০১:০৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর পরিদর্শন করলেন রাষ্ট্রপতি

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৮:১৬:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ জুলাই ২০২২
  • 26

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর বিজয় সরণীস্থ বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর পরিদর্শন করেন।
রাজধানীর বিজয় সরণীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটারের পশ্চিম পাশে ১০ একর জমির ওপর বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রিত ‘বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর’ নির্মিত হয়েছে।
বিশ্বমানের স্থাপত্য জাদুঘরটি শুধুমাত্র দেশের সামরিক ইতিহাস, ঐতিহ্য, বিভিন্ন অস্ত্র ও গোলাবারুদ, সাফল্যের গল্প, বিশেষ করে সমগ্র মুক্তিযুদ্ধে এর অবিশ্বাস্য বীরত্ব ও বীরত্ব প্রদর্শনের জন্য।
রাষ্ট্রপতি জাদুঘরে পৌঁছালে প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকের-উজ-জামান এবং সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা তাঁকে স্বাগত জানান।
পরে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর প্রতিষ্ঠার সংক্ষিপ্ত ইতিহাস রাষ্ট্রপতি হামিদের কাছে তুলে ধরা হয়।
জাদুঘর কর্তৃপক্ষ রাষ্ট্রপতিকে একটি ক্রেস্ট উপহার দেন। রাষ্ট্রপতি ও বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরকে একটি ক্রেস্ট প্রদান করেন।
বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বাংলাদেশ নৌবাহিনী এবং বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর জন্য নির্ধারিত গ্যালারীসহ জাদুঘরের ছয়টি পৃথক অংশ রয়েছে।
সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের সর্বাধিনায়ক রাষ্ট্রপতি হামিদ তাঁব সফরসঙ্গীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরের বিভিন্ন কক্ষ ও স্থাপনা পরিদর্শন করেন।
বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে দর্শনার্থী বইতেও রাষ্ট্রপতি হামিদ স্বাক্ষর করেন।
রাষ্ট্রপতি সেখানে ফটো সেশনেও অংশ নেন।
রাষ্ট্রপতির বড় ছেলে রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক এমপি, রাষ্ট্রপতির সচিবগণ এবং সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সফরকালে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ছিলেন।সূত্র:-বাসস

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর পরিদর্শন করলেন রাষ্ট্রপতি

Update Time : ০৮:১৬:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ জুলাই ২০২২

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর বিজয় সরণীস্থ বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর পরিদর্শন করেন।
রাজধানীর বিজয় সরণীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটারের পশ্চিম পাশে ১০ একর জমির ওপর বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রিত ‘বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর’ নির্মিত হয়েছে।
বিশ্বমানের স্থাপত্য জাদুঘরটি শুধুমাত্র দেশের সামরিক ইতিহাস, ঐতিহ্য, বিভিন্ন অস্ত্র ও গোলাবারুদ, সাফল্যের গল্প, বিশেষ করে সমগ্র মুক্তিযুদ্ধে এর অবিশ্বাস্য বীরত্ব ও বীরত্ব প্রদর্শনের জন্য।
রাষ্ট্রপতি জাদুঘরে পৌঁছালে প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকের-উজ-জামান এবং সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা তাঁকে স্বাগত জানান।
পরে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর প্রতিষ্ঠার সংক্ষিপ্ত ইতিহাস রাষ্ট্রপতি হামিদের কাছে তুলে ধরা হয়।
জাদুঘর কর্তৃপক্ষ রাষ্ট্রপতিকে একটি ক্রেস্ট উপহার দেন। রাষ্ট্রপতি ও বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরকে একটি ক্রেস্ট প্রদান করেন।
বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বাংলাদেশ নৌবাহিনী এবং বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর জন্য নির্ধারিত গ্যালারীসহ জাদুঘরের ছয়টি পৃথক অংশ রয়েছে।
সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের সর্বাধিনায়ক রাষ্ট্রপতি হামিদ তাঁব সফরসঙ্গীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরের বিভিন্ন কক্ষ ও স্থাপনা পরিদর্শন করেন।
বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে দর্শনার্থী বইতেও রাষ্ট্রপতি হামিদ স্বাক্ষর করেন।
রাষ্ট্রপতি সেখানে ফটো সেশনেও অংশ নেন।
রাষ্ট্রপতির বড় ছেলে রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক এমপি, রাষ্ট্রপতির সচিবগণ এবং সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সফরকালে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ছিলেন।সূত্র:-বাসস