০৯:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বীর মুক্তিযোদ্ধা মুকুল বোসের মরদেহ দেশে পৌঁছেছে।

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:৩৪:৫৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ জুলাই ২০২২
  • 34

মুকুল বোসের মরদেহ

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মুকুল বোসের মরদেহ দেশে পৌঁছেছে।
আজ রোববার বিকেলে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের একটি বিশেষ ফ্লাইটে ভারতের চেন্নাই থেকে ঢাকায় এসে তাঁর মরদেহ পৌঁছায়।
মুকুল বোসের মরদেহ বিমানবন্দরে পৌঁছালে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তার কফিনে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য লে: কর্ণেল (অব.) ফারুক খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহা উদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, সংসদ সদস্য পংকজ নাথ এমপি, মুকুল বোসের মেয়ে নাতাসা বোস প্রমুখ।
শনিবার ভোর পাঁচটা বিশ মিনিটে ভারতের চেন্নাইয়ের এপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মুকুল বোস মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে মুকুল বোসের বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।
আগামীকাল সোমবার (৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। এছাড়াও ১২ টায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে এবং সাড়ে ১২ টায় জগন্নাথ হলে মুকুল বোসের মরদেহে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানের বিষয়ে এখনও কোন সিদ্ধান্ত হয়নি।
মুকুল বোস গত ১৬ মে ঢাকার রায়ের বাজারের বাসায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে তাৎক্ষণিকভাবে মোহাম্মদপুরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরদিন সেখান থেকে স্কয়ার হাসপাতালের করোনারিকেয়ার ইউনিটে ভর্তি করা হয় তাকে। তার অবস্থার আরও অবনতি হলে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়। এর পরে ভারতে চেন্নাইয়ের অ্যাপোলো হাসপাতালে নেওয়া হয় মুকুল বোসকে। সেখানেই শনিবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।
২০০৭ সালে জরুরি অবস্থার সময় ওবায়দুল কাদের, সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের সঙ্গে মুকুলবোসও ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।
২০১৬ সালে আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলেও ২০১৭ সালের ৮ জানুয়ারি তাকে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য করেন সভাপতি শেখ হাসিনা। এরপর একই বছর ৩১ জানুয়ারি মুকুল বোসকে দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য করা হয়।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

বীর মুক্তিযোদ্ধা মুকুল বোসের মরদেহ দেশে পৌঁছেছে।

Update Time : ১২:৩৪:৫৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ জুলাই ২০২২

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মুকুল বোসের মরদেহ দেশে পৌঁছেছে।
আজ রোববার বিকেলে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের একটি বিশেষ ফ্লাইটে ভারতের চেন্নাই থেকে ঢাকায় এসে তাঁর মরদেহ পৌঁছায়।
মুকুল বোসের মরদেহ বিমানবন্দরে পৌঁছালে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তার কফিনে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য লে: কর্ণেল (অব.) ফারুক খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহা উদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, সংসদ সদস্য পংকজ নাথ এমপি, মুকুল বোসের মেয়ে নাতাসা বোস প্রমুখ।
শনিবার ভোর পাঁচটা বিশ মিনিটে ভারতের চেন্নাইয়ের এপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মুকুল বোস মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে মুকুল বোসের বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।
আগামীকাল সোমবার (৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। এছাড়াও ১২ টায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে এবং সাড়ে ১২ টায় জগন্নাথ হলে মুকুল বোসের মরদেহে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানের বিষয়ে এখনও কোন সিদ্ধান্ত হয়নি।
মুকুল বোস গত ১৬ মে ঢাকার রায়ের বাজারের বাসায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে তাৎক্ষণিকভাবে মোহাম্মদপুরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরদিন সেখান থেকে স্কয়ার হাসপাতালের করোনারিকেয়ার ইউনিটে ভর্তি করা হয় তাকে। তার অবস্থার আরও অবনতি হলে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়। এর পরে ভারতে চেন্নাইয়ের অ্যাপোলো হাসপাতালে নেওয়া হয় মুকুল বোসকে। সেখানেই শনিবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।
২০০৭ সালে জরুরি অবস্থার সময় ওবায়দুল কাদের, সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের সঙ্গে মুকুলবোসও ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।
২০১৬ সালে আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলেও ২০১৭ সালের ৮ জানুয়ারি তাকে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য করেন সভাপতি শেখ হাসিনা। এরপর একই বছর ৩১ জানুয়ারি মুকুল বোসকে দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য করা হয়।