১০:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসরায়েলে নেতানিয়াহু সরকারের বিরুদ্ধে হাজারো মানুষের বিক্ষোভ

বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর নেতৃত্বাধীন নতুন সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন হাজার হাজার ইসরায়েলি নাগরিক। ইসরায়েলি পার্লামেন্ট নেসেটের বামপন্থী ও ফিলিস্তিনি সদস্যরা এ বিক্ষোভের নেতৃত্ব দেন।

স্থানীয় সময় শনিবার হাজার হাজার ইসরায়েলি দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর নতুন সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে। বিক্ষোভকারীরা ইসরায়েলের উপকূলীয় শহর তেলআবিবে স্লোগান দিয়েছে- ‘গণতন্ত্র বিপদে’ এবং ‘ফ্যাসিবাদ এবং বর্ণবাদের বিরুদ্ধে ঐক্য’।

বিক্ষোভকারীদের অনেকে ইসরায়েলি এবং রংধনু পতাকা হাতে রেখেছিল। একই সঙ্গে অনেকে ‘ক্রাইম মিনিস্টার’ লেখা একটি বড় ব্যানার নিয়ে বিক্ষোভে হাজির হন। ক্রাইম মিনিস্টার শব্দ দুটি বিগত বছরগুলোতে নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে নিয়মিত বিক্ষোভের সময় ব্যাপকভাবে ব্যবহুত স্লোগানের মধ্যে একটি।

এসময় বিক্ষোভকারীরা দেশটির বিচারমন্ত্রী ইয়ারিভ লেভিনের নিন্দা করেন। তাদের দাবি, বুধবার লেভিন বিচার ব্যবস্থায় এমন সংশোধন ঘোষণা করেছেন, যা দেশের সুপ্রিম কোর্টকে দুর্বল করে ফেলবে।

এ সংশোধনীর ফলে দেশটির পার্লামেন্ট সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তগুলোকে বাতিল করার ক্ষমতা পাবে।

ইসরায়েলের বিরোধী নেতা ইয়ার লাপিদ এই সংস্কার পরিকল্পনার নিন্দা করে টুইটারে বলেছেন, এটি ‘ইসরায়েল রাষ্ট্রের পুরো আইনি ব্যবস্থাকে বিপন্ন করবে’।

এক বিক্ষোভকারী বলেন, আমরা সত্যিই ভয় পাচ্ছি, কারণ আমাদের দেশ গণতন্ত্র হারাতে চলেছে। আমরা শিগগির এ স্বৈরাচারী শাসকের হাত থেকে মুক্তি পেতে চাই।

নেতানিয়াহুর সরকার ফিলিস্তিনের অধিকৃত পশ্চিমতীরে বসতি সম্প্রসারণের নীতি অনুসরণ করার এবং সমকামী সম্প্রদায়ের সদস্য ও সমর্থকদের উদ্বিগ্ন করে এমন কিছু সামাজিক সংস্কার এগিয়ে নেওয়ার অভিপ্রায় ঘোষণা করেছে।

এছাড়াও জানা যায়, নতুন সরকারের মন্ত্রিসভায় এমন রাজনীতিবিদ রয়েছেন, যার বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ রয়েছে ও তিনি এ অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করেছেন। তাছাড়া, কট্টোর ডানপন্থি ওই নেতা ফিলিস্তিনে বর্বর গণহত্যা চালেয়েছিলেন বলেও শোনা যায়।

নেতানিয়াহু এর আগে ১৯৯৬ সাল থেকে ১৯৯৯ সাল এবং ২০০৯ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। ২০২২ সালের ডিসেম্বরে তিনি তৃতীয় মেয়াদে ইহুদি এই দেশটির প্রধানমন্ত্রী হন।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

ইসরায়েলে নেতানিয়াহু সরকারের বিরুদ্ধে হাজারো মানুষের বিক্ষোভ

Update Time : ১১:৩১:২২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৩

বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর নেতৃত্বাধীন নতুন সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন হাজার হাজার ইসরায়েলি নাগরিক। ইসরায়েলি পার্লামেন্ট নেসেটের বামপন্থী ও ফিলিস্তিনি সদস্যরা এ বিক্ষোভের নেতৃত্ব দেন।

স্থানীয় সময় শনিবার হাজার হাজার ইসরায়েলি দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর নতুন সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে। বিক্ষোভকারীরা ইসরায়েলের উপকূলীয় শহর তেলআবিবে স্লোগান দিয়েছে- ‘গণতন্ত্র বিপদে’ এবং ‘ফ্যাসিবাদ এবং বর্ণবাদের বিরুদ্ধে ঐক্য’।

বিক্ষোভকারীদের অনেকে ইসরায়েলি এবং রংধনু পতাকা হাতে রেখেছিল। একই সঙ্গে অনেকে ‘ক্রাইম মিনিস্টার’ লেখা একটি বড় ব্যানার নিয়ে বিক্ষোভে হাজির হন। ক্রাইম মিনিস্টার শব্দ দুটি বিগত বছরগুলোতে নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে নিয়মিত বিক্ষোভের সময় ব্যাপকভাবে ব্যবহুত স্লোগানের মধ্যে একটি।

এসময় বিক্ষোভকারীরা দেশটির বিচারমন্ত্রী ইয়ারিভ লেভিনের নিন্দা করেন। তাদের দাবি, বুধবার লেভিন বিচার ব্যবস্থায় এমন সংশোধন ঘোষণা করেছেন, যা দেশের সুপ্রিম কোর্টকে দুর্বল করে ফেলবে।

এ সংশোধনীর ফলে দেশটির পার্লামেন্ট সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তগুলোকে বাতিল করার ক্ষমতা পাবে।

ইসরায়েলের বিরোধী নেতা ইয়ার লাপিদ এই সংস্কার পরিকল্পনার নিন্দা করে টুইটারে বলেছেন, এটি ‘ইসরায়েল রাষ্ট্রের পুরো আইনি ব্যবস্থাকে বিপন্ন করবে’।

এক বিক্ষোভকারী বলেন, আমরা সত্যিই ভয় পাচ্ছি, কারণ আমাদের দেশ গণতন্ত্র হারাতে চলেছে। আমরা শিগগির এ স্বৈরাচারী শাসকের হাত থেকে মুক্তি পেতে চাই।

নেতানিয়াহুর সরকার ফিলিস্তিনের অধিকৃত পশ্চিমতীরে বসতি সম্প্রসারণের নীতি অনুসরণ করার এবং সমকামী সম্প্রদায়ের সদস্য ও সমর্থকদের উদ্বিগ্ন করে এমন কিছু সামাজিক সংস্কার এগিয়ে নেওয়ার অভিপ্রায় ঘোষণা করেছে।

এছাড়াও জানা যায়, নতুন সরকারের মন্ত্রিসভায় এমন রাজনীতিবিদ রয়েছেন, যার বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ রয়েছে ও তিনি এ অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করেছেন। তাছাড়া, কট্টোর ডানপন্থি ওই নেতা ফিলিস্তিনে বর্বর গণহত্যা চালেয়েছিলেন বলেও শোনা যায়।

নেতানিয়াহু এর আগে ১৯৯৬ সাল থেকে ১৯৯৯ সাল এবং ২০০৯ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। ২০২২ সালের ডিসেম্বরে তিনি তৃতীয় মেয়াদে ইহুদি এই দেশটির প্রধানমন্ত্রী হন।