০৪:৫৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দুই গ্রামের সংঘর্ষে সাংবাদিক ও পুলিশসহ আহত ২০, আটক ২

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৯:২৬:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ জানুয়ারী ২০২৩
  • 15

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেরায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামের মধ্যে সংঘর্ষে সাংবাদিক ও পুলিশসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনা নিয়ন্ত্রনে করতে ৮ রাউন্ড গুলি ছুড়েঁ। এই ঘটনায় আহত ৫ পুলিশ সদস্য ও ৩ গ্রামবাসী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা নিয়েছেন।

আজ সোমবার (২ জানুয়ারী) দুপুরে উপজেলার বাহ্মন্দী ইউনিয়নের উজানগোপিন্দী-বিনাইরচর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুক্রবার স্থানীয় এক মাদরাসার ওয়াজ মাহফিলে ছোট বিনাইরচর গ্রামের এক প্রতিবন্ধী ছেলেকে উজানগোপিন্দী গ্রামের লোকজন মারধর করে। এ নিয়ে গত তিন দিন যাবত ছোট বিনাইরচর এবং উজানগোপিন্দি গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। উজানগোপিন্দী গ্রামের লোকজন বেশ কয়েকবার ছোট বিনাইরচর গ্রামে হামলা করে। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার দুপুরে ছোট বিনাইরচর গ্রামের মঞ্জুর কাজীর ছেলে মিথুন স্মার্ট কার্ড আনার জন্য উজানগোপিন্দি উচ্চ বিদ্যালয়ে গেলে সেখানে তাকে মারধর করে উজানগোপিন্দীর লোকজন। ফলে এক পর্যায়ে উভয় গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় বিশনন্দী সড়কে ১ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে।

ঘটনা নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে উত্তেজিত লোকজন পুলিশের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। ফলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ৮ রাউন্ড গুলি ছুড়েঁ ।

ঘটনায় থানা পুলিশের ৫ সদস্য, সাংবাদিক শাহজাহান কবির, গ্রামবাসী মিখুন ও আঃ খালেকসহ উভয় পক্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়। পুলিশ এই ঘটনায় ইউপি সদস্য আঃ রহিম ও গ্রামবাসী রিপনকে আটক করে।

আড়াইহাজার থানার ওসি আজিজুল হক হাওলাদার জানান, পরিস্থিতি আপাতত শান্ত রয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ অবস্থান করছে।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

দুই গ্রামের সংঘর্ষে সাংবাদিক ও পুলিশসহ আহত ২০, আটক ২

Update Time : ০৯:২৬:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ জানুয়ারী ২০২৩

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেরায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামের মধ্যে সংঘর্ষে সাংবাদিক ও পুলিশসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনা নিয়ন্ত্রনে করতে ৮ রাউন্ড গুলি ছুড়েঁ। এই ঘটনায় আহত ৫ পুলিশ সদস্য ও ৩ গ্রামবাসী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা নিয়েছেন।

আজ সোমবার (২ জানুয়ারী) দুপুরে উপজেলার বাহ্মন্দী ইউনিয়নের উজানগোপিন্দী-বিনাইরচর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুক্রবার স্থানীয় এক মাদরাসার ওয়াজ মাহফিলে ছোট বিনাইরচর গ্রামের এক প্রতিবন্ধী ছেলেকে উজানগোপিন্দী গ্রামের লোকজন মারধর করে। এ নিয়ে গত তিন দিন যাবত ছোট বিনাইরচর এবং উজানগোপিন্দি গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। উজানগোপিন্দী গ্রামের লোকজন বেশ কয়েকবার ছোট বিনাইরচর গ্রামে হামলা করে। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার দুপুরে ছোট বিনাইরচর গ্রামের মঞ্জুর কাজীর ছেলে মিথুন স্মার্ট কার্ড আনার জন্য উজানগোপিন্দি উচ্চ বিদ্যালয়ে গেলে সেখানে তাকে মারধর করে উজানগোপিন্দীর লোকজন। ফলে এক পর্যায়ে উভয় গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় বিশনন্দী সড়কে ১ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে।

ঘটনা নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে উত্তেজিত লোকজন পুলিশের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। ফলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ৮ রাউন্ড গুলি ছুড়েঁ ।

ঘটনায় থানা পুলিশের ৫ সদস্য, সাংবাদিক শাহজাহান কবির, গ্রামবাসী মিখুন ও আঃ খালেকসহ উভয় পক্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়। পুলিশ এই ঘটনায় ইউপি সদস্য আঃ রহিম ও গ্রামবাসী রিপনকে আটক করে।

আড়াইহাজার থানার ওসি আজিজুল হক হাওলাদার জানান, পরিস্থিতি আপাতত শান্ত রয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ অবস্থান করছে।