০৯:৩১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জনসম্মুখে হত্যা করার বিধান স্থ‌গিত রাখার ইঙ্গিত দি‌লো তা‌লেবান সরকার।

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:৩৪:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১
  • 27

আফগানিস্তান দখলের পর সহিষ্ণু আচরণের আশ্বাস দিলেও পূর্বের চেহারায় ফিরে আসে তালেবানরা। এর মধ্যে অন্যতম হল কেউ অপরাধী সাব্যস্ত হলে জনসম্মুখে হত্যা করার বিধান। আপাতত এমন শাস্তি প্রদান থেকে বিরত থাকার ইঙ্গিত দিয়েছে তালেবান সরকার।

সম্প্রতি তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লা মুজাহিদ এক টুইট বার্তায় আপাতত এমন শাস্তিদান থেকে সরে আসার কথা জানান।

তিনি টুইটে লিখেন, ‘জনসম্মুখে শাস্তি ও দেহ ঝুলিয়ে রাখার মতো পদক্ষেপ আপাতত বন্ধ রাখা হচ্ছে, যতদিন না দেশের সুপ্রিম কোর্ট তা করার জন্য কোনও নির্দেশ দিচ্ছে।’

পাশাপাশি তিনি আরও জানান, ‘যদি অপরাধীকে শাস্তি দেওয়া হয়, তাহলে সেই সাধারণ মানুষকে জানাতে হবে কেন তাকে এই শাস্তি দেওয়া হল।’

স্বাভাবিকভাবেই সবার কৌতুহল হঠাৎ করে তালেবানের কেন এমন পরিবর্তন।

আসল কারণ হচ্ছে আন্তর্জাতিক আঙ্গিনায় স্বীকৃতি চায় তালেবান সরকার। কারণ, তাদের এই ধরনের জনসমক্ষে শাস্তিদানের মতো বর্বর প্রথার বিরুদ্ধে সম্প্রতি সরব হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। পাশাপাশি, এই ধরনের আচরণকে মানবতাবিরোধী বলেও আখ্যায়িত করেছে ওয়াশিংটন।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

জনসম্মুখে হত্যা করার বিধান স্থ‌গিত রাখার ইঙ্গিত দি‌লো তা‌লেবান সরকার।

Update Time : ১২:৩৪:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১

আফগানিস্তান দখলের পর সহিষ্ণু আচরণের আশ্বাস দিলেও পূর্বের চেহারায় ফিরে আসে তালেবানরা। এর মধ্যে অন্যতম হল কেউ অপরাধী সাব্যস্ত হলে জনসম্মুখে হত্যা করার বিধান। আপাতত এমন শাস্তি প্রদান থেকে বিরত থাকার ইঙ্গিত দিয়েছে তালেবান সরকার।

সম্প্রতি তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লা মুজাহিদ এক টুইট বার্তায় আপাতত এমন শাস্তিদান থেকে সরে আসার কথা জানান।

তিনি টুইটে লিখেন, ‘জনসম্মুখে শাস্তি ও দেহ ঝুলিয়ে রাখার মতো পদক্ষেপ আপাতত বন্ধ রাখা হচ্ছে, যতদিন না দেশের সুপ্রিম কোর্ট তা করার জন্য কোনও নির্দেশ দিচ্ছে।’

পাশাপাশি তিনি আরও জানান, ‘যদি অপরাধীকে শাস্তি দেওয়া হয়, তাহলে সেই সাধারণ মানুষকে জানাতে হবে কেন তাকে এই শাস্তি দেওয়া হল।’

স্বাভাবিকভাবেই সবার কৌতুহল হঠাৎ করে তালেবানের কেন এমন পরিবর্তন।

আসল কারণ হচ্ছে আন্তর্জাতিক আঙ্গিনায় স্বীকৃতি চায় তালেবান সরকার। কারণ, তাদের এই ধরনের জনসমক্ষে শাস্তিদানের মতো বর্বর প্রথার বিরুদ্ধে সম্প্রতি সরব হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। পাশাপাশি, এই ধরনের আচরণকে মানবতাবিরোধী বলেও আখ্যায়িত করেছে ওয়াশিংটন।