০৪:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিএনপির কোনও কর্মসূচিতে বাধা না দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৯:১৩:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ জুলাই ২০২২
  • 24

প্রধানমন্ত্রীর

বিএনপির কোনও কর্মসূচিতে বাধা না দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ঘেরাও করতে গেলেও বাধা না দিয়ে বিএনপিকে চা খাওয়ানোর পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর।

শনিবার (২৩ জুলাই) জাতীয় শোকের মাস আগস্ট এর কর্মসূচি নির্ধারণে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের যৌথসভায় প্রধানমন্ত্রী এ সব কথা বলেন। ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় আগস্টের ভয়াবহ স্মৃতি স্মরণ করে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, পঁচাত্তরের পর যারা একুশ বছর ক্ষমতায় ছিল, সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ থেকে শুরু করে হেন কোনও অপকর্ম নেই তারা করেনি।

আওয়ামী লীগ সভাপতি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই আন্তর্জাতিক সংকটের মুখেও দেশের অর্থনীতি গতিশীল। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে উন্নত দেশ হিমশিম খাচ্ছে। ডলারের দাম বাড়ছে-কমছে। জ্বালানির দাম বাড়ছে। উন্নত দেশগুলোতে মূল্যস্ফীতি বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রত্যেকটি জিনিসের দাম বাড়ছে। এমন দুর্যোগের সময়ও আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই বাংলাদেশ এখনো সচল রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালের পর যারা ক্ষমতায় এসেছে, তারা দেশে সন্ত্রাস-দুর্নীতি করেছে। জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। একমাত্র আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে জনগণকে সেবা দিয়েছে।

এদিকে বিএনপির কোনও কর্মসূচিতে বাধা না দেয়ার নির্দেশ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ঘেরাও করতে আসলেও তাদের বাধা না দিয়ে খাওয়াবেন।

যৌথসভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, ড. আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, ড. হাছান মাহমুদ, বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মির্জা আজম সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, শ্রমিক লীগ, ছাত্রলীগের সভাপতি ও সম্পাদক উপস্থিত ছিলেন।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

বিএনপির কোনও কর্মসূচিতে বাধা না দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Update Time : ০৯:১৩:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ জুলাই ২০২২

বিএনপির কোনও কর্মসূচিতে বাধা না দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ঘেরাও করতে গেলেও বাধা না দিয়ে বিএনপিকে চা খাওয়ানোর পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর।

শনিবার (২৩ জুলাই) জাতীয় শোকের মাস আগস্ট এর কর্মসূচি নির্ধারণে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের যৌথসভায় প্রধানমন্ত্রী এ সব কথা বলেন। ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় আগস্টের ভয়াবহ স্মৃতি স্মরণ করে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, পঁচাত্তরের পর যারা একুশ বছর ক্ষমতায় ছিল, সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ থেকে শুরু করে হেন কোনও অপকর্ম নেই তারা করেনি।

আওয়ামী লীগ সভাপতি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই আন্তর্জাতিক সংকটের মুখেও দেশের অর্থনীতি গতিশীল। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে উন্নত দেশ হিমশিম খাচ্ছে। ডলারের দাম বাড়ছে-কমছে। জ্বালানির দাম বাড়ছে। উন্নত দেশগুলোতে মূল্যস্ফীতি বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রত্যেকটি জিনিসের দাম বাড়ছে। এমন দুর্যোগের সময়ও আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই বাংলাদেশ এখনো সচল রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালের পর যারা ক্ষমতায় এসেছে, তারা দেশে সন্ত্রাস-দুর্নীতি করেছে। জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। একমাত্র আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে জনগণকে সেবা দিয়েছে।

এদিকে বিএনপির কোনও কর্মসূচিতে বাধা না দেয়ার নির্দেশ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ঘেরাও করতে আসলেও তাদের বাধা না দিয়ে খাওয়াবেন।

যৌথসভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, ড. আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, ড. হাছান মাহমুদ, বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মির্জা আজম সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, শ্রমিক লীগ, ছাত্রলীগের সভাপতি ও সম্পাদক উপস্থিত ছিলেন।