০৯:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুক্তির অধীনে ইউক্রেইন ছাড়ল প্রথম শস্যবাহী জাহাজ

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৬:৩২:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ অগাস্ট ২০২২
  • 48

রাশিয়ার সঙ্গে একটি মাইলফলক চুক্তির অধীনে খাদ্যশস্যবাহী প্রথম জাহাজটি ইউক্রেইনের একটি বন্দর থেকে রওনা হয়েছে।  খবর বিবিসি ও এএফপির।

তুরস্ক ও ইউক্রেইনীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ইউক্রেইনের স্থানীয় সময় সোমবার সকালে দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দর ওদেসা ছাড়ে জাহাজটি।

রাশিয়া ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেইনে আক্রমণ শুরু করার পর থেকে দেশটির বন্দরগুলো অবরোধ করে রেখেছিল, কিন্তু পক্ষ দুটি জাহাজ চলাচল ফের শুরু করার জন্য একটি চুক্তি করে। এই চুক্তির ফলে বিশ্বব্যাপী দেখা দেওয়া খাদ্য সংকট হ্রাস পাবে এবং খাদ্যশস্যের দাম কমবে বলে আশা করা হচ্ছে, জানিয়েছে বিবিসি।

তুরস্ক জানিয়েছে, খাদ্যশস্য নিয়ে রওনা হওয়া সিয়েরা লিওনের পতাকাবাহী জাহাজ রজনির গন্তব্য লেবাননের ত্রিপোলি বন্দর। আসছে সপ্তাহগুলোতে খাদ্যশস্যের আরও কয়েকটি চালান পাঠানোর পরিকল্পনা হয়েছে।

জাতিসংঘ ও তুরস্কের মধ্যস্থতায় হওয়া এ চুক্তি অনুযায়ী ইউক্রেইনের বন্দরগুলো থেকে ছেড়ে আসা ও ওই বন্দর অভিমুখি জাহাজাগুলো পরিদর্শনের জন্য ইস্তাম্বুলে জয়েন্ট কো-অর্ডিনেশন সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। ২৬০০০ টন ভুট্টাবাহী জাহাজ রজনি মঙ্গলবার তুরস্কের জলসীমায় পৌঁছবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস জাহাজটির গন্তব্যের পথে রওনা হওয়াকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং চুক্তি বাস্তবায়নে কাজ করার জন্য তুরস্কের ভূমিকার প্রশংসা করেছেন।

ইউক্রেইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা শস্যের এই চালানকে ‘বিশ্বের জন্য স্বস্তির’ বলে মন্তব্য করেছেন। মস্কোয় ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেশকভ সাংবাদিকদের বলেছেন, ওই জাহাজের রওনা হওয়া ‘অত্যন্ত ইতিবাচক’ অগ্রগতি।

আসছে সপ্তাহগুলোতে ওদেসা অঞ্চলের বন্দরগুলো থেকে আরও ১৬টি জাহাজ খাদ্যশস্য নিয়ে রওনা হবে বলে ইউক্রেইনের অবকাঠামো মন্ত্রী আলেহান্দার কুবরাকোভ জানিয়েছেন।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

চুক্তির অধীনে ইউক্রেইন ছাড়ল প্রথম শস্যবাহী জাহাজ

Update Time : ০৬:৩২:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ অগাস্ট ২০২২

রাশিয়ার সঙ্গে একটি মাইলফলক চুক্তির অধীনে খাদ্যশস্যবাহী প্রথম জাহাজটি ইউক্রেইনের একটি বন্দর থেকে রওনা হয়েছে।  খবর বিবিসি ও এএফপির।

তুরস্ক ও ইউক্রেইনীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ইউক্রেইনের স্থানীয় সময় সোমবার সকালে দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দর ওদেসা ছাড়ে জাহাজটি।

রাশিয়া ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেইনে আক্রমণ শুরু করার পর থেকে দেশটির বন্দরগুলো অবরোধ করে রেখেছিল, কিন্তু পক্ষ দুটি জাহাজ চলাচল ফের শুরু করার জন্য একটি চুক্তি করে। এই চুক্তির ফলে বিশ্বব্যাপী দেখা দেওয়া খাদ্য সংকট হ্রাস পাবে এবং খাদ্যশস্যের দাম কমবে বলে আশা করা হচ্ছে, জানিয়েছে বিবিসি।

তুরস্ক জানিয়েছে, খাদ্যশস্য নিয়ে রওনা হওয়া সিয়েরা লিওনের পতাকাবাহী জাহাজ রজনির গন্তব্য লেবাননের ত্রিপোলি বন্দর। আসছে সপ্তাহগুলোতে খাদ্যশস্যের আরও কয়েকটি চালান পাঠানোর পরিকল্পনা হয়েছে।

জাতিসংঘ ও তুরস্কের মধ্যস্থতায় হওয়া এ চুক্তি অনুযায়ী ইউক্রেইনের বন্দরগুলো থেকে ছেড়ে আসা ও ওই বন্দর অভিমুখি জাহাজাগুলো পরিদর্শনের জন্য ইস্তাম্বুলে জয়েন্ট কো-অর্ডিনেশন সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। ২৬০০০ টন ভুট্টাবাহী জাহাজ রজনি মঙ্গলবার তুরস্কের জলসীমায় পৌঁছবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস জাহাজটির গন্তব্যের পথে রওনা হওয়াকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং চুক্তি বাস্তবায়নে কাজ করার জন্য তুরস্কের ভূমিকার প্রশংসা করেছেন।

ইউক্রেইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা শস্যের এই চালানকে ‘বিশ্বের জন্য স্বস্তির’ বলে মন্তব্য করেছেন। মস্কোয় ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেশকভ সাংবাদিকদের বলেছেন, ওই জাহাজের রওনা হওয়া ‘অত্যন্ত ইতিবাচক’ অগ্রগতি।

আসছে সপ্তাহগুলোতে ওদেসা অঞ্চলের বন্দরগুলো থেকে আরও ১৬টি জাহাজ খাদ্যশস্য নিয়ে রওনা হবে বলে ইউক্রেইনের অবকাঠামো মন্ত্রী আলেহান্দার কুবরাকোভ জানিয়েছেন।