১০:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খালেদা জিয়ার হার্টে একটি রিং বসানো হয়েছে :মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৭:৫৫:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুন ২০২২
  • 34

খালেদা জিয়া

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার হার্টে একটি রিং বসানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। হার্টের প্রধান ধমনীতে ৯৫ শতাংশ ব্লক ধরা পড়ায় রিং পড়ানো হয়।

এসময় তিনি আরো বলেন, অবিলম্বে উন্নত চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানো না হলে তার জীবন হুমকির মুখে পড়বে।শনিবার বিকেল ৪টার দিকে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। আনুষ্ঠানিকভাবে খালেদা জিয়ার শারীরিক আপডেট তুলে ধরেন তিনি।

ফখরুল বলেন, ‘আমরা আশাবাদী, দোয়া করি আগের মতোই তিনি অসুস্থতা কাটিয়ে উঠবেন এবং সুস্থ হয়ে আমাদের মধ্যে ফিরে আসবেন।’সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ চৌধুরী টুকু প্রমুখ।এর আগে দুপুর আড়াইটার দিকে এভারকেয়ার হাসপাতালে এনজিওগ্রামের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। এসময় উন্নত চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোরও পরামর্শ দিয়েছে মেডিকেল বোর্ড।শুক্রবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ বোধ করায় খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত ৩টা ২০ মিনিটের দিকে নেয়া হয় সিসিইউতে। সকালে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে বৈঠক করে ১০ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড। সভায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও উপস্থিত ছিলেন।

২০২১ সালের এপ্রিলে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত পাঁচ দফায় হাসপাতালে ভর্তি করা হলো খালেদা জিয়াকে।৭৬ বছর বয়সী বিএনপি চেয়ারপারসন বহু বছর ধরে আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, কিডনি, ফুসফুস, চোখের সমস্যাসহ নানা জটিলতায় ভুগছেন।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

খালেদা জিয়ার হার্টে একটি রিং বসানো হয়েছে :মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

Update Time : ০৭:৫৫:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুন ২০২২

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার হার্টে একটি রিং বসানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। হার্টের প্রধান ধমনীতে ৯৫ শতাংশ ব্লক ধরা পড়ায় রিং পড়ানো হয়।

এসময় তিনি আরো বলেন, অবিলম্বে উন্নত চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানো না হলে তার জীবন হুমকির মুখে পড়বে।শনিবার বিকেল ৪টার দিকে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। আনুষ্ঠানিকভাবে খালেদা জিয়ার শারীরিক আপডেট তুলে ধরেন তিনি।

ফখরুল বলেন, ‘আমরা আশাবাদী, দোয়া করি আগের মতোই তিনি অসুস্থতা কাটিয়ে উঠবেন এবং সুস্থ হয়ে আমাদের মধ্যে ফিরে আসবেন।’সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ চৌধুরী টুকু প্রমুখ।এর আগে দুপুর আড়াইটার দিকে এভারকেয়ার হাসপাতালে এনজিওগ্রামের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। এসময় উন্নত চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোরও পরামর্শ দিয়েছে মেডিকেল বোর্ড।শুক্রবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ বোধ করায় খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত ৩টা ২০ মিনিটের দিকে নেয়া হয় সিসিইউতে। সকালে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে বৈঠক করে ১০ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড। সভায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও উপস্থিত ছিলেন।

২০২১ সালের এপ্রিলে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত পাঁচ দফায় হাসপাতালে ভর্তি করা হলো খালেদা জিয়াকে।৭৬ বছর বয়সী বিএনপি চেয়ারপারসন বহু বছর ধরে আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, কিডনি, ফুসফুস, চোখের সমস্যাসহ নানা জটিলতায় ভুগছেন।