০৬:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেনীয় শস্যবাহী একটি কার্গো জাহাজ তুরস্কের শরণাপন্ন হয়েছে

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩ জুলাই ২০২২
  • 14

রাশিয়ার পতাকাবাহী একটি জাহাজ নিয়ে তুরস্কের শরণাপন্ন হয়েছে ইউক্রেন। কিয়েভের দাবি, হিবেক জোলি নামের ওই পণ্যবাহী জাহাজটি যেন আটক করে তুরস্ক। কেননা, রাশিয়া অধিকৃত বন্দর বারদিয়ানস্ক থেকে ছেড়ে যাওয়া জাহাজটি ইউক্রেনীয় শস্যবাহী একটি কার্গো বহন করছে। ইউক্রেনের একজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে গতকাল শনিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম। এ সংক্রান্ত নথিও দেখতে পাওয়ার কথা জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই কর্মকর্তা দেশটির সামুদ্রিক প্রশাসনের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছেন, সাত হাজার ১৪৬ ডেডওয়েট টনেজের হিবেক জোলি জাহাজটি বারদিয়ানস্ক থেকে ইউক্রেনের প্রায় সাড়ে চার হাজার টন শস্যের প্রথম কার্গো লোড করেছে।

তুরস্কের বিচার মন্ত্রণালয়ের কাছে গত ৩০ জুন তারিখের একটি চিঠিতে বিষয়টি উল্লেখ করেছে ইউক্রেনের প্রসিকিউটর জেনারেলের কার্যালয়। চিঠিতে বলা হয়েছে, বারদিয়ানস্ক থেকে তুরস্কের কারাসুর দিকে ছেড়ে যাওয়া রুশ পতাকাবাহী জাহাজটি ‘ইউক্রেনীয় শস্যের অবৈধ রফতানির’ সঙ্গে যুক্ত।

চিঠিতে সামুদ্রিক জাহাজটি পরিদর্শন, ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য শস্যের নমুনা জব্দ এবং শস্যের উৎপত্তিস্থল সংক্রান্ত তথ্য দাবি করতে তুরস্কের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইউক্রেনের প্রসিকিউটর জেনারেলের কার্যালয়।

বিষয়টি নিয়ে তুর্কি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে একটি যৌথ তদন্ত পরিচালনা করতেও ইউক্রেন প্রস্তুত রয়েছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়া অঞ্চলের রুশ অধিকৃত অঞ্চলের একজন কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার বলেছেন যে, বেশ কয়েক মাস পর অঞ্চলটি থেকে প্রথম পণ্যবাহী জাহাজ বারদিয়ানস্ক বন্দর ছেড়েছে। ওই কর্মকর্তা অবশ্য জাহাজটির নাম উল্লেখ করেননি।

বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও রুশ প্রেসিডেন্টের দফতর ক্রেমলিন থেকে কোনো সাড়া মেলেনি।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

ইউক্রেনীয় শস্যবাহী একটি কার্গো জাহাজ তুরস্কের শরণাপন্ন হয়েছে

Update Time : ১২:০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩ জুলাই ২০২২

রাশিয়ার পতাকাবাহী একটি জাহাজ নিয়ে তুরস্কের শরণাপন্ন হয়েছে ইউক্রেন। কিয়েভের দাবি, হিবেক জোলি নামের ওই পণ্যবাহী জাহাজটি যেন আটক করে তুরস্ক। কেননা, রাশিয়া অধিকৃত বন্দর বারদিয়ানস্ক থেকে ছেড়ে যাওয়া জাহাজটি ইউক্রেনীয় শস্যবাহী একটি কার্গো বহন করছে। ইউক্রেনের একজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে গতকাল শনিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম। এ সংক্রান্ত নথিও দেখতে পাওয়ার কথা জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই কর্মকর্তা দেশটির সামুদ্রিক প্রশাসনের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছেন, সাত হাজার ১৪৬ ডেডওয়েট টনেজের হিবেক জোলি জাহাজটি বারদিয়ানস্ক থেকে ইউক্রেনের প্রায় সাড়ে চার হাজার টন শস্যের প্রথম কার্গো লোড করেছে।

তুরস্কের বিচার মন্ত্রণালয়ের কাছে গত ৩০ জুন তারিখের একটি চিঠিতে বিষয়টি উল্লেখ করেছে ইউক্রেনের প্রসিকিউটর জেনারেলের কার্যালয়। চিঠিতে বলা হয়েছে, বারদিয়ানস্ক থেকে তুরস্কের কারাসুর দিকে ছেড়ে যাওয়া রুশ পতাকাবাহী জাহাজটি ‘ইউক্রেনীয় শস্যের অবৈধ রফতানির’ সঙ্গে যুক্ত।

চিঠিতে সামুদ্রিক জাহাজটি পরিদর্শন, ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য শস্যের নমুনা জব্দ এবং শস্যের উৎপত্তিস্থল সংক্রান্ত তথ্য দাবি করতে তুরস্কের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইউক্রেনের প্রসিকিউটর জেনারেলের কার্যালয়।

বিষয়টি নিয়ে তুর্কি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে একটি যৌথ তদন্ত পরিচালনা করতেও ইউক্রেন প্রস্তুত রয়েছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়া অঞ্চলের রুশ অধিকৃত অঞ্চলের একজন কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার বলেছেন যে, বেশ কয়েক মাস পর অঞ্চলটি থেকে প্রথম পণ্যবাহী জাহাজ বারদিয়ানস্ক বন্দর ছেড়েছে। ওই কর্মকর্তা অবশ্য জাহাজটির নাম উল্লেখ করেননি।

বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও রুশ প্রেসিডেন্টের দফতর ক্রেমলিন থেকে কোনো সাড়া মেলেনি।