০৭:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নরসিংদীতে স্বামীকে খুন করে সারা রাত পাহারা,

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:৪৪:৩৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৩ জুলাই ২০২২
  • 16

নরসিংদীর শিবপুরে স্বামী মোফাজ্জল প্রধানকে (৩৮) খুন করে থানায় গিয়ে হত্যার দায় স্বীকার করে আত্মসমর্পণ করেছেন স্ত্রী ঝুনু বেগম (৩২)

বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) ১২টার দিকে উপজেলার মাছিমপুর ইউনিয়নের খড়িয়া গ্রামে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। শুক্রবার (২১ জুলাই) সকাল পৌনে ১০টায় থানায় গিয়ে ডিউটি অফিসারকে হত্যার ঘটনাটি জানান স্ত্রী। নিহত মোফাজ্জল প্রধান খড়িয়া গ্রামের মৃত ওয়াজউদ্দিন প্রধানের ছেলে। স্ত্রী ঝুনু বেগম একই এলাকার মোসলেম উদ্দিনের মেয়ে।

এলাকাবাসী জানান, প্রায় ২০ বছর আগে প্রেম করে তারা বিয়ে করেছিলেন। তাদের দুজনের প্রেমের সম্পর্ক থাকা অবস্থায় ঝুনু বেগমকে অন্যত্র বিয়ে দেন তার মা-বাবা। বিয়ের দুই দিন পরে ঝুনু বেগম স্বামীকে ত্যাগ করে প্রেমিক মোফাজ্জলকে বিয়ে করে দাম্পত্য জীবন শুরু করেন। তাদের এক ছেলে সন্তান রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) রাত ১১টার দিকে স্ত্রীর কাছে টাকা চায় স্বামী মোফাজ্জল হোসেন। স্ত্রী টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া হয়। তাদের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে শাবল নিয়ে স্ত্রীর উপর আক্রমণ করতে যায় স্বামী। এ সময় স্ত্রী তার কাছ থেকে শাবল ছিনিয়ে নিয়ে স্বামীকে শাবল দিয়ে আঘাত করে হত্যা করেন। হত্যার পর সারা রাত মরদেহ পাহারা দিয়ে শুক্রবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে হত্যার বিবরণ দেয় ঝুনু বেগম।

শিবপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন মিয়া বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত স্ত্রীকে আটক করে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। এই ঘটনায় আইনি প্রক্রিয়া চলমান।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

নরসিংদীতে স্বামীকে খুন করে সারা রাত পাহারা,

Update Time : ১২:৪৪:৩৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৩ জুলাই ২০২২

নরসিংদীর শিবপুরে স্বামী মোফাজ্জল প্রধানকে (৩৮) খুন করে থানায় গিয়ে হত্যার দায় স্বীকার করে আত্মসমর্পণ করেছেন স্ত্রী ঝুনু বেগম (৩২)

বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) ১২টার দিকে উপজেলার মাছিমপুর ইউনিয়নের খড়িয়া গ্রামে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। শুক্রবার (২১ জুলাই) সকাল পৌনে ১০টায় থানায় গিয়ে ডিউটি অফিসারকে হত্যার ঘটনাটি জানান স্ত্রী। নিহত মোফাজ্জল প্রধান খড়িয়া গ্রামের মৃত ওয়াজউদ্দিন প্রধানের ছেলে। স্ত্রী ঝুনু বেগম একই এলাকার মোসলেম উদ্দিনের মেয়ে।

এলাকাবাসী জানান, প্রায় ২০ বছর আগে প্রেম করে তারা বিয়ে করেছিলেন। তাদের দুজনের প্রেমের সম্পর্ক থাকা অবস্থায় ঝুনু বেগমকে অন্যত্র বিয়ে দেন তার মা-বাবা। বিয়ের দুই দিন পরে ঝুনু বেগম স্বামীকে ত্যাগ করে প্রেমিক মোফাজ্জলকে বিয়ে করে দাম্পত্য জীবন শুরু করেন। তাদের এক ছেলে সন্তান রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) রাত ১১টার দিকে স্ত্রীর কাছে টাকা চায় স্বামী মোফাজ্জল হোসেন। স্ত্রী টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া হয়। তাদের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে শাবল নিয়ে স্ত্রীর উপর আক্রমণ করতে যায় স্বামী। এ সময় স্ত্রী তার কাছ থেকে শাবল ছিনিয়ে নিয়ে স্বামীকে শাবল দিয়ে আঘাত করে হত্যা করেন। হত্যার পর সারা রাত মরদেহ পাহারা দিয়ে শুক্রবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে হত্যার বিবরণ দেয় ঝুনু বেগম।

শিবপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন মিয়া বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত স্ত্রীকে আটক করে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। এই ঘটনায় আইনি প্রক্রিয়া চলমান।