বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কর্মকাণ্ডে অংশ নেয়ায় আ. লীগের ২২ নেতাকর্মী বহিষ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  03:31 AM, 25 July 2022

দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে দল মনোনীত নৌকার প্রার্থীর বিপক্ষে এবং বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কর্মকাণ্ডে অংশ নেয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগ, সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের স্ব-স্ব পদের দায়িত্ব থেকে ২২ নেতাকর্মীকে অব্যাহতি দিয়েছে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগ। রোববার (২৪ জুলাই) রাত ১২টায় কিছুক্ষণ আগে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ্ এবং সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহম্মেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।বহিষ্কৃতরা হচ্ছেন দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মনোয়ার হোসেন মনি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আহম্মদ ছাবু, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিফাইতুল ইসলাম শুভ, ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিজয় মিয়া, আ. গফুর, গোলাম মোস্তফা আবু, আসরাফুল ইসলাম আক্কাস, মো. রেজাউল করিম, মো. আ. ওয়াহাব, দুলাল, বাদশা, বাবলু, তাপস আহম্মদ, মাহাবুবুর রহমান, বিকাশ কবির ইমরান, রেজাউল করিম, মোখলেছুর রহমান, রেজাউল করিম রাজা, শাহারিয়া সোহেল, আলামিন হিটলার, দেওয়ান বাবলা এবং মোঝাফফর আহম্মদ।

আগামী ২৭ জুলাই দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। নির্বাচন মোট ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ৩ জন, বিএনপির একজন।
নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসতিয়াক আহম্মেদ দিদারের স্ত্রী ফারিন হোসেনকে। আর দলীয় মনোয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য সাবেক মন্ত্রী আবুল কালাম আজাদের ভাতিজা নূরনবী অপু এবং বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে থাপ্পর মেরে চেয়ার হারানো শাহ নেওয়াজ শাহানশাহ। আর বিএনপির একমাত্র প্রাথী হয়ে নির্বাচনে লড়াই করছেন সাদেক নেওয়াজী। দেওয়ানগঞ্জ পৌর নির্বাচনে এই প্রথম ভোটাররা ইভিএমে ভোট দেবেন।