০২:৫৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘জয় বঙ্গবন্ধু’ অন্তর্ভুক্ত করতে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে।

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:৩৯:২১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ জুন ২০২২
  • 34

জাতীয় স্লােগান ‘জয় বাংলা’র প্রজ্ঞাপন সংশোধন করে তাতে ‘জয় বঙ্গবন্ধু’ অন্তর্ভুক্ত করতে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার সুপ্রিম কোর্ট বারের ১১ আইনজীবীর পক্ষে অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল হারুন ভুইয়া এ নোটিশ দেন। মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ সচিব,আইন সচিব এবং শিক্ষা সচিবকে নোটিশের ‘প্রাপক’ করা হয়েছে। নোটিশ প্রাপ্তির ১০ দিনের মধ্যে আশু ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে-মর্মে হুঁশিয়ারি দেয়া হয় নোটিশে।
নোটিশে উল্লেখ করা হয়, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় জয় বাংলা এবং জয় বঙ্গবন্ধু স্লােগান একইসঙ্গে উচ্চারিত হয়েছে। একই স্পিরিট নিয়ে দেশ স্বাধীন হয়েছে। দু’টি পৃথক কোনো স্লােগান নয় এটি।
এছাড়া ২০১৬ সালের ৩মে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে হাইকোর্ট প্রদত্ত রায়ে বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের নেতৃত্বে তৎকালীন ডিভিশন বেঞ্চ বলেছিলেন, বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ এক এবং অভিন্ন। এই দেশটি বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। তাই মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় সমগ্র বাঙালির মুখে মুখে স্লােগান ছিল ‘এক নেতা এক দেশ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’। ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু স্লােগান আমাদের জাতীয় স্লােগান।
আরেক আইনজীবী ড. বশির আহমেদের করা রিটের শুনানি নিয়ে ২০১৭ সালের ৪ ডিসেম্বর রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। ওই রুলে ‘জয় বাংলা’কে কেন জাতীয় স্লােগান হিসেবে ঘোষণা করা হবে না-সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করেছিলেন। ওই রিটে উল্লেখ করা হয়, জয় বাংলা হচ্ছে আমাদের জাতীয় প্রেরণার প্রতীক। পৃথিবীর ৬০টি দেশে জাতীয় স্লােগান রয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের দুর্ভাগ্য যে আমরা আমাদের চেতনার সেই ‘জয় বাংলা’ স্বাধীনতার এতদিন পরেও জাতীয় স্লােগান হিসেবে পাইনি।
উল্লেখ্য, হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুসারে চলতি বছর ২ মার্চ ‘জয় বাংলা’কে জাতীয় স্লােগান স্বীকৃতি দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

‘জয় বঙ্গবন্ধু’ অন্তর্ভুক্ত করতে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে।

Update Time : ১২:৩৯:২১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ জুন ২০২২

জাতীয় স্লােগান ‘জয় বাংলা’র প্রজ্ঞাপন সংশোধন করে তাতে ‘জয় বঙ্গবন্ধু’ অন্তর্ভুক্ত করতে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার সুপ্রিম কোর্ট বারের ১১ আইনজীবীর পক্ষে অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল হারুন ভুইয়া এ নোটিশ দেন। মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ সচিব,আইন সচিব এবং শিক্ষা সচিবকে নোটিশের ‘প্রাপক’ করা হয়েছে। নোটিশ প্রাপ্তির ১০ দিনের মধ্যে আশু ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে-মর্মে হুঁশিয়ারি দেয়া হয় নোটিশে।
নোটিশে উল্লেখ করা হয়, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় জয় বাংলা এবং জয় বঙ্গবন্ধু স্লােগান একইসঙ্গে উচ্চারিত হয়েছে। একই স্পিরিট নিয়ে দেশ স্বাধীন হয়েছে। দু’টি পৃথক কোনো স্লােগান নয় এটি।
এছাড়া ২০১৬ সালের ৩মে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে হাইকোর্ট প্রদত্ত রায়ে বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের নেতৃত্বে তৎকালীন ডিভিশন বেঞ্চ বলেছিলেন, বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ এক এবং অভিন্ন। এই দেশটি বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। তাই মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় সমগ্র বাঙালির মুখে মুখে স্লােগান ছিল ‘এক নেতা এক দেশ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’। ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু স্লােগান আমাদের জাতীয় স্লােগান।
আরেক আইনজীবী ড. বশির আহমেদের করা রিটের শুনানি নিয়ে ২০১৭ সালের ৪ ডিসেম্বর রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। ওই রুলে ‘জয় বাংলা’কে কেন জাতীয় স্লােগান হিসেবে ঘোষণা করা হবে না-সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করেছিলেন। ওই রিটে উল্লেখ করা হয়, জয় বাংলা হচ্ছে আমাদের জাতীয় প্রেরণার প্রতীক। পৃথিবীর ৬০টি দেশে জাতীয় স্লােগান রয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের দুর্ভাগ্য যে আমরা আমাদের চেতনার সেই ‘জয় বাংলা’ স্বাধীনতার এতদিন পরেও জাতীয় স্লােগান হিসেবে পাইনি।
উল্লেখ্য, হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুসারে চলতি বছর ২ মার্চ ‘জয় বাংলা’কে জাতীয় স্লােগান স্বীকৃতি দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার।