১০:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ওবায়দুল কাদেরকে সতর্ক করলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল

  • Reporter Name
  • Update Time : ০১:৫৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৪ জুন ২০২২
  • 29

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে সতর্ক করলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

তিনি বলেন, ‘আমি ওবায়দুল কাদেরকে সতর্ক করে বল‌তে চাই- আপনারা তো ইতিহাস থেকে শিক্ষা নেন না, এবার একটু শিক্ষা নেন। মনে আছে ১৯৭৪ সালের কথা? তখন দুর্ভিক্ষ হয়েছিল খাদ্যের অভাব ও দাম বৃদ্ধির কারণে। আজকে আবার খাদ্যের দাম বাড়ছে। মানুষের হাহাকার শুরু হয়েছে।’ শুক্রবার (৩ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪১তম ও জাগপার প্রতিষ্ঠাতা শফিউল আলম প্রধানের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জাগপা আ‌য়ো‌জিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘সেই সময়ে আপনি যদি দেয়ালের লিখন না পড়েন, ওই সমস্ত উল্টো-পাল্টা কথা বলে লাভ নেই। আপনারা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় ফিরে আসুন, গণতন্ত্রের পরিবেশ তৈরি করুন, মানুষকে কথা বলতে দিন, অধিকার প্রয়োগ করতে দিন। আমাদের ধমকাচ্ছেন, ভয়ানক পরিণতি হবে, ভয়ানক পরিণতি তো আওয়ামী লীগ দেখেছে অতীতে। সেই ভয়ানক পরিণতি যেন আবার না হয়, তার জন্য এখন থেকে জনগণের অধিকারগুলোকে ফিরিয়ে দেন, মানুষ হত্যা বন্ধ করেন, মিথ্যা মামলা দেওয়া বন্ধ করেন এবং খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেন।’মহাসচিব মির্জা‌ ফখরুল বলেন, ‘মন্ত্রী নিজে স্বীকার করছেন সিন্ডিকেটরা দাম বাড়াচ্ছে। তাহলে আপ‌নি আছেন কেন? সি‌ন্ডি‌কেট‌কে নিয়ন্ত্রণ করতে না পার‌লে, দুর্নীতিবাজদের ধরতে না পে‌রে ছোট-ছোট আড়তদারদের ধরে বেড়াচ্ছেন।’

 

তি‌নি ব‌লেন, ‘বাজা‌রের আসল ব্যাপার মি‌ডিয়ায় এসেছে। বড়-বড় কর্পোরেটগুলো বেশি চাল কিনছে, যার কার‌ণে চালের দাম বেড়ে যাচ্ছে। সরকারের প্রশ্রয় ও মদদ ছাড়া কখনই এটা করা সম্ভব না। তাই আমরা বারবার বলছি, সরকারের শুধু কারসাজি নয়, সরাসরি সম্পৃক্ততা আছে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির সঙ্গে।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘ব্যর্থতার দায় নি‌য়ে এখন অবশ্যই তাদের সরে যেতে হবে। নিরপেক্ষ সরকারের হাতে দায়িত্ব দিতে হবে। সেই সরকারকে নতুন কমিশন গঠন করে নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে। কিন্তু চাইলেই তো তারা এটা কর‌বে না। যারা জোর করে ক্ষমতায় থাকে তারা কি কখনও এসব শুন‌বে? এটা আমাদের জোর করে আদায় করতে হবে। সেটা জনগণের শক্তিতে আদায় করতে হবে। আমাদের তো অন্য শক্তি নেই, শক্তি একটাই জনগণ।’

আয়োজক দলের সভাপতি খন্দকার লুৎফর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও অংশ নেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষেদের সদস্য আমান উল্লাহ আমান, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদা, এলডিপির একাংশের মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ।

 

 

মেয়া/সনি

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

ওবায়দুল কাদেরকে সতর্ক করলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল

Update Time : ০১:৫৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৪ জুন ২০২২

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে সতর্ক করলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

তিনি বলেন, ‘আমি ওবায়দুল কাদেরকে সতর্ক করে বল‌তে চাই- আপনারা তো ইতিহাস থেকে শিক্ষা নেন না, এবার একটু শিক্ষা নেন। মনে আছে ১৯৭৪ সালের কথা? তখন দুর্ভিক্ষ হয়েছিল খাদ্যের অভাব ও দাম বৃদ্ধির কারণে। আজকে আবার খাদ্যের দাম বাড়ছে। মানুষের হাহাকার শুরু হয়েছে।’ শুক্রবার (৩ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪১তম ও জাগপার প্রতিষ্ঠাতা শফিউল আলম প্রধানের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জাগপা আ‌য়ো‌জিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘সেই সময়ে আপনি যদি দেয়ালের লিখন না পড়েন, ওই সমস্ত উল্টো-পাল্টা কথা বলে লাভ নেই। আপনারা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় ফিরে আসুন, গণতন্ত্রের পরিবেশ তৈরি করুন, মানুষকে কথা বলতে দিন, অধিকার প্রয়োগ করতে দিন। আমাদের ধমকাচ্ছেন, ভয়ানক পরিণতি হবে, ভয়ানক পরিণতি তো আওয়ামী লীগ দেখেছে অতীতে। সেই ভয়ানক পরিণতি যেন আবার না হয়, তার জন্য এখন থেকে জনগণের অধিকারগুলোকে ফিরিয়ে দেন, মানুষ হত্যা বন্ধ করেন, মিথ্যা মামলা দেওয়া বন্ধ করেন এবং খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেন।’মহাসচিব মির্জা‌ ফখরুল বলেন, ‘মন্ত্রী নিজে স্বীকার করছেন সিন্ডিকেটরা দাম বাড়াচ্ছে। তাহলে আপ‌নি আছেন কেন? সি‌ন্ডি‌কেট‌কে নিয়ন্ত্রণ করতে না পার‌লে, দুর্নীতিবাজদের ধরতে না পে‌রে ছোট-ছোট আড়তদারদের ধরে বেড়াচ্ছেন।’

 

তি‌নি ব‌লেন, ‘বাজা‌রের আসল ব্যাপার মি‌ডিয়ায় এসেছে। বড়-বড় কর্পোরেটগুলো বেশি চাল কিনছে, যার কার‌ণে চালের দাম বেড়ে যাচ্ছে। সরকারের প্রশ্রয় ও মদদ ছাড়া কখনই এটা করা সম্ভব না। তাই আমরা বারবার বলছি, সরকারের শুধু কারসাজি নয়, সরাসরি সম্পৃক্ততা আছে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির সঙ্গে।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘ব্যর্থতার দায় নি‌য়ে এখন অবশ্যই তাদের সরে যেতে হবে। নিরপেক্ষ সরকারের হাতে দায়িত্ব দিতে হবে। সেই সরকারকে নতুন কমিশন গঠন করে নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে। কিন্তু চাইলেই তো তারা এটা কর‌বে না। যারা জোর করে ক্ষমতায় থাকে তারা কি কখনও এসব শুন‌বে? এটা আমাদের জোর করে আদায় করতে হবে। সেটা জনগণের শক্তিতে আদায় করতে হবে। আমাদের তো অন্য শক্তি নেই, শক্তি একটাই জনগণ।’

আয়োজক দলের সভাপতি খন্দকার লুৎফর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও অংশ নেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষেদের সদস্য আমান উল্লাহ আমান, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদা, এলডিপির একাংশের মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ।

 

 

মেয়া/সনি