০৫:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘উন্নয়নের নামে জনগণকে ধোকা দিচ্ছে সরকার’

আওয়ামী লীগ ১৪ বছর ধরে উন্নয়নের নামে মানুষকে বোকা বানিয়ে প্রতারণা করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ (শনিবার) সকালে ঠাকুরগাঁওয়ে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে এ অভিযোগ করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশে বাস্তবে কোন উন্নয়ন নেই। উন্নয়ন হয়েছে শুধু সরকারি দলের নেতাদের। এই নেতারা নিজেদের নিয়েই ব্যস্ত।

তিনি বলেন, ১৪ বছর ধরে আওয়ামী লীগ নাশকতা-সন্ত্রাস করে গোটা বাংলাদেশকে শ্মশানে পরিণত করেছে। তাদের বিরুদ্ধে কথা বললেই দেয়া হয় মামলা।

কথা বলা যাবে না, প্রতিবাদ করাও যাবে না। মিছিল-মিটিং ও সভা-সমাবেশ করা যাবে না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, এবার আমরা ঠিক করেছি হারিয়ে দেয়া নির্বাচনে আর যাব না।

ওদের গণতন্ত্র  চুরি করার গণতন্ত্র, লুট করার গণতন্ত্র, টাকা পাচার করার গণতন্ত্র; মানুষকে হত্যা করার গণতন্ত্র। এটা হতে দেয়া যাবে না; এ লক্ষ্যেই আমরা আন্দোলন শুরু করছি।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সাল আমিনসহ জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

Tag :
About Author Information

ভারতে ৩শ’ রুপির গয়না ৬ কোটিতে বিক্রি করে মার্কিন নারীর সঙ্গে প্রতারণা।

‘উন্নয়নের নামে জনগণকে ধোকা দিচ্ছে সরকার’

Update Time : ০৫:১৮:১৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৩

আওয়ামী লীগ ১৪ বছর ধরে উন্নয়নের নামে মানুষকে বোকা বানিয়ে প্রতারণা করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ (শনিবার) সকালে ঠাকুরগাঁওয়ে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে এ অভিযোগ করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশে বাস্তবে কোন উন্নয়ন নেই। উন্নয়ন হয়েছে শুধু সরকারি দলের নেতাদের। এই নেতারা নিজেদের নিয়েই ব্যস্ত।

তিনি বলেন, ১৪ বছর ধরে আওয়ামী লীগ নাশকতা-সন্ত্রাস করে গোটা বাংলাদেশকে শ্মশানে পরিণত করেছে। তাদের বিরুদ্ধে কথা বললেই দেয়া হয় মামলা।

কথা বলা যাবে না, প্রতিবাদ করাও যাবে না। মিছিল-মিটিং ও সভা-সমাবেশ করা যাবে না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, এবার আমরা ঠিক করেছি হারিয়ে দেয়া নির্বাচনে আর যাব না।

ওদের গণতন্ত্র  চুরি করার গণতন্ত্র, লুট করার গণতন্ত্র, টাকা পাচার করার গণতন্ত্র; মানুষকে হত্যা করার গণতন্ত্র। এটা হতে দেয়া যাবে না; এ লক্ষ্যেই আমরা আন্দোলন শুরু করছি।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সাল আমিনসহ জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ।