০৬:০৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর স্টকহোমে আলোকচিত্র।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৭:৩০:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অগাস্ট ২০২১
  • 17

মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ দূতাবাস স্টকহোমের আয়োজনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর আলোকচিত্র প্রদর্শনী- ‘আলোকচিত্রে বঙ্গবন্ধু’র উদ্বোধন করা হয়েছে।

আজ সোমবার (২ আগস্ট) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই খবর জানায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণাল। অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রদূত মো. নাজমুল ইসলাম, মোহাম্মদ আফতাবুর রহমান এবং অন্যান্য অতিথিবৃন্দের উপস্থিতিতে ফিতা কেটে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়।

স্থানীয় সময় অনুযায়ী গতকাল রোববার দূতাবাস প্রাঙ্গণে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সুইডেন নিবাসী বঙ্গবন্ধু অনুরাগী মোহাম্মদ আফতাবুর রহমানের সংগৃহীত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পারিবারিক, রাজনৈতিক, আন্তর্জাতিক ও কূটনৈতিক জীবনের বিভিন্ন দুর্লভ ছবি এই আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হয়।

এরপর উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা বঙ্গবন্ধুর জীবনী, রাজনৈতিক দূরদর্শিতা এবং বিভিন্ন অর্জন নিয়ে আলোচনা করেন। বক্তারা আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজনকে স্বাগত জানান এবং এ ধরণের আয়োজনের প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব তুলে ধরেন।

বক্তারা বলেন, সকলকে হাতে হাত রেখে বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম এবং চেতনা প্রবাসীসহ সকল বাঙ্গালীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়ার গুরু দায়িত্ব পালন করতে হবে।

রাষ্ট্রদূত মো. নাজমুল ইসলাম তার বক্তব্যের সূচনায় স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অপরিসীম অবদানের কথা এবং বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের কথা বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের শহীদ সদস্যদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

মুজিব বর্ষকে উপজীব্য করে দূতাবাসের বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরে তিনি বলেন, এই আলোকচিত্র প্রদর্শনী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসামান্য স্মৃতিসমূহকে এবং তাঁর আত্মত্যাগ এবং সংগ্রামী জীবনকে মানুষের হৃদয়ের মণিকোঠায় তুলে ধরতে সক্ষম হবে।

তিনি আরও বলেন, যদিও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মহান জীবন ও কর্মকে ছবিতে পুরোপুরি ধারণ করা সম্ভব নয়। তবে এই আলোকচিত্র প্রদর্শনী পরবর্তী প্রজন্মের কাছে তাঁর কর্ম ও চেতনা ছড়িয়ে দিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে।

দুই সপ্তাহব্যাপী এ আলোকচিত্র প্রদর্শনী ১৫ আগস্ট পর্যন্ত দূতাবাস প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে। আলোকচিত্র প্রদর্শনীটি সকলের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর স্টকহোমে আলোকচিত্র।

Update Time : ০৭:৩০:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অগাস্ট ২০২১

মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ দূতাবাস স্টকহোমের আয়োজনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর আলোকচিত্র প্রদর্শনী- ‘আলোকচিত্রে বঙ্গবন্ধু’র উদ্বোধন করা হয়েছে।

আজ সোমবার (২ আগস্ট) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই খবর জানায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণাল। অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রদূত মো. নাজমুল ইসলাম, মোহাম্মদ আফতাবুর রহমান এবং অন্যান্য অতিথিবৃন্দের উপস্থিতিতে ফিতা কেটে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়।

স্থানীয় সময় অনুযায়ী গতকাল রোববার দূতাবাস প্রাঙ্গণে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সুইডেন নিবাসী বঙ্গবন্ধু অনুরাগী মোহাম্মদ আফতাবুর রহমানের সংগৃহীত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পারিবারিক, রাজনৈতিক, আন্তর্জাতিক ও কূটনৈতিক জীবনের বিভিন্ন দুর্লভ ছবি এই আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হয়।

এরপর উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা বঙ্গবন্ধুর জীবনী, রাজনৈতিক দূরদর্শিতা এবং বিভিন্ন অর্জন নিয়ে আলোচনা করেন। বক্তারা আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজনকে স্বাগত জানান এবং এ ধরণের আয়োজনের প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব তুলে ধরেন।

বক্তারা বলেন, সকলকে হাতে হাত রেখে বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম এবং চেতনা প্রবাসীসহ সকল বাঙ্গালীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়ার গুরু দায়িত্ব পালন করতে হবে।

রাষ্ট্রদূত মো. নাজমুল ইসলাম তার বক্তব্যের সূচনায় স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অপরিসীম অবদানের কথা এবং বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের কথা বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের শহীদ সদস্যদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

মুজিব বর্ষকে উপজীব্য করে দূতাবাসের বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরে তিনি বলেন, এই আলোকচিত্র প্রদর্শনী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসামান্য স্মৃতিসমূহকে এবং তাঁর আত্মত্যাগ এবং সংগ্রামী জীবনকে মানুষের হৃদয়ের মণিকোঠায় তুলে ধরতে সক্ষম হবে।

তিনি আরও বলেন, যদিও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মহান জীবন ও কর্মকে ছবিতে পুরোপুরি ধারণ করা সম্ভব নয়। তবে এই আলোকচিত্র প্রদর্শনী পরবর্তী প্রজন্মের কাছে তাঁর কর্ম ও চেতনা ছড়িয়ে দিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে।

দুই সপ্তাহব্যাপী এ আলোকচিত্র প্রদর্শনী ১৫ আগস্ট পর্যন্ত দূতাবাস প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে। আলোকচিত্র প্রদর্শনীটি সকলের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে।