১২:৪৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

‘উড়োজাহাজে হাতাহাতির ঘটনাটি বাংলাদেশ বিমানের নয়’

উড়োজাহাজে হাতাহাতির ঘটনা মাঝে মাঝেই প্রকাশ্যে আসে। বেশ কিছু দিন ধরে এমনই একটি ভিডিও ভারতীয় সংবাদমাধ্যমসহ দেশি কয়েকটি মিডিয়ায় এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

সেখানে দাবি করা হয়, এটি বাংলাদেশ বিমানের একটি উড়োজাহাজে হাতাহাতির দৃশ্য। তবে বিমান কর্তৃপক্ষ বলেছে, এটা ভিত্তিহীন।

বাংলাদেশ বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও শফিউল আজিম চ্যানেল আই অনলাইনকে জানান, ভিডিওটি বাংলাদেশ বিমানের বলে প্রকাশ করা হচ্ছে, যা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এটি বাংলাদেশ বিমানের নয়। এখানে বাংলাদেশ বিমানের কোনো প্রমাণ নেই।

ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, এক যুবকের শরীরে পোশাক নেই। ওই অবস্থাতেই তিনি একের পর এক ঘুষি চালাচ্ছেন সামনে বসে থাকা যাত্রীর মুখে। পাল্টা ওই যাত্রী তার মুখে এক চড় কষান। মুখের ভিতর হাতও ঢুকিয়ে দেন। তাতে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে পাল্টা মারতে শুরু করেন ওই যুবক।

বিমান বাংলাদেশ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, ‘গত বেশ কয়েকদিন যাবৎ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম প্লেনের ভিতর দুইজন যাত্রীর হাতাহাতির একটি ভিডিও জনৈক দিপংকর বিশ্বাসের বরাত দিয়ে বাংলাদেশ বিমানের বলে প্রচার করা হচ্ছে। বাংলাদেশ বিমানে দিপংকর বিশ্বাস নামে কোন ইনফ্লাইট পরিষেবা কর্মী নেই।

ইনফ্লাইটে এ ধরণের ঘটনা ঘটলে বিমানের এসওপি অনুযায়ী পার্সার লগ এবং লগে লিপিবদ্ধ করা হয়।

ঘটনার গুরুত্ব বিবেচনা করে তৎক্ষণাৎ কর্তৃপক্ষের নজরে আনা হয় এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। বাংলাদেশ বিমানে এ ধরণের কোন ঘটনার বর্ণনা পাওয়া যায়নি।’

উল্লেখ্য, প্রকাশিত ভিডিওতে বিমানের আসনে বসে থাকা ওই ব্যক্তির মুখ দেখা যায়নি।

তবে তার পরনে ছিল সাদা শার্ট। আক্রমণকারী যুবক তার কাছ থেকে কিছু কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করছিলেন। সফল না হয়েই আক্রমণ করেন।

অন্যদিকে, আক্রমণকারী যুবককে দেখা যায় মারতে মারতেই কান্নায় ভেঙে পড়ছেন। যদিও কী নিয়ে দু’জনের ঝগড়া বা হাতাহাতি, তা স্পষ্ট নয় ওই ভিডিওতে।

সেখানে দেখা যায় দু’জনকেই সামলাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন বিমানের বাকি যাত্রীরা। ভিডিওটি সেখানেই শেষ হয়।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

‘উড়োজাহাজে হাতাহাতির ঘটনাটি বাংলাদেশ বিমানের নয়’

Update Time : ০১:৪০:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১১ জানুয়ারী ২০২৩

উড়োজাহাজে হাতাহাতির ঘটনা মাঝে মাঝেই প্রকাশ্যে আসে। বেশ কিছু দিন ধরে এমনই একটি ভিডিও ভারতীয় সংবাদমাধ্যমসহ দেশি কয়েকটি মিডিয়ায় এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

সেখানে দাবি করা হয়, এটি বাংলাদেশ বিমানের একটি উড়োজাহাজে হাতাহাতির দৃশ্য। তবে বিমান কর্তৃপক্ষ বলেছে, এটা ভিত্তিহীন।

বাংলাদেশ বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও শফিউল আজিম চ্যানেল আই অনলাইনকে জানান, ভিডিওটি বাংলাদেশ বিমানের বলে প্রকাশ করা হচ্ছে, যা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এটি বাংলাদেশ বিমানের নয়। এখানে বাংলাদেশ বিমানের কোনো প্রমাণ নেই।

ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, এক যুবকের শরীরে পোশাক নেই। ওই অবস্থাতেই তিনি একের পর এক ঘুষি চালাচ্ছেন সামনে বসে থাকা যাত্রীর মুখে। পাল্টা ওই যাত্রী তার মুখে এক চড় কষান। মুখের ভিতর হাতও ঢুকিয়ে দেন। তাতে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে পাল্টা মারতে শুরু করেন ওই যুবক।

বিমান বাংলাদেশ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, ‘গত বেশ কয়েকদিন যাবৎ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম প্লেনের ভিতর দুইজন যাত্রীর হাতাহাতির একটি ভিডিও জনৈক দিপংকর বিশ্বাসের বরাত দিয়ে বাংলাদেশ বিমানের বলে প্রচার করা হচ্ছে। বাংলাদেশ বিমানে দিপংকর বিশ্বাস নামে কোন ইনফ্লাইট পরিষেবা কর্মী নেই।

ইনফ্লাইটে এ ধরণের ঘটনা ঘটলে বিমানের এসওপি অনুযায়ী পার্সার লগ এবং লগে লিপিবদ্ধ করা হয়।

ঘটনার গুরুত্ব বিবেচনা করে তৎক্ষণাৎ কর্তৃপক্ষের নজরে আনা হয় এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। বাংলাদেশ বিমানে এ ধরণের কোন ঘটনার বর্ণনা পাওয়া যায়নি।’

উল্লেখ্য, প্রকাশিত ভিডিওতে বিমানের আসনে বসে থাকা ওই ব্যক্তির মুখ দেখা যায়নি।

তবে তার পরনে ছিল সাদা শার্ট। আক্রমণকারী যুবক তার কাছ থেকে কিছু কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করছিলেন। সফল না হয়েই আক্রমণ করেন।

অন্যদিকে, আক্রমণকারী যুবককে দেখা যায় মারতে মারতেই কান্নায় ভেঙে পড়ছেন। যদিও কী নিয়ে দু’জনের ঝগড়া বা হাতাহাতি, তা স্পষ্ট নয় ওই ভিডিওতে।

সেখানে দেখা যায় দু’জনকেই সামলাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন বিমানের বাকি যাত্রীরা। ভিডিওটি সেখানেই শেষ হয়।