০৩:৩১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খালেদা জিয়াকে বন্দী করে শেখ হাসিনা গোটা দেশের মানুষের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায় করছেন।রিজভী

  • Reporter Name
  • Update Time : ১০:১৫:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ জুন ২০২২
  • 32

সরকারের লুটপাটের জন্য সাধারণ মানুষ অসহায়: রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আজকে যার হাতে শাসনভার থাকার কথা, যিনি প্রধানমন্ত্রী থাকার কথা তাকেই নিশিরাতের সরকার নিপীড়ন করছে। বিএনপির চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দেশের নির্বাচিত সাবেক প্রধানমন্ত্রী। তিনি জনগণের নেত্রী। আজকে তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকার কথা। কিন্তু তাকে মিথ্যা ও বানানো মামলায় কারাবন্দী করা হয়েছে। মঙ্গলবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় জিয়া পরিষদ আয়োজিত অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

সংগঠনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. আবদুল কুদ্দুসের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিলে অংশ নেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, জিয়া পরিষদের অধ্যাপক লুৎফর রহমান, ড. এমতাজ হোসেন, আবদুল্লাহিল মাসুদ, আবুল কালাম আজাদ, প্রকৌশলী রুহুল আলম, ড. মোহাম্মদ আবু জাফর, মোঃ শহীদুল ইসলাম, প্রকৌশলী শরীফুজ্জামান, অধ্যাপক ড. মো: নূরুল ইসলাম প্রমুখ।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, শীর্ষ সন্ত্রাসীরা যেভাবে মুক্তিপণ আদায় করে। সেভাবে খালেদা জিয়াকে বন্দী করে শেখ হাসিনা গোটা দেশের মানুষের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায় করছেন। আজকে পদ্মা সেতু নির্মাণ করে গর্ব করছেন। কই বিএনপির শাসনামলে তো লালন শাহ সেতু নির্মিত হয়েছে। আমরা তো ঢাকঢোল পেটায়নি। আজকে সরকার বাজেট দিয়েছে। কিন্তু দেশের মানুষ যে এক বেলা না খেয়ে থাকে, আধাবেলা না খেয়ে থাকে তা কি শেখ হাসিনা জানে? তাদের মেগালুটের কারণে এই অবস্থা তৈরি হয়েছে। শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা বাড়ছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়েছে কয়েকগুণ। এসব কি শেখ হাসিনা জানেন? জানবে কি করে তার লোকেরা তো বছরে কোটি কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছেন। এখন তারা পাচারকৃত অর্থ ফিরিয়ে আনার নামে কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দিয়েছেন। এটা অনৈতিক ঘোষণা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, আজকে সাধারণ মানুষের মনে পদ্মা সেতু নিয়ে কোনো আগ্রহ নেই। তাদের মাথাব্যাথা দুই বেলা খাবার যোগাড় করা। তারা পদ্মা সেতুর হাজার পাওয়ারের বাল্ব জ¦ালানো নিয়ে উৎসাহী না। তিনি বলেন, এই সরকারের আমলে কোনোদিন সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। এটা সবাই জানে। এই নির্বাচন কমিশনও শেখ হাসিনার রান্না ঘরের নির্বাচন কমিশন। অর্থাৎ আওয়ামী লীগ ভোট চুরি করবে, ব্যালট ছিনতাই করবে আর সেই অপকর্ম পাহারা দিবে নির্বাচন কমিশন। সে জন্যই সাধারণ মানুষ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করছে। সুতরাং এই সরকারের অধীনে কখনোই সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হবে না।

রিজভী বলেন, বেগম খালেদা জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ। আমরা তার আশু রোগমুক্তি কামনা করছি। সেইসাথে আল্লাহর কাছে দোয়া করি তিনি যেন সুস্থ হয়ে উঠেন। কেননা খালেদা জিয়া কখনো অন্যায়ের কাছে এবং ওয়ান ইলেভেনের সময় তিনি কোনো চাপে মাথা নত করেননি। দেশত্যাগে কঠোর চাপ প্রয়োগ করা হলেও তিনি তা করেননি।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

খালেদা জিয়াকে বন্দী করে শেখ হাসিনা গোটা দেশের মানুষের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায় করছেন।রিজভী

Update Time : ১০:১৫:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ জুন ২০২২

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আজকে যার হাতে শাসনভার থাকার কথা, যিনি প্রধানমন্ত্রী থাকার কথা তাকেই নিশিরাতের সরকার নিপীড়ন করছে। বিএনপির চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দেশের নির্বাচিত সাবেক প্রধানমন্ত্রী। তিনি জনগণের নেত্রী। আজকে তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকার কথা। কিন্তু তাকে মিথ্যা ও বানানো মামলায় কারাবন্দী করা হয়েছে। মঙ্গলবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় জিয়া পরিষদ আয়োজিত অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

সংগঠনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. আবদুল কুদ্দুসের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিলে অংশ নেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, জিয়া পরিষদের অধ্যাপক লুৎফর রহমান, ড. এমতাজ হোসেন, আবদুল্লাহিল মাসুদ, আবুল কালাম আজাদ, প্রকৌশলী রুহুল আলম, ড. মোহাম্মদ আবু জাফর, মোঃ শহীদুল ইসলাম, প্রকৌশলী শরীফুজ্জামান, অধ্যাপক ড. মো: নূরুল ইসলাম প্রমুখ।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, শীর্ষ সন্ত্রাসীরা যেভাবে মুক্তিপণ আদায় করে। সেভাবে খালেদা জিয়াকে বন্দী করে শেখ হাসিনা গোটা দেশের মানুষের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায় করছেন। আজকে পদ্মা সেতু নির্মাণ করে গর্ব করছেন। কই বিএনপির শাসনামলে তো লালন শাহ সেতু নির্মিত হয়েছে। আমরা তো ঢাকঢোল পেটায়নি। আজকে সরকার বাজেট দিয়েছে। কিন্তু দেশের মানুষ যে এক বেলা না খেয়ে থাকে, আধাবেলা না খেয়ে থাকে তা কি শেখ হাসিনা জানে? তাদের মেগালুটের কারণে এই অবস্থা তৈরি হয়েছে। শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা বাড়ছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়েছে কয়েকগুণ। এসব কি শেখ হাসিনা জানেন? জানবে কি করে তার লোকেরা তো বছরে কোটি কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছেন। এখন তারা পাচারকৃত অর্থ ফিরিয়ে আনার নামে কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দিয়েছেন। এটা অনৈতিক ঘোষণা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, আজকে সাধারণ মানুষের মনে পদ্মা সেতু নিয়ে কোনো আগ্রহ নেই। তাদের মাথাব্যাথা দুই বেলা খাবার যোগাড় করা। তারা পদ্মা সেতুর হাজার পাওয়ারের বাল্ব জ¦ালানো নিয়ে উৎসাহী না। তিনি বলেন, এই সরকারের আমলে কোনোদিন সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। এটা সবাই জানে। এই নির্বাচন কমিশনও শেখ হাসিনার রান্না ঘরের নির্বাচন কমিশন। অর্থাৎ আওয়ামী লীগ ভোট চুরি করবে, ব্যালট ছিনতাই করবে আর সেই অপকর্ম পাহারা দিবে নির্বাচন কমিশন। সে জন্যই সাধারণ মানুষ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করছে। সুতরাং এই সরকারের অধীনে কখনোই সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হবে না।

রিজভী বলেন, বেগম খালেদা জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ। আমরা তার আশু রোগমুক্তি কামনা করছি। সেইসাথে আল্লাহর কাছে দোয়া করি তিনি যেন সুস্থ হয়ে উঠেন। কেননা খালেদা জিয়া কখনো অন্যায়ের কাছে এবং ওয়ান ইলেভেনের সময় তিনি কোনো চাপে মাথা নত করেননি। দেশত্যাগে কঠোর চাপ প্রয়োগ করা হলেও তিনি তা করেননি।