০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবশেষে পদত্যাগপত্র জমা দিলেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৬:২১:১৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ জুলাই ২০২২
  • 32

ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘি।

প্রেসিডেন্ট সার্জিও ম্যাটারেলার কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘি।

মিত্র দলগুলো সরকারের প্রতি সমর্থন সরিয়ে নেয়ার প্রেক্ষিতে পদত্যাগ করলেন তিনি। বৃহস্পতিবার তার পদত্যাগপত্র জমা দেয়ার ফলে দেশটিতে আগাম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী সেপ্টেম্বর কিংবা অক্টোবরে আগাম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। যদিও ততদিন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান হিসেবে ক্ষমতায় থেকে যেতে পারেন দ্রাঘি।

খবরে জানানো হয়, সাবেক ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান দ্রাঘি ২০২১ সালে ইতালির প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। গত বুধবার তিনি সিনেটে একটি আস্থা ভোটে জয় পেয়েছেন। কিন্তু তার তিন মিত্র দল তার প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার করে নেয়। ফলে এই সরকার টিকিয়ে রাখা অসম্ভব হয়ে পড়ে।

এর আগে বুধবার (২০ জুলাই) সন্ধ্যায় সংসদে প্রায় আধা ঘণ্টারও বেশি সময় বক্তব্য দেন মারিও দ্রাঘি। জাতীয় ঐক্যের সরকারের সম্ভাবনা ও অর্থনৈতিক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনে তার সরকারের প্রতি সমর্থন প্রদানে সিনেট সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান।

ওইদিন সকাল থেকে সব ধরনের সম্ভাবনা ও প্রত্যাশা কাজ করলেও সন্ধ্যার ভোটাভুটি পর্বের আখেরি ফলাফল মারিও দ্রাঘির জন্য ছিল হতাশার। চূড়ান্ত ভোটপর্বে অংশ নেয়নি জোট সরকারের গুরুত্বপূর্ণ তিনটি দল।
প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘির পক্ষে ভোট পড়েছে মাত্র ৯৫টি। সংসদের মোট সিনেট সদস্যসংখ্যা ৩২১ জন। ফলাফল দেখে এটা বোঝা যাচ্ছে, মারিও দ্রাঘির পদত্যাগ করা ছাড়া আর কোনো পথ খোলা নেই। ৭৪ বছর বয়সী বিশ্বের সাবেক প্রভাবশালী অর্থনীতিবিদ মারিও দ্রাঘির সরকারের মেয়াদ শেষ হচ্ছে মাত্র ১৮ মাসে।

Tag :
About Author Information

দেশের ৮৭ উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে

অবশেষে পদত্যাগপত্র জমা দিলেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী

Update Time : ০৬:২১:১৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ জুলাই ২০২২

প্রেসিডেন্ট সার্জিও ম্যাটারেলার কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘি।

মিত্র দলগুলো সরকারের প্রতি সমর্থন সরিয়ে নেয়ার প্রেক্ষিতে পদত্যাগ করলেন তিনি। বৃহস্পতিবার তার পদত্যাগপত্র জমা দেয়ার ফলে দেশটিতে আগাম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী সেপ্টেম্বর কিংবা অক্টোবরে আগাম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। যদিও ততদিন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান হিসেবে ক্ষমতায় থেকে যেতে পারেন দ্রাঘি।

খবরে জানানো হয়, সাবেক ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান দ্রাঘি ২০২১ সালে ইতালির প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। গত বুধবার তিনি সিনেটে একটি আস্থা ভোটে জয় পেয়েছেন। কিন্তু তার তিন মিত্র দল তার প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার করে নেয়। ফলে এই সরকার টিকিয়ে রাখা অসম্ভব হয়ে পড়ে।

এর আগে বুধবার (২০ জুলাই) সন্ধ্যায় সংসদে প্রায় আধা ঘণ্টারও বেশি সময় বক্তব্য দেন মারিও দ্রাঘি। জাতীয় ঐক্যের সরকারের সম্ভাবনা ও অর্থনৈতিক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনে তার সরকারের প্রতি সমর্থন প্রদানে সিনেট সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান।

ওইদিন সকাল থেকে সব ধরনের সম্ভাবনা ও প্রত্যাশা কাজ করলেও সন্ধ্যার ভোটাভুটি পর্বের আখেরি ফলাফল মারিও দ্রাঘির জন্য ছিল হতাশার। চূড়ান্ত ভোটপর্বে অংশ নেয়নি জোট সরকারের গুরুত্বপূর্ণ তিনটি দল।
প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘির পক্ষে ভোট পড়েছে মাত্র ৯৫টি। সংসদের মোট সিনেট সদস্যসংখ্যা ৩২১ জন। ফলাফল দেখে এটা বোঝা যাচ্ছে, মারিও দ্রাঘির পদত্যাগ করা ছাড়া আর কোনো পথ খোলা নেই। ৭৪ বছর বয়সী বিশ্বের সাবেক প্রভাবশালী অর্থনীতিবিদ মারিও দ্রাঘির সরকারের মেয়াদ শেষ হচ্ছে মাত্র ১৮ মাসে।