০৪:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কাস্পিয়ান সাগরে ইরা‌নের সাম‌রিক মহড়া: ‘ইয়াসির’ ও ‘আবাবিল’ ড্রোনের সফল পরীক্ষা।।

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৯:৪৩:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ জুলাই ২০২১
  • 17

কাস্পিয়ান সাগরে নৌযান শনাক্তের অভিযান সাফল্যের সঙ্গে সম্পন্ন করেছে ইরানে ‘ইয়াসির’ ও ‘আবাবিল’ ড্রোন। ইরানের নৌবাহিনী আজ থেকে কাস্পিয়ান সাগরে মহড়া শুরু করেছে।

এরই অংশ হিসেবে এসব ড্রোন প্রতিপক্ষের নৌযান শনাক্তকরণ অভিযান চালিয়েছে। চলমান মহড়ার নাম দেওয়া হয়েছে ‘কাস্পিয়ান সাগরের টেকসই নিরাপত্তা-২০২১’।

ইরানের ইয়াসির ও আবাবিল ড্রোন বিভিন্ন নৌযানের অবস্থান শনাক্ত করে সঙ্গে সঙ্গে সেগুলোর ছবি ও অবস্থানস্থলের সুনির্দিষ্ট তথ্য কন্ট্রোল রুমে পাঠিয়েছে যা ছিল অত্যন্ত সন্তোষজনক।

এই মহড়ায় বিভিন্ন ধরণের ড্রোন ছাড়াও বিমান, হেলিকপ্টার, ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ডেস্ট্রয়ার এবং উন্নত ইলেকট্রনিক ওয়ারফেয়ার সিস্টেম ব্যবহার করা হচ্ছে।

কাস্পিয়ান সাগরের ৭ হাজার ৭০০ বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে এই মহড়া চলছে। এতে সর্বাত্মক সহযোগিতা ইরানের বিমান বাহিনী এবং আকাশ প্রতিরক্ষা ইউনিট।

কাস্পিয়ান সাগরে রয়েছে ইরানের বিশাল জলসীমা।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

কাস্পিয়ান সাগরে ইরা‌নের সাম‌রিক মহড়া: ‘ইয়াসির’ ও ‘আবাবিল’ ড্রোনের সফল পরীক্ষা।।

Update Time : ০৯:৪৩:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ জুলাই ২০২১

কাস্পিয়ান সাগরে নৌযান শনাক্তের অভিযান সাফল্যের সঙ্গে সম্পন্ন করেছে ইরানে ‘ইয়াসির’ ও ‘আবাবিল’ ড্রোন। ইরানের নৌবাহিনী আজ থেকে কাস্পিয়ান সাগরে মহড়া শুরু করেছে।

এরই অংশ হিসেবে এসব ড্রোন প্রতিপক্ষের নৌযান শনাক্তকরণ অভিযান চালিয়েছে। চলমান মহড়ার নাম দেওয়া হয়েছে ‘কাস্পিয়ান সাগরের টেকসই নিরাপত্তা-২০২১’।

ইরানের ইয়াসির ও আবাবিল ড্রোন বিভিন্ন নৌযানের অবস্থান শনাক্ত করে সঙ্গে সঙ্গে সেগুলোর ছবি ও অবস্থানস্থলের সুনির্দিষ্ট তথ্য কন্ট্রোল রুমে পাঠিয়েছে যা ছিল অত্যন্ত সন্তোষজনক।

এই মহড়ায় বিভিন্ন ধরণের ড্রোন ছাড়াও বিমান, হেলিকপ্টার, ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ডেস্ট্রয়ার এবং উন্নত ইলেকট্রনিক ওয়ারফেয়ার সিস্টেম ব্যবহার করা হচ্ছে।

কাস্পিয়ান সাগরের ৭ হাজার ৭০০ বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে এই মহড়া চলছে। এতে সর্বাত্মক সহযোগিতা ইরানের বিমান বাহিনী এবং আকাশ প্রতিরক্ষা ইউনিট।

কাস্পিয়ান সাগরে রয়েছে ইরানের বিশাল জলসীমা।