ফাঁকি দেয়া করের’ ১০ শতাংশ জমা দিয়েছে ড. কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  12:58 AM, 22 June 2022
গণফোরামের সভাপতি ও সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল

গণফোরামের সভাপতি ও সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল হোসেনের ল’ হাউস কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের দাবি করা করের ছয় কোটি ৯ লাখ ৮৫ হাজার ৩১৫ টাকা ট্যাক্সের মধ্যে ১০ শতাংশ জমা দিয়েছে।

২০১৮-১৯ অর্থবছরে এক কোটি চার লাখ তিন হাজার ৪৯৫ টাকা আয়কর রিটার্ন জমা দেয় কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস। কিন্তু জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ছয় কোটি নয় লাখ ৮৫ হাজার ৩১৫ টাকা আয়কর এবং আরও ৮৭ লাখ ৩৫ হাজার ৬৩৪ টাকা সুদ দাবি করে।বিষয়টি নিয়ে হাইকোর্টে যায় ড. কামালের ল’ হাউস। নিয়ম অনুযায়ী জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের দাবি করা ছয় কোটি ৯ লাখ ৮৫ হাজার ৩১৫ টাকা ট্যাক্সের মধ্যে ১০ শতাংশ পরিশোধ করতে হয়। সে নির্দেশনা অনুযায়ী এ টাকা জমা দেয় তারা।মঙ্গলবার বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এস এম মনিরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ থেকে এ তথ্য জানা গেছে। ড. কামালের আইনজীবী ব্যারিস্টার রমজান আলী শিকদার বলেন, হাইকোর্ট আমাদের রিটের শুনানি নিয়ে স্টাটাস কো (স্থিতিবস্থা) জারি করেছেন। পাশাপাশি রুল জারি করেছেন। ৮৩ লাখ টাকা আমরা আগেই জমা দেয়া আছে। গতকাল আরও ৮ লাখ ৭০ হাজার টাকা জমা দিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘আইন অনুযায়ী যে টাকা পরিশোধ করে আপিল করতে হয়, আমরা তার সম্পূর্ণ পরিশোধ করলাম।’গত ১৪ জুন কর ফাঁকির বিষয়ে আপিল ট্রাইব্যুনালের সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করা রিট কার্যতালিকা থেকে বাদ দেয় হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। পরে বিষয়টি নিয়ে বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এস এম মনিরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চে যান তারা।এর আগে বিষয়টি নিয়ে ২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বরে রাজস্ব বোর্ডের এক ডেপুটি কমিশনারের আদেশের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট যুগ্ম কমিশনারের কাছে আপিল করেন। আপিল শুনানি শেষে ২০২০ সালের ২৫ জুন তা খারিজ করে। এতে আগের আদেশ বহাল থাকে।