১০:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিএনপির নতুন চমক, বেগম জিয়ার উপদেষ্টা নাতনী ব্যারিস্টার জাইমা রহমান ইন তারেক রহমান আউট।

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:৩৫:০৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১
  • 31

বেগম জিয়াকে উপদেষ্টা রেখে নাতনী ব্যারিস্টার জাইমা রহমানকে নেতৃত্বে আনার পরামর্শ দিয়েছেন বিএনপিপন্থি বুদ্ধিজীবীরা। একই সঙ্গে আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে জাইমাকে গড়ে তুলতে এখন থেকেই কাজ করার পরামর্শ তাদের।

এদিকে, দলের নেতারাও মনে করেন তরুণ নেতৃত্ব আসলে সুদিন ফিরবে বিএনপিতে। এজন্য বর্তমান প্রেক্ষাপটে দলের কাউন্সিল জরুরি।
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া একদিকে যেমন সাজাপ্রাপ্ত আসামি তার ওপর বয়সের ভারে অসুস্থ। বিকল্প নেতৃত্বে যিনি আছেন তারেক রহমান। তিনিও আইনের চোখে দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি।
বিএনপির নেতৃত্ব তারেকের সহধর্মিনী ডা. জোবায়দা রহমানকে নিয়েও গুঞ্জন উঠেছে।
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘বেগম জিয়ার শরীর এখনও ভালো আছে। তিনি যদি এখনও তার নাতনী জাইমাকে প্রমোট করেন তার উপদেষ্টা হিসেবে তাহলে জাইমা ভালোভাবে বিএনপিকে নেতৃত্ব দিতে পারবে। তারেক অবসরপ্রাপ্ত। এখন তরুণ কারো আসা দরকার। শেখ হাসিনার প্রতিদ্বন্দ্বী হতে পারে তারেকের মেয়ে। তাহলেই নতুন গতি আসবে। এদিকে লক্ষ্য রাখলে নতুন গতি আসবে। আর এতেই পরিবর্তনের সম্ভাবনা আছে।’
জোবায়দা-জাইমা যেই হোক, তরুণ নেতৃত্ব গ্রহণ করতে কর্মীরা প্রস্তুত বলে মত বিএনপি নেতাদের।
বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘জোবাইদা খুব জনপ্রিয়। আর জাইমা ব্যারিস্টারি পাস করেছেন। এটা বিএনপির জন্য ভালো যদি তারা রাজনীতিতে আসেন, তাহলে রাজনীতিতে সুবাতাস বইবে। নেতাকর্মীরা উদ্দীপ্ত হবেন।’
করোনা পরিস্থিতি কাটিয়ে শিগগিরই রাজনীতির মাঠে কার্যকর ভূমিকা রাখতে বিএনপিকে সাংগঠনিকভাবে প্রস্ততি নেয়ারও পরামর্শ তাদের।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

বিএনপির নতুন চমক, বেগম জিয়ার উপদেষ্টা নাতনী ব্যারিস্টার জাইমা রহমান ইন তারেক রহমান আউট।

Update Time : ১২:৩৫:০৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১

বেগম জিয়াকে উপদেষ্টা রেখে নাতনী ব্যারিস্টার জাইমা রহমানকে নেতৃত্বে আনার পরামর্শ দিয়েছেন বিএনপিপন্থি বুদ্ধিজীবীরা। একই সঙ্গে আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে জাইমাকে গড়ে তুলতে এখন থেকেই কাজ করার পরামর্শ তাদের।

এদিকে, দলের নেতারাও মনে করেন তরুণ নেতৃত্ব আসলে সুদিন ফিরবে বিএনপিতে। এজন্য বর্তমান প্রেক্ষাপটে দলের কাউন্সিল জরুরি।
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া একদিকে যেমন সাজাপ্রাপ্ত আসামি তার ওপর বয়সের ভারে অসুস্থ। বিকল্প নেতৃত্বে যিনি আছেন তারেক রহমান। তিনিও আইনের চোখে দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি।
বিএনপির নেতৃত্ব তারেকের সহধর্মিনী ডা. জোবায়দা রহমানকে নিয়েও গুঞ্জন উঠেছে।
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘বেগম জিয়ার শরীর এখনও ভালো আছে। তিনি যদি এখনও তার নাতনী জাইমাকে প্রমোট করেন তার উপদেষ্টা হিসেবে তাহলে জাইমা ভালোভাবে বিএনপিকে নেতৃত্ব দিতে পারবে। তারেক অবসরপ্রাপ্ত। এখন তরুণ কারো আসা দরকার। শেখ হাসিনার প্রতিদ্বন্দ্বী হতে পারে তারেকের মেয়ে। তাহলেই নতুন গতি আসবে। এদিকে লক্ষ্য রাখলে নতুন গতি আসবে। আর এতেই পরিবর্তনের সম্ভাবনা আছে।’
জোবায়দা-জাইমা যেই হোক, তরুণ নেতৃত্ব গ্রহণ করতে কর্মীরা প্রস্তুত বলে মত বিএনপি নেতাদের।
বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘জোবাইদা খুব জনপ্রিয়। আর জাইমা ব্যারিস্টারি পাস করেছেন। এটা বিএনপির জন্য ভালো যদি তারা রাজনীতিতে আসেন, তাহলে রাজনীতিতে সুবাতাস বইবে। নেতাকর্মীরা উদ্দীপ্ত হবেন।’
করোনা পরিস্থিতি কাটিয়ে শিগগিরই রাজনীতির মাঠে কার্যকর ভূমিকা রাখতে বিএনপিকে সাংগঠনিকভাবে প্রস্ততি নেয়ারও পরামর্শ তাদের।