০৬:০২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আছড়ে প‌ড়ে‌ছে ঘূর্ণিঝড় গুলাব!

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৮:৪৬:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • 46

ঘূর্ণিঝড় গুলাবের আছড়ে পড়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যার পরেই মেঘের আস্তরণ ছুঁয়ে ফেলেছে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের উত্তর উপকূল ও ওড়িশার দক্ষিণ উপকূল।

আবহাওয়া দফতরের সতর্কতা, রবিবার রাতের মধ্যেই স্থলভাগ ছুঁয়ে ফেলবে গুলাব। মাটি ছোঁয়ার পর এই ঝড়ের গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ৭৫ থেকে ৮৫ কিলোমিটার। 

এর অভিঘাত হতে পারে ৯৫ কিলোমিটারের কাছাকাছি। এর ফলে অন্ধ্রপ্রদেশ ও ওড়িশা উপকূলে জারি রয়েছে চরম সতর্কতা। ইতিমধ্যে কলিঙ্গপত্তনমে হাওয়ার গতি বাড়তে শুরু করেছে। সমুদ্র উত্তাল হওয়ারও খবর আসছে।

ইতিমধ্যে অন্ধ্র্রপ্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে সমুদ্রে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। রবিবার ও সোমবার এই নিষেধাজ্ঞা জারি থাকছে। পাশাপাশি স্থানীয় আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, রবিবার সারাদিন ও সোমবার সারাদিনই বৃষ্টি হবে।

আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সন্ধ্যা ৬টা থেকে ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, সেই কারণে ইতিমধ্যে অন্ধ্র ও ওড়িশা উপকূলে দুর্যোগ শুরু হয়েছে। আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তিন ঘণ্টার মধ্যে কলিঙ্গপত্তনম ও গোপালপুরের মধ্যে দিয়ে এই ঝড় বয়ে যাবে। ঝড়ের কেন্দ্র বা চোখ থাকতে পারে কলিঙ্গপত্তনমের ২৫ কিলোমিটারের মধ্যে। সূত্র: আনন্দবাজার

Tag :
About Author Information

ভারতে ৩শ’ রুপির গয়না ৬ কোটিতে বিক্রি করে মার্কিন নারীর সঙ্গে প্রতারণা।

আছড়ে প‌ড়ে‌ছে ঘূর্ণিঝড় গুলাব!

Update Time : ০৮:৪৬:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

ঘূর্ণিঝড় গুলাবের আছড়ে পড়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যার পরেই মেঘের আস্তরণ ছুঁয়ে ফেলেছে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের উত্তর উপকূল ও ওড়িশার দক্ষিণ উপকূল।

আবহাওয়া দফতরের সতর্কতা, রবিবার রাতের মধ্যেই স্থলভাগ ছুঁয়ে ফেলবে গুলাব। মাটি ছোঁয়ার পর এই ঝড়ের গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ৭৫ থেকে ৮৫ কিলোমিটার। 

এর অভিঘাত হতে পারে ৯৫ কিলোমিটারের কাছাকাছি। এর ফলে অন্ধ্রপ্রদেশ ও ওড়িশা উপকূলে জারি রয়েছে চরম সতর্কতা। ইতিমধ্যে কলিঙ্গপত্তনমে হাওয়ার গতি বাড়তে শুরু করেছে। সমুদ্র উত্তাল হওয়ারও খবর আসছে।

ইতিমধ্যে অন্ধ্র্রপ্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে সমুদ্রে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। রবিবার ও সোমবার এই নিষেধাজ্ঞা জারি থাকছে। পাশাপাশি স্থানীয় আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, রবিবার সারাদিন ও সোমবার সারাদিনই বৃষ্টি হবে।

আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সন্ধ্যা ৬টা থেকে ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, সেই কারণে ইতিমধ্যে অন্ধ্র ও ওড়িশা উপকূলে দুর্যোগ শুরু হয়েছে। আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তিন ঘণ্টার মধ্যে কলিঙ্গপত্তনম ও গোপালপুরের মধ্যে দিয়ে এই ঝড় বয়ে যাবে। ঝড়ের কেন্দ্র বা চোখ থাকতে পারে কলিঙ্গপত্তনমের ২৫ কিলোমিটারের মধ্যে। সূত্র: আনন্দবাজার