌ণি‌জ্যে দি‌শেহারা মানুষ। | JoyBD24
সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:১৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
অবিশ্বাসের দেয়াল ভাঙল বাংলাদেশ ক্ষমতার মঞ্চে শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই : ওবায়দুল কাদের এমবাপ্পের জোড়া গোলে পোল্যান্ডকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ফ্রান্স দেশ বাঁচাতে নৌকায় ভোট দিন : প্রধানমন্ত্রী সরকার সশস্ত্র বাহিনীর জন্য আধুনিক ও সময়োপযোগী যুদ্ধাস্ত্র সংগ্রহ করছে : প্রধানমন্ত্রী সরকার এক সর্বনাশা প্রতিশোধস্পৃহায় মেতে উঠেছে : মির্জা ফখরুল ১০ বছরের অপেক্ষা ফুরোবে আজ, চট্টগ্রামে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী ছেলের মুখ দেখার আকুতি পূরণ হলো না বিএনপি কর্মী বশিরের মায়ের একজন হলেও নয়াপল্টনেই সমাবেশ হবে: আব্বাস গণসমাবেশ বানচাল করতেই নয়াপল্টনে ককটেল বিস্ফোরণ : রিজভী

বেসরকারী হাসপাতালগু‌লো‌তে লাগামহীন আইসিইউ বা‌ণি‌জ্যে দি‌শেহারা মানুষ।

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত: সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১

ন্যাশনালে আইসিইউ বিল ৮৫ হাজার প্রতিদিন, মেট্রোপলিটনে আইসিইউ বিল ৭০ হাজার। ICU আছে এরকম ক্লিনিকগুলোতে কমবেশী এটাই রেইট।

বর্তমান চলমান করোনা সংকটে বেসরকারি ক্লিনিকের এই গলাকাটা চিকিৎসা সেবায় বন্দরনগরীর মানুষ রীতিমতো অসহায়। ব্যাবসা টাকা কামানোর জন্য তারা ক্লিনিকগুলো খুলেছে।
অতীতে এটা নিয়ে অনেক বাহাস, বাদ প্রতিবাদ হয়েছে।
এবিষয়ে সরকারের কি নীতিমালা বা বাধ্যবাধকতা আছে — তারাই জানে, আমরা চাই এবিষয়ে কঠোর মনিটরিং করবে সরকার।

গতবারের করোনার শুরুতে বেসরকারী ক্লিনিক মালিকদের ICU নিয়ে অনৈতিক, অমানবিক কাজকারবার নিয়ে — আমাদের প্রতিবাদ সমাবেশ করতে হয়েছিল একাধিকবার। সাধারন মানুষের জীবনকে পুঁজি করে – আগামীতে সবচেয়ে লাভজনক ব্যাবসা হিসেবে ICU সমৃদ্ধ ক্লিনিক ব্যাবসাতে বিত্তশালীরা পুঁজি খাটাতে আগ্রহী হয়ে পরেছেন, বর্তমানে ক্লিনিক ওয়ালাদের ফায়দা দেখে।

রাজধানী ঢাকার তুলনায় চিকিৎসা সেবায় অনেক পিছিয়ে আছে বন্দরনগরী চট্টগ্রাম। সত্য কথা বলতে কি চট্টগ্রামের প্রতি চিকিৎসা খাতেও বৈষম্য, অবহেলা দৃশ্যমান। রাজধানী ঢাকার চেয়ে- জনসংখ্যার অনুপাতে -সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা সুবিধা, বেড, ICU সংখ্যা অনেক কম এই বাণিজ্যিক রাজধানীতে।

গরীব, মধ্যবিত্ত এমনকি উচ্চবিত্তরা ও এখন ক্লিনিকের নাম শুনলে আতংকিত হন, গেলেই লাখ টাকার বিল। দেখে মনে হচ্ছে — চিকিৎসার নামে এরকম ডাকাতির তদারকি করার কেউ নেই। করোনার এই কঠিন সংক্রমনে যখন পুরো জাতি অসহায় – মানবতা বিপন্ন — ঠিক এরকম মুহূর্তে ৩/৪/৫ গুন বাড়িয়ে বিল নেওয়া কতোটুকু যুক্তিযুক্ত তা নগরবাসীকে বিচার দিলাম।

এই কথা বলাতে – অতীতে হুমকী শুনতে হয়েছে চিকিৎসক নামধারী কতিপয় নেতাদের, কা‌রো চিকিৎসা করবেন না বলে জানিয়েছিল। ️ হুমকী ধামকি প্রতিবাদ অনুরোধ এসবে আর যেতে চাইনা — আমরা চাই সরকারী হস্তক্ষেপ।
কঠোর মনিটরিং। ️

এই শহরে এরকম চিকিৎসা নৈরাজ্য ও গলাকাটা চিকিৎসা বিলের বিরুদ্ধে কেউ কি দাঁড়াবে না? অনেক সময় দেখি – ৫০ টাকার চাল ৫২ টাকা বেচলে ম্যাজিস্ট্রেট গিয়ে জরিমানা করে। গরীব ব্যাবসায়ীদের জন্যই কি শুধু আইনের প্রয়োগ হয়? সরকার, জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উচিৎ – এদের চিকিৎসা ব্যাবসার লাগাম টেনে ধরা , প্রয়োজনে আইসিইউ সমৃদ্ধ প্রাইভেট ক্লিনিকে সার্বক্ষণিক ম্যাজিস্ট্রেট বসিয়ে চিকিৎসা কার্যক্রম মনিটরিং করা। মনে রাখতে একটি জীবনের মূল্য অনেক। বিনা চিকিৎসায় অনেক মৃত্যু হচ্ছে , এটাই বাস্তব।
৫/ ৬ গুন বিল নিয়ে – কোনো মানুষ – এই দুর্ভোগে বাণিজ্য করতে পারেনা। এরা মানুষ নামের কলংক। সরকারী হস্তক্ষেপ চাই — মানুষ বাঁচাতে কঠিন সিদ্ধান্তের বিকল্প নাই।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2012 joybd24
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Joybd24