বাজেট নিয়ে বিএনপির প্রতিক্রিয়া এ বাজেট লুটপাটবান্ধব বাজেট।’

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  12:12 AM, 10 June 2022
এ বাজেট লুটপাটবান্ধব বাজেট।’ বিএনপি

প্রস্তাবিত বাজেট সম্পর্কে জাতীয় সংসদে সাংবাদিকদের দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় রুমিন ফারহানা বলেন। আপনারা জানেন যে আমাদের আমদানি ব্যয় অনেক বেড়ে গেছে, রপ্তানি আয় সেই তুলনায় কম। মূল্যস্ফীতি আকাশচুম্বী, ডলারের দাম টাকার তুলনায় অনেক বেশি বেড়ে গেছে, নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে না। জব লেস গ্রোথ হচ্ছে, নানান সমস্যার মধ্যে দিয়ে এ বাজেট দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা আশা করেছিলাম- বাজেটে এই বিষয়গুলো বিবেচনা করা হবে। কিন্তু আমরা দেখলাম, সেই একই গতানুগতিক বাজেট। উচ্চাবিলাসী বাজেট এবং যে বাজেটে ২ লক্ষ ৪৫ হাজার কোটি টাকা ঘাটতি থাকবে। এই ঘাটতি আপনি কীভাবে পূর্ণ করবেন? এই ঘাটতি পূরণে কর বাড়াতে হবে, কিন্তু করের আওতা বাড়ছে না। অথচ দেখতে পাচ্ছি কর জিডিপির অনুপাতে দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ সর্বনিম্ন। রুমিন বলেন, তাই এই রকম অবস্থা নিয়ে বাজেটের যে লক্ষ্য তা পূর্ণ করা হবে বলে আমরা মনে করি না। এই বাজেট স্বজনতোষী বাজেট। এই বাজেট ধনীকে আরও ধনী করার এবং সাধারণ মানুষকে আরও বেশি নাজুক করার বাজেট।

জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের কাছে  বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশিদ বলেন । ‘এটি একটি লুটপাটের বাজেট। প্রায় পৌনে ৭ কোটি টাকা বাজেটের মধ্যে ৩৫ থেকে ৪০ শতাংশ ঋণ নির্ভর। এতে অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশি ঋণ রয়েছে।’ হারুনুর রশিদ বলেন, ‘বাজেটে বিদ্যুৎ ঘাটতি দেখানো হয়েছে। বিদ্যুৎ ঘাটতি মানে রেন্টাল, কুইক রেন্টাল দিয়ে লুটপাট করা হবে। এ বাজেট লুটপাটবান্ধব বাজেট।’

বাজেট নিয়ে বিএনপির কোনো আগ্রহ নেই বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমান সরকারের বাজেট বিএনপির কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়। কারণ দুর্বৃত্ত সরকারের বাজেট মানেই টাকা লুট। আরও টাকা লুট করা। কোটি টাকা বেশি।বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার (০৯ জুন) ঢাকা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম আয়োজিত এক মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ কথা বলেন।
এ সময় বাংলাদেশে নির্বাচন ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ধ্বংস করা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল। বলেন, ‘নির্বাচন ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে গেছে, সংবিধান শেষ হয়ে গেছে। এর জন্য দায়ী বিচার বিভাগের বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক। তার কারণে জাতি আজ ধ্বংসের দিকে।’

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর বনানীতে নিজের বাসায় সংবাদ সম্মেলন করেন আমীর খসরু। তিনি বলেন, ‘এই যে এত বড় একটা বাজেট দিয়েছে। এটা বাস্তবায়ন করতে গেলে দিন শেষে টাকা তো জনগণের পকেট থেকেই যাবে। অন্যদিকে জনগণকে সহযোগিতা করার জন্য যে টাকা সরকারের তহবিলে থাকার কথা, সেই টাকা আজকে নেই বলে চাপটা আরও বেড়ে যাবে।’
বিদেশে পাচার হয়ে যাওয়া টাকা ফিরিয়ে আনার যে সুযোগ দেয়া হয়েছে, তারও সমালোচনা করেন বিএনপি নেতা। তিনি বলেন, ‘বাজেটের অর্ধেকের বেশি টাকা তারা দুর্নীতির মাধ্যমে লুটপাট করে বিদেশে পাচার করেছে। অথচ এই টাকা দিয়ে দেশে আরও চার-পাঁচটা পদ্মা সেতু করা যেত।