০২:৫১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুই দিনের ব্যবধানে সয়াবিন তেলের দাম বেড়েছে লিটারে পাঁচ টাকা।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৪:৪৮:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১
  • 49

স্বস্তি ফিরেনি নিত্য পণ্যের বাজারে। দুই দিনের ব্যবধানে সয়াবিন তেলের দাম বেড়েছে লিটারে পাঁচ টাকা। পেঁয়াজ এবং কাঁচা মরিচের বাজারও চওড়া। আর সপ্তাহের ব্যবধানে সব ধরনের মুরগীর দাম বেড়েছে কেজিতে দশ থেকে বিশ টাকা। মাছ-সবজিতেও নেই স্বস্তি।

বেড়েই চলছে সয়াবিন তেলের দাম। একদিনের ব্যবধানে লিটার প্রতি দাম বেড়েছে চার টাকা।

দোকানীরা জানান, কালকেও সব ধরনের তেলের দাম ছিল ৬৮০ টাকা, ১৩৬ টাকা লিটার। প্রতি লিটারে ৪ টাকা করে বেড়েছে।

বেড়েই চলছে পেঁয়াজের দামও। ব্যবসায়ীরা জানান, ইন্ডিয়ান পেঁয়াজ ৫০ থেকে ৪৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর দেশিটা ৬২-৬২ টাকা ধরে চলছে।

কাঁচা মরিচের দাম কেজিতে বেড়েছে আরও দশ টাকা। বিক্রিতারা বলছেন দাম আরও বাড়বে।

বিক্রেতারা বলেন, দেশের মরিচ বৃষ্টিতে নষ্ট হয়ে গেছে, আর ইন্ডিয়ার মরিচ যদি না আসে তাহলে মরিচের আরও বাড়বে।

শীতের আগে সবজির বাজার গরম। চল্লিশ থেকে আশি টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে প্রায় সব ধরণের সবজি। ফুল কপি, বাঁধাকপি আর মুলার দাম একশ’ টাকার কাছাকাছি।

সব ধরণের মাছের দামও বাড়তি। আর মুরগীর দাম কেজিতে বেড়েছে দশ থেকে বিশ টাকা।

মুরগি বিক্রেতারা জানান, গত সপ্তাহের তুলনায় এ সপ্তাহে পাকিস্তানী মুরগী কেজিতে ১০ টাকা বেড়েছে। গত সপ্তাহে ছিল বিক্রি হয়েছে ৩২০ টাকা ধরে এ সপ্তাহে চলছে ৩৩০ টাকা করে। বয়লার মুরগীর দাম ছিল ১৮০ টাকা এখন বিক্রি হচ্ছে ১৯০ থেকে ২০০ টাকা ধরে।

গরু খাসি আর মহিষের মাংসের বাজার স্বাভাবিক রয়েছে।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

দুই দিনের ব্যবধানে সয়াবিন তেলের দাম বেড়েছে লিটারে পাঁচ টাকা।

Update Time : ০৪:৪৮:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১

স্বস্তি ফিরেনি নিত্য পণ্যের বাজারে। দুই দিনের ব্যবধানে সয়াবিন তেলের দাম বেড়েছে লিটারে পাঁচ টাকা। পেঁয়াজ এবং কাঁচা মরিচের বাজারও চওড়া। আর সপ্তাহের ব্যবধানে সব ধরনের মুরগীর দাম বেড়েছে কেজিতে দশ থেকে বিশ টাকা। মাছ-সবজিতেও নেই স্বস্তি।

বেড়েই চলছে সয়াবিন তেলের দাম। একদিনের ব্যবধানে লিটার প্রতি দাম বেড়েছে চার টাকা।

দোকানীরা জানান, কালকেও সব ধরনের তেলের দাম ছিল ৬৮০ টাকা, ১৩৬ টাকা লিটার। প্রতি লিটারে ৪ টাকা করে বেড়েছে।

বেড়েই চলছে পেঁয়াজের দামও। ব্যবসায়ীরা জানান, ইন্ডিয়ান পেঁয়াজ ৫০ থেকে ৪৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর দেশিটা ৬২-৬২ টাকা ধরে চলছে।

কাঁচা মরিচের দাম কেজিতে বেড়েছে আরও দশ টাকা। বিক্রিতারা বলছেন দাম আরও বাড়বে।

বিক্রেতারা বলেন, দেশের মরিচ বৃষ্টিতে নষ্ট হয়ে গেছে, আর ইন্ডিয়ার মরিচ যদি না আসে তাহলে মরিচের আরও বাড়বে।

শীতের আগে সবজির বাজার গরম। চল্লিশ থেকে আশি টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে প্রায় সব ধরণের সবজি। ফুল কপি, বাঁধাকপি আর মুলার দাম একশ’ টাকার কাছাকাছি।

সব ধরণের মাছের দামও বাড়তি। আর মুরগীর দাম কেজিতে বেড়েছে দশ থেকে বিশ টাকা।

মুরগি বিক্রেতারা জানান, গত সপ্তাহের তুলনায় এ সপ্তাহে পাকিস্তানী মুরগী কেজিতে ১০ টাকা বেড়েছে। গত সপ্তাহে ছিল বিক্রি হয়েছে ৩২০ টাকা ধরে এ সপ্তাহে চলছে ৩৩০ টাকা করে। বয়লার মুরগীর দাম ছিল ১৮০ টাকা এখন বিক্রি হচ্ছে ১৯০ থেকে ২০০ টাকা ধরে।

গরু খাসি আর মহিষের মাংসের বাজার স্বাভাবিক রয়েছে।