০৩:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ছিলেন সাংবাদিক, কিন্তু এখন রাস্তায় খাবার বিক্রি করেন !

  • Reporter Name
  • Update Time : ১১:০৯:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ জুন ২০২২
  • 10

আফগানিস্তানে তালেবান ক্ষমতা দখল করে নেওয়া সময় প্রায় এক বছর হতে চলছে। কিন্তু ঘানি সরকারের পতনের পর আগে থেকেই সমস্যায় জর্জরিত থাকা আফগানিস্তান আরও কঠিন সময় পড়ে। কর্মসংস্থানের সমস্যা, অর্থ সংকটের সমস্যাসহ নানাবিধ সমস্যা দেখা দেয়।

এমন পরিস্থিতিতে অনেকে কাজ হারিয়ে মানবেতন জীবনযাপন করছেন। তেমনি একজন হলেন মুসা মোহম্মদি। যিনি কাজ করতের সাংবাদিক হিসেবে। কিন্তু তালেবান ক্ষমতা দখল করে নেওয়ার পর অনেক টেলিভিশন চ্যানেল বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর তার চ্যানেলটিও বন্ধ হয়ে যায়। ফলে পেশা হারিয়ে তিনি এখন রাস্তায় রাস্তায় খাবার বিক্রি করছেন।

কবীর হাকমল নামের একজন টুইটার ব্যবহারকারী সম্প্রতি টুইটারে একটি ছবি শেয়ার করেছেন। সেখানে তিনি ওই সাংবাদিকের দু’টি ছবি করেছে। একটি তালেবান ক্ষমতায় আসার আগে। আর দ্বিতীয়টি তালেবান শাসিত আফগানিস্তানের।

আফগানিস্তানের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইয়ের আমলে সাংবাদিকতার কাজ করতেন তিনি। ভাল উপার্জন করতেন। অনেক দিন ধরেই সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে জড়িত ছিলেন। কিন্তু সেই পেশা ছেড়ে ফল বিক্রি করার কথা স্বপ্নেও ভাবেননি মুসা। শুধু মুসা কেন, তার মতো আরও অনেক মেধাবী এবং উচ্চপদস্থ কর্মীর একই দশা।তালেবান ক্ষমতায় আসার পর থেকেই আফগানিস্তানের আইনকানুন এবং প্রশাসনিক ব্যবস্থায় অনেক পরিবর্তন এনেছে। কিন্তু এই পরিবর্তন যে আফগানিদের জন্য স্বস্তির হয়েছে তেমনটা নয়। তালেবান শাসনে নারীদের ওপর নানা রকম নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। শিক্ষা ব্যবস্থায় নানাবিধ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। আগের সরকারের অধীনে কাজ করেছেন এমন বহু কর্মীকে ছাঁটাই করা হয়েছে। কোনো রকমে দিনযাপন করতে হচ্ছে তাদের। নানা রকম বিধিনিষেধের জেরে আফগানিস্তানের অর্থনীতি খাদের কিনারে পৌঁছেছে। চাকরির জন্য হাহাকার অবস্থা সে দেশে। মুসার হালই তার জলজ্যান্ত উদাহরণ।

সূত্র: ইউন নিউজ,

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

ছিলেন সাংবাদিক, কিন্তু এখন রাস্তায় খাবার বিক্রি করেন !

Update Time : ১১:০৯:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ জুন ২০২২

আফগানিস্তানে তালেবান ক্ষমতা দখল করে নেওয়া সময় প্রায় এক বছর হতে চলছে। কিন্তু ঘানি সরকারের পতনের পর আগে থেকেই সমস্যায় জর্জরিত থাকা আফগানিস্তান আরও কঠিন সময় পড়ে। কর্মসংস্থানের সমস্যা, অর্থ সংকটের সমস্যাসহ নানাবিধ সমস্যা দেখা দেয়।

এমন পরিস্থিতিতে অনেকে কাজ হারিয়ে মানবেতন জীবনযাপন করছেন। তেমনি একজন হলেন মুসা মোহম্মদি। যিনি কাজ করতের সাংবাদিক হিসেবে। কিন্তু তালেবান ক্ষমতা দখল করে নেওয়ার পর অনেক টেলিভিশন চ্যানেল বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর তার চ্যানেলটিও বন্ধ হয়ে যায়। ফলে পেশা হারিয়ে তিনি এখন রাস্তায় রাস্তায় খাবার বিক্রি করছেন।

কবীর হাকমল নামের একজন টুইটার ব্যবহারকারী সম্প্রতি টুইটারে একটি ছবি শেয়ার করেছেন। সেখানে তিনি ওই সাংবাদিকের দু’টি ছবি করেছে। একটি তালেবান ক্ষমতায় আসার আগে। আর দ্বিতীয়টি তালেবান শাসিত আফগানিস্তানের।

আফগানিস্তানের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইয়ের আমলে সাংবাদিকতার কাজ করতেন তিনি। ভাল উপার্জন করতেন। অনেক দিন ধরেই সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে জড়িত ছিলেন। কিন্তু সেই পেশা ছেড়ে ফল বিক্রি করার কথা স্বপ্নেও ভাবেননি মুসা। শুধু মুসা কেন, তার মতো আরও অনেক মেধাবী এবং উচ্চপদস্থ কর্মীর একই দশা।তালেবান ক্ষমতায় আসার পর থেকেই আফগানিস্তানের আইনকানুন এবং প্রশাসনিক ব্যবস্থায় অনেক পরিবর্তন এনেছে। কিন্তু এই পরিবর্তন যে আফগানিদের জন্য স্বস্তির হয়েছে তেমনটা নয়। তালেবান শাসনে নারীদের ওপর নানা রকম নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। শিক্ষা ব্যবস্থায় নানাবিধ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। আগের সরকারের অধীনে কাজ করেছেন এমন বহু কর্মীকে ছাঁটাই করা হয়েছে। কোনো রকমে দিনযাপন করতে হচ্ছে তাদের। নানা রকম বিধিনিষেধের জেরে আফগানিস্তানের অর্থনীতি খাদের কিনারে পৌঁছেছে। চাকরির জন্য হাহাকার অবস্থা সে দেশে। মুসার হালই তার জলজ্যান্ত উদাহরণ।

সূত্র: ইউন নিউজ,