০৪:১২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি থে‌কে পরীমণি ও একার সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৬:৩৩:২০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অগাস্ট ২০২১
  • 26

চিত্রনায়িকা পরীমণি ও একার সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত করেছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। শনিবার বিকেল ৫টায় এক সংবাদসম্মেলনে এ ঘোষণা দেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর।

কার্যনির্বাহী কমিটির সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে মিশা সওদাগর বলেন, গণমাধ্যমের মাধ্যমে জানতে পেরেছি শিল্পী সমিতির সদস্য চিত্রনায়িকা পরীমণি ও একা দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছে। এ বিষয়ে মামলাও চলছে। তাদের ব্যক্তিগত কোনো অনৈতিক ও অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের দায়িত্ব বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি নেবে না। তাদের ব্যক্তিগত যাবতীয় কর্মকাণ্ডের দায়-দায়িত্ব শুধুমাত্র তাদেরই। এর সঙ্গে শিল্পী সমিতির কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। যেহেতু সুনির্দিষ্ট অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে সেহেতু বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সুনাম ও ভাবমূর্তি অক্ষুণ্ন রাখতে যথাযথ বিধি মোতাবেক আপাতত তাদের সদস্য পদ সাময়িকভাবে স্থগিত রাখা হলো।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির গঠনতন্ত্রের ৬-এর ‘খ’ ও ৯-এর ‘গ’ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, সমিতির কোনো সদস্য যদি সমিতির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে কোনো কাজে লিপ্ত হয় সঙ্গে সঙ্গে তার সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত হবে। তবে আদালতে যদি প্রমাণ হয় তিনি নির্দোষ, তাহলে ফিরে পাবেন পদ। আর যদি দোষী সাব্যস্ত হন, তাহলে আজীবনের জন্য সমিতির সদস্যপদ হারাবেন। সে কারণেই পরীমণি ও একার সদস্যপদ পুরোপুরি বাতিল না করে সাময়িক স্থগিত রাখা হয়েছে।

Tag :
About Author Information

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি থে‌কে পরীমণি ও একার সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত।

Update Time : ০৬:৩৩:২০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অগাস্ট ২০২১

চিত্রনায়িকা পরীমণি ও একার সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত করেছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। শনিবার বিকেল ৫টায় এক সংবাদসম্মেলনে এ ঘোষণা দেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর।

কার্যনির্বাহী কমিটির সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে মিশা সওদাগর বলেন, গণমাধ্যমের মাধ্যমে জানতে পেরেছি শিল্পী সমিতির সদস্য চিত্রনায়িকা পরীমণি ও একা দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছে। এ বিষয়ে মামলাও চলছে। তাদের ব্যক্তিগত কোনো অনৈতিক ও অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের দায়িত্ব বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি নেবে না। তাদের ব্যক্তিগত যাবতীয় কর্মকাণ্ডের দায়-দায়িত্ব শুধুমাত্র তাদেরই। এর সঙ্গে শিল্পী সমিতির কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। যেহেতু সুনির্দিষ্ট অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে সেহেতু বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সুনাম ও ভাবমূর্তি অক্ষুণ্ন রাখতে যথাযথ বিধি মোতাবেক আপাতত তাদের সদস্য পদ সাময়িকভাবে স্থগিত রাখা হলো।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির গঠনতন্ত্রের ৬-এর ‘খ’ ও ৯-এর ‘গ’ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, সমিতির কোনো সদস্য যদি সমিতির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে কোনো কাজে লিপ্ত হয় সঙ্গে সঙ্গে তার সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত হবে। তবে আদালতে যদি প্রমাণ হয় তিনি নির্দোষ, তাহলে ফিরে পাবেন পদ। আর যদি দোষী সাব্যস্ত হন, তাহলে আজীবনের জন্য সমিতির সদস্যপদ হারাবেন। সে কারণেই পরীমণি ও একার সদস্যপদ পুরোপুরি বাতিল না করে সাময়িক স্থগিত রাখা হয়েছে।